ঢাকা     সোমবার   ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||  আশ্বিন ৬ ১৪২৭ ||  ০৩ সফর ১৪৪২

ঘটনা ধামাচাপা দিতে সাবেক এসপির পরামর্শ নেন প্রদীপ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৬:৪২, ১০ আগস্ট ২০২০   আপডেট: ১০:৩৯, ২৫ আগস্ট ২০২০
ঘটনা ধামাচাপা দিতে সাবেক এসপির পরামর্শ নেন প্রদীপ

টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ও সাবেক এসপি আল্লাহ বকশ চৌধুরী (ফাইল ফটো)

কক্সবাজারে অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান গুলিতে নিহত হওয়ার পর ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন টেকনাফ থানার তৎকালীন ওসি প্রদীপ কুমার দাশ। এজন্য তিনি সাবেক এক এসপির পরামর্শ নেন। তাদের দুজনের ফোনালাপ ইতোমধ্যে তদন্ত সংস্থার হাতে এসেছে।

সোমবার (১০ আগস্ট) দুপুরে এ বিষয়ে কথা হয় র‌্যাবের সদর দপ্তরের আইন ও গণমাধ‌্যম বিভাগের পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আশিক বিল্লাহ সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘ওই হত‌্যাকাণ্ডের পর বিভিন্ন ফোনালাপ গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারিত হয়েছে। এগুলো যাচাই করা হচ্ছে। সেখানে আইনের কোনো ব্যত্যয় ঘটলে তা দেখে ব্যবস্থা নেবেন তদন্ত কর্মকর্তা।’

সাবেক এসপির সঙ্গে প্রদীপ কুমার দাশের ফোনালাপ প্রসঙ্গে তিনি আরো বলেন, ‘তদন্তের অংশ হিসেবে ওই ফোনালাপ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এতে আইনের ব্যত্যয় ঘটেছে বলে মনে হচ্ছে। পরবর্তীতে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তদন্ত কর্মকর্তাই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন।’

৩১ জুলাই অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত‌্যাকাণ্ডের পর প্রদীপ আইনি সহায়তা নেওয়ার জন্য সাবেক এসপি আল্লাহ বকশ চৌধুরীর কাছে ফোন করেন। সিনহা সাবেক সেনা কর্মকর্তা, এ তথ‌্য জেনে প্রদীপকে দুশ্চিন্তা না করার পরামর্শ দেন আল্লাহ বকশ চৌধুরী। ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার কৌশলও প্রদীপকে শিখিয়ে দেন ওই সাবেক এসপি। প্রয়োজনে
পৃথক দুটি মামলা করারও পরামর্শ দেন তিনি।

তদন্ত সংশ্লিষ্টরা সন্দেহ করছেন, সাবেক ওই এসপির পরামর্শ নিয়েই পৃথক দুটি মামলা করেন প্রদীপ। এসব মামলায় সিনহার দুই সহকর্মী সিফাত ও শিপ্রাকে আসামি করা হয়। এ মামলা দুটি তদন্ত করবে র‌্যাব।

আল্লাহ বকশ চৌধুরীর বাড়ি চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলায়। প্রদীপের সঙ্গে তার সুসম্পর্ক ছিল।

প্রদীপ কুমার দাশের সঙ্গে ফোনালাপের কথা স্বীকার করে আল্লাহ বকশ চৌধুরী জানিয়েছেন, প্রদীপ তাকে মিথ্যা তথ্য দিয়েছিলেন। এ কারণে তিনি ওই ধরনের পরামর্শ দেন। প্রকৃত ঘটনা জানলে লিয়াকতকে আসামি করে মামলা করার পরামর্শ দিতেন তিনি।

এর আগে টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ, বাহারছড়া পুলিশ চেকপোস্টের ইনচার্জ লিকায়ত ও কক্সবাজারের বতর্মান এসপি এ বি এম মাসুদ হোসেনের ফোনালাপ ফাঁস হয়। এসব ফোনালাপ নিয়ে কাজ শুরু করেছে তদন্ত সংস্থা।

গত ৩১ জুলাই (শুক্রবার) রাতে টেকনাফের বাহারছড়া চেকপোস্টে তল্লাশির সময় পুলিশের গুলিতে নিহত হন অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান।

ঢাকা/মাকসুদ/রফিক

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়