ঢাকা     মঙ্গলবার   ২১ মে ২০২৪ ||  জ্যৈষ্ঠ ৭ ১৪৩১

ঈদে ড্রেসের জন্য কান্না করেছি: বুবলী

রাহাত সাইফুল || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৬:২৫, ১৪ মে ২০২১   আপডেট: ১৬:৪০, ১৮ মে ২০২১

মুসলমানদের অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর। কিন্তু এবারের ঈদের প্রেক্ষাপট ভিন্ন। করোনার কারণে ঘরে বসেই ঈদের আনন্দ ভাগ করছেন মানুষ। সংকটময় এই পরিস্থিতিতে তারকারও ঘরে বসেই ঈদ পালন করছেন।

বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা শবনম বুবলী। এবার তার ঈদও কাটছে চার দেয়ালের মাঝে। রাইজিংবিডির সঙ্গে আলাপকালে এমনটাই জানান এই অভিনেত্রী। বুবলীর সঙ্গে আলাপচারিতার বিশেষ অংশ রাইজিংবিডির পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো।

রাহাত সাইফুল: করোনাকালীন ঈদ আনন্দ কীভাবে উদযাপন করছেন?
বুবলী: ঈদ মানেইতো আনন্দ, ঈদ মানেইতো খুশি। সত্যি কথা বলতে আমরা যে বলছি-পরিস্থিতির শিকার, এটাই মেনে নিচ্ছি। কিন্তু এটা সম্ভব নয়। আমরা হয়তো কিছুদিন আগেও বুঝেছিলাম করোনা জয় করে ফেলেছি। এখন যে অবস্থা তাতে আগামী কয়েক মাসের মধ্যে কী হবে আমরা তা জানি না। সেই জায়গা থেকে বলব বেঁচে থাকলে ঈদ করা যাবে। যতটুকু সম্ভব সতর্কভাবে ঘরে থেকেই ঈদ পালন করছি। মূল কথা, আল্লাহ সন্তুষ্টির জন্য ঈদ পালন করছি।

রাহাত সাইফুল: আপনার প্রিয় খাবার কী?
বুবলী: গরুর মাংস। আমি ঝাল জাতীয় খাবার পছন্দ করি। ঈদে আমিই রান্না করি। এবারও রান্না করছি।

রাহাত সাইফুল : শৈশবের ঈদের মজার স্মৃতি নিয়ে কিছু বলুন...
বুবলী : ঈদের মজার স্মৃতি আছে। একদম ছোটবেলায় একটা ঘটনা ছিল। ড্রেসের জন্য কান্না করেছি। ঈদের আগে আমরা কাউকে ড্রেস দেখাতাম না। ঈদের দিন সকাল বেলা আমার তিনজন বান্ধবী আসে। দরজা খুলতেই দেখি ওদের একজনের ড্রেসের রংয়ের সঙ্গে আমার ড্রেসের রং মিলে গেছে। দেখে আমার খুব খারাপ লেগেছে। আম্মুকে বললাম আমার ড্রেসের কালার মিলে গেছে। এটা আমি পরতে পারব না। আম্মু আমাকে বোঝানোর চেষ্টা করল–ঈদের দিন দোকান বন্ধ থাকে। কিন্তু আমার কান্না কিছুতেই থামছে না। প্রচন্ড কান্না করলাম। এর মধ্যে আব্বু আসলো। আমার কান্না থামাতে মার্কেটে বের হলাম। দেখলাম সমস্ত দোকান বন্ধ। একটা দোকান খোলা ছিল। আব্বু দোকানদারকে বললো মেরুন কালার বাদ দিয়ে যত কালার আছে দেখান। উনারাও দেখছেন আমি তখনো কান্না করছি। উনারা হাসছিলেন। ওখান থেকে পিংক কালারের একটা ড্রেস কিনে নিই। কতটা একসাইটেড ছিলাম আমরা!

রাহাত সাইফুল: রাইজিংবিডিকে সময় দেওয়ার জন্য ধন্যবাদ। 
বুবলী: রাইজিংবিডিকেও ধন্যবাদ ও শুভ কামনা।

ঢাকা/মারুফ

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়