Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     বুধবার   ২০ অক্টোবর ২০২১ ||  কার্তিক ৪ ১৪২৮ ||  ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

‘শত শত মামলা হবে ইভ্যালির বিরুদ্ধে’

নিজস্ব প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:৩৩, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১  
‘শত শত মামলা হবে ইভ্যালির বিরুদ্ধে’

‘ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির বিরুদ্ধে শত শত মামলা হবে। এটা তো শুরু। প্রতিষ্ঠানটি যাদের টাকা দেয়নি তারা কি বসে থাকবে?’

বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) ঢাকার অ্যাডিশনাল মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট হাসিবুল হকের আদালতের ইভ্যালির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মো. রাসেলের রিমান্ড শুনানিতে একথা বলেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ঢাকা মহানগর পাবলিক প্রসিকিউটর আব্দুল্লাহ আবু।

এদিকে এদিন রাসেলের রিমান্ড ও জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

এরআগে ধানমন্ডি থানায় করা প্রতারণা করে অর্থ আত্মসাতের একটি মামলায় তদন্ত কর্মকর্তা সংশ্লিষ্ট থানার সাব-ইন্সপেক্টর আবুল কালাম আজাদ আসামি রাসেলকে এ মামলায় গ্রেপ্তার দেখানোসহ পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন।

আব্দুল্লাহ আবু বলেন, ‘ইভ্যালি ব্যবসার নাম করে গ্রাহকের শত শত কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছে। সত্যিকারের ব্যবসায়ী হলে তারা এ ধরনের কাজ করতে পারতো না। পুলিশ তাদের রিমান্ড চেয়েছে রিমান্ড মঞ্জুর করা হোক।’

আসামির পক্ষে এম মনিরুজ্জামান আসাদ রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন আবেদন করেন। তিনি বলেন, ‘আগেও রাসেলকে রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। মামলার অভিযোগ, ধারা প্রায় একই। করোনার কারণে নির্দিষ্ট সময়ে তারা কিছু গ্রাহকের পণ্য সরবরাহ করেননি। কিন্তু তারা তো বলেননি পণ্য সরবরাহ করবেন না বা টাকা ফেরত দিবেন না। অবশ্যই তারা তাদের শর্ত পূরণ করবেন। তারা এখন পর্যন্ত ৭০ লাখ গ্রাহকের কাছে তাদের পণ‌্য পৌঁছে দিয়েছে। তিন জন গ্রাহক তা পাননি। এখন আবার রাসেলের আরেকটি মামলায় রিমান্ড আবেদন করা হয়েছে। রিমান্ডের যৌক্তিকতা নেই। তার রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন চাচ্ছি।’

তিনি বলেন, ‘তার বাড়ি আছে। পাসপোর্ট জমা রেখে বা যেকোনো শর্তে তার জামিন চাচ্ছি। তার বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট কোনো অভিযোগও নাই। জামিন পেলে তিনি নিয়মিত আদালতে হাজিরা দেবেন।’

রাষ্ট্রপক্ষ এর বিরোধীতা করে জানায়, ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির বিরুদ্ধে শত শত মামলা হবে। এটা তো শুরু। প্রতিষ্ঠানটি যাদের টাকা দেয়নি তারা কি বসে থাকবে? ইভ্যালি শত শত কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছে। তাদের বিরুদ্ধে দুদক তদন্ত করছে। মানিলন্ডারিং মামলাও হবে। তারা বুঝে শুনে টাকা আত্মসাৎ করেছে। এরপর যদি তারা প্রমাণ করতে পারেন যে টাকা নেয়নি। তাহলে তারা অব্যাহতি পাবেন।

উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত রাসেলের রিমান্ড ও জামিন নামঞ্জুর করে তাকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ দেন।

গত ২০ সেপ্টেম্বর দুই লাখ ২০ হাজার ১২৬ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে আব্দুর রহমান রাকিব নামে এক গ্রাহক ধানমন্ডি থানায় মামলা দায়ের করেন।

এদিকে এদিন ধানমিন্ড থানায় দায়ের করা আরেকটি প্রতারণার মামলায়ও রাসেলের জামিন আবেদন করেন তার আইনজীবী। একই আদালত তার জামিনের আবেদন নাকচ করেন বলে জানান রাষ্ট্রপক্ষের আরেক আইনজীবী আজাদ রহমান।

গত ১৬ সেপ্টেম্বর রাজধানীর মোহাম্মদপুরে ইভ্যালির সিইও রাসেলের বাসায় অভিযান চালায় র‌্যাব। অভিযান শেষে বিকেলে স্ত্রীসহ তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। 

১৮ সেপ্টেম্বর গুলশান থানার একটি মামলায় আদালত তাদের তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এরপর গত ২১ সেপ্টেম্বর ধানমন্ডি থানার একটি মামলায় রাসেলের একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। তার স্ত্রী শামীমা নাসরিনের রিমান্ডের আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

ঢাকা/মামুন/সনি

সর্বশেষ