Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     রোববার   ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||  আশ্বিন ৪ ১৪২৮ ||  ০৯ সফর ১৪৪৩

হেলেনা জাহাঙ্গীর ৩ দিনের রিমান্ডে

নিজস্ব প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:৩০, ৩০ জুলাই ২০২১   আপডেট: ২১:৩৭, ৩০ জুলাই ২০২১

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়ের করা মামলায় আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক উপ-কমিটি থেকে সদ্য বহিষ্কৃত হেলেনা জাহাঙ্গীরের তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

শুক্রবার (৩০ জুলাই) রাত সাড়ে ৮টার দিকে ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট রাজেশ চৌধুরী শুনানি শেষে রিমান্ডের আদেশ দেন।

এর আগে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গুলশান থানার পুলিশ পরিদর্শক শেখ শাহানুর রহমান আসামি হেলেনা জাহাঙ্গীরকে আদালতে হাজির করে পাঁচ দিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করেন।

রাষ্ট্রপক্ষে ঢাকা মহানগর পাবলিক প্রসিকিউটর আব্দুল্লাহ আবুসহ কয়েকজন রিমান্ড মঞ্জুরের পক্ষে শুনানি করেন।

প্রসিকিউটর আব্দুল্লাহ আবু বলেন, ‘আসামি ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে মন্ত্রী-এমপিদের নিয়ে কটূক্তি করেছেন। যারা ফেসবুক ব্যবহার করেন, তারা বিষয়টি দেখেছেন। আসামি সরকারের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালিয়েছেন। এতে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ার আশঙ্কা আছে। একটা চক্র সরকারের বিরুদ্ধে কাজ করছে। পুলিশ যে পাঁচ দিনের রিমান্ড চেয়েছে, যৌক্তিক কারণে তা মঞ্জুর করা হোক।’

আসামির পক্ষে অ্যাডভোকেট শফিকুল ইসলাম রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন আবেদন করেন। তিনি বলেন, ‘অপমানজনক, মানহানিকর কিংবা আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি হয় এমন বক্তব্য হেলেনা জাহাঙ্গীর দেননি। আসামি যদি অপরাধ করে থাকেন, তাহলে তার বিচার হবে। এখানে রিমান্ডের যৌক্তিকতা নেই।’

তিনি আরও বলেন, ‘ঈর্ষান্বিত হয়ে কেউ মামলা করিয়েছে। হেলেনা জাহাঙ্গীর সিআইপি। অযথা লাফ দিয়ে কেন তিনি বিপদে পড়বেন, হেরাজ হবেন, খ্যাতি-সুনাম নষ্ট করবেন। রিমান্ডের যৌক্তিকতা নেই। সরকারের ক্ষতি হবে এমন কোনো বক্তব্য তিনি দেননি। তার জামিন প্রার্থনা করছি।’

এর পর রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী হেলেনা জাহাঙ্গীরের ফেসবুকের একটি বক্তব্য আদালতে উপস্থাপন করেন। সেখানে হেলেনা জাহাঙ্গীর বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী বাদে আর কাউকে তিনি গোনেন না।

এর পরিপ্রেক্ষিতে আসামিপক্ষের আইনজীবী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর প্রতি শতভাগ অনুগত তিনি। আবেগের বশে হয়তো কথাটা বলেছেন। আর কোনো মন্ত্রী তো বলেননি, হেলেনা জাহাঙ্গীরের বক্তব্যে মানহানি হয়েছে। বক্তব‌্যেই প্রমাণ হলো—প্রধানমন্ত্রীর প্রতি তিনি শতভাগ অনুগত। রিমান্ড বাতিল চেয়ে তার জামিন চাই।’

উভয় পক্ষের শুনানি শেষে আদালত হেলেনা জাহাঙ্গীরের তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এদিকে, হেলেনা জাহাঙ্গীরকে আদালতে হাজির করার সময় আদালত পাড়ায় নিরাপত্তা জোরদার করা হয়।

বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) রাতে রাজধানীর গুলশান-২ এর ৩৬ নম্বর সড়কের ৫ নম্বর বাড়ি ‘জেনেটিক রিচমন্ড’-এ অভিযান চালিয়ে হেলেনা জাহাঙ্গীরকে (৪৯) গ্রেপ্তার করা হয়। অভিযানকালে ওই বাসা থেকে ১৯ বোতল বিদেশি মদ, ১টি ক্যাঙ্গারুর চামড়া, ১টি হরিণের চামড়া, ২টি মোবাইল ফোন, ১৯টি চেক বই ও বিদেশি মুদ্রা, ২টি ওয়াকিটকি সেট এবং জুয়া (ক্যাসিনো) খেলার সরঞ্জামাদি- ৪৫৬টি চিপস জব্দ করা হয়। ওই রাতেই মিরপুরে হেলেনা জাহাঙ্গীরের মালিকানাধীন জয়যাত্রা টেলিভিশনের কার্যালয়েও অভিযান চালানো হয়। যথাযথ কর্তৃপক্ষের অনুমোদন না থাকায় জয়যাত্রা টেলিভিশন স্টেশন সিলগালা ও অবৈধ মালামাল জব্দ করা হয়।

সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ‘বাংলাদেশ আওয়ামী চাকরিজীবী লীগ’ নামের একটি সংগঠনের পোস্টার ভাইরাল হলে আলোচনায় উঠে আসেন হেলেনা জাহাঙ্গীর। পোস্টারে সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি হেলেনা জাহাঙ্গীর আর সাধারণ সম্পাদক মাহবুব মনিরের নাম উল্লেখ করা হয়। এর পরেই আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য পদ হারান হেলেনা জাহাঙ্গীর।

মামুন/রফিক

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়