ঢাকা, শনিবার, ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২৩ নভেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

দাঁত না মাজলে যা হয়

স্বপ্নীল মাহফুজ : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৭-০২-০২ ৯:৩০:৪৬ এএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০২-০২ ১:০১:২৮ পিএম
প্রতীকী ছবি

স্বপ্নীল মাহফুজ : অনেকেই প্রতিদিন দুইবার তাদের দাঁত ব্রাশ করে থাকে। কিন্তু যারা দুইবার দাঁত ব্রাশ করেন না, দন্ত বিশেষজ্ঞদের মতে, তাদের বিভিন্ন ধরনের রোগ যেমন আলগা দাঁত, মাড়ি রক্তপাত এবং এমনকি করোনারি হৃদরোগ পর্যন্ত হতে পারে।

যুক্তরাজ্যের দন্ত চিকিৎসক ডা. কেন হ্যারিস, ডা. সমীর প্যাটেল এবং ডা. অ্যাডম থর্ন সম্প্রতি ডেইলি মেইলকে জানিয়েছেন, নিয়মিত দাঁত ব্রাশ না করার ফলে কি কি সমস্যা হতে পারে সে বিষয়ে।

মুখে দুর্গন্ধ : যদি নিয়মিত দাঁত ও জিহবা পরিষ্কার করা না হয় অর্থাৎ ব্রাশ করা না হয় তাহলে দাঁত ও জিহবার ওপর ব্যাকটেরিয়া আক্রমন করে। যার ফলে দাঁতের ওপর এক ধরনের আবরণের সৃষ্টি হয়। এতে করে মুখে দুর্গন্ধ সৃষ্টি হয় ও দাঁত ক্ষয় প্রাপ্ত হয়।

যদি আপনি নিয়মিত ব্রাশ না করেন তাহলে আপনার মুখের ভেতরে যে রোগজীবাণু থাকে সেগুলো স্থায়ীভাবে বসবাস শুরু করবে। যার সাহায্যে আপনার মুখে থেকে যাওয়া খাদ্যকণা খুব দ্রুত ব্যাকটেরিয়া তৈরি করবে। ফলে আপনার মুখে দুর্গন্ধ সৃষ্টি হবে।

করোনারি হৃদরোগ : আপনার মুখের ব্যাকটেরিয়া শরীরের টকাইন রক্তের মাধ্যমে করনারি ধমনীতে গিয়ে মিলিত হয়ে সেখানে ব্লকেজ তৈরি করে যার, কারণে হার্ট অ্যাটাক হতে পারে।

মাড়ি থেকে রক্তপাত : নিয়মিত ব্রাশ করলে মাড়ির রক্ত চলাচল সঠিকভাবে ঘটে, যা দাঁতের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু ব্রাশ না করা হলে তা ব্যাহত হয় যার ফলে মাড়ি থেকে রক্ত পড়ে।

দুর্বল দাঁত : দাঁত পরিষ্কার রাখতে না পারলে তা দাতেঁর জন্য ক্ষতিকর। ফলে চোয়ালের হাড় ক্ষতিগ্রস্ত হয় এবং দাত ও মাড়ির মধ্যে ফাঁকা স্থান তৈরি হয়। এর ফলে দাঁত দুর্বল হয়ে যায়।

দাঁতে দাগ পড়া : নিয়মিত দাঁত ব্রাশ না করলে দাঁতে দাগ পড়তে পারে। যে খাবার বা পানীয় আমরা গ্রহণ করি তার মাধ্যমে এমনটি হয়। যেমন রেড ওয়াইন, কফি বা তরকারি। এগুলোর ফলে দাঁতের রঙ কালচে বা হলদে হয়ে যায়।

 

সুতরাং এসব সমস্যা এড়াতে প্রতিদিন দুইবার, অন্তত দুই মিনিট ধরে দাঁত মাজুন। সকালের খাবার খাওয়ার আগে এবং ঘুমাতে যাওয়ার আগে।

 

টুথব্রাশ অবশ্যই সব দাঁত পর্যন্ত পৌঁছাতে হবে। ব্রাশটিকে ৪৫ ডিগ্রি পর্যন্ত বাঁকা করতে হবে মাড়ির দাঁত মাজার জন্য। তাছাড়া সামনের দাঁত মাজার সময় মৃদুভাবে গোল গোল করে ঘুরাতে হবে। ব্যবহৃত ব্রাশটি অবশ্যই নরম হতে হবে। খুব জোরে ব্রাশ করা যাবে না। প্রতি তিন মাস পর পর টুথব্রাশ বদলাতে হবে।

তথ্যসূত্র: ডেইলি মেইল

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/২ ফেব্রুয়ারি ২০১৭/ফিরোজ

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন