Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     রোববার   ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||  আশ্বিন ৪ ১৪২৮ ||  ০৯ সফর ১৪৪৩

ভারত থেকে আমদানি হচ্ছে ৫০ হাজার মেট্রিক টন সিদ্ধ চাল

কেএমএ হাসনাত || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৯:৪৩, ২ আগস্ট ২০২১  
ভারত থেকে আমদানি হচ্ছে ৫০ হাজার মেট্রিক টন সিদ্ধ চাল

দেশের খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ৫০ হাজার মেট্রিক টন নন-বাসমতি সিদ্ধ চাল আমদানির উদ্যোগ নিয়েছে খাদ্য মন্ত্রণালয়। আন্তর্জাতিক দরপত্রের মাধ্যমে ভারত থেকে এ চাল সংগ্রহ করা হবে বলে খাদ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে।

সূত্র জানায়, প্রতি মেট্রিক টন ৩৭৭.৮৮ মার্কিন ডলার দরে ৫০ হাজার মেট্রিক টন নন-বাসমতি সিদ্ধ চাল আমদানির জন্য ১ কোটি ৮৮ লাখ ৯৪ হাজার মার্কিন ডলার অর্থাৎ ১৬০ কোটি ২২ লাখ ১১ হাজার ২০০ টাকা ব্যয় হবে। দরপত্রে সর্বনিম্ন দরদাতা হিসেবে ভারতের মেসার্স বাগাদিয়া প্রাইভেট লিমিটেড এ চাল সরবরাহ করবে।

গত ২৮ জুলাই খাদ্য মন্ত্রণালয়ের সর্বশেষ দৈনিক খাদ্যশস্য পরিস্থিতি প্রতিবেদন অনুসারে, সরকারি ভাণ্ডারে মোট ১৫ লাখ ৭০ হাজার মেট্রিক টন চাল ও গম মজুদ আছে। এর মধ্যে চাল ১৩.১৮ লাখ মেট্রিক টন ও গম ২.৫২ লাখ মেট্রিক টন। সরকারি বিতরণ ব্যবস্থা সচল রাখাসহ নিরাপত্তা মজুত সুসংহত করার স্বার্থে এ চাল আমদানির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে সূত্র জানিয়েছে।

২০২১-২০২২ অর্থবছরে খাদ্যশস্যের নিরাপত্তা মজুত সুসংহত করার লক্ষ্যে আন্তর্জাতিক উন্মুক্ত দরপত্র পদ্ধতিতে চাল আমদানির লক্ষ্যে খাদ্য অধিদপ্তর গত ৩০ জুন ৫০ হাজার মেট্রি টন নন-বাসমতি সিদ্ধ চাল কেনার লক্ষ্যে আন্তর্জাতিক উন্মুক্ত দরপত্র আহ্বান করা হয়।

এর আগে গত ৩ মার্চ তারিখে ‘অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি’তে পাবলিক প্রকিউরমেন্ট বিধিমালা ২০০৮ এর বিধি ৮৩ এর উপবিধি (১) এর দফা (ক) মোতাবেক ৫.৫০ লাখ মেট্রিক টন চাল আমদানির অনুমোদন দেওয়া হয়। তার মধ্যে ৩ লাখ মেট্রিক টন চাল আমদানির কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে।

এরই ধারাবাহিকতায় এ দরপত্র আহ্বান করা হলে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে আটটি দরপত্র বিক্রি হলেও চারটি প্রতিষ্ঠান দরপত্র দাখিল করে। এর মধ্যে ভারতের মেসার্স বাগাদিয়া ব্রাদার্স প্রাইভেট লিমিটেড প্রতি মেট্রিক টন নন-বাসমতি সিদ্ধ চালের দাম ৩৭৭.৮৮ ডলার উল্লেখ করে সর্বনিম্ন দরদাতা নির্বাচিত হয়। দরপত্রে অংশ নেওয়া ভারতের মেসার্স পিকে এগ্রি লিংক প্রাইভেট লিমিটেড প্রতি মেট্রিক টনের দাম ৩৯০.৪২ ডলার, মেসার্স সৌভিক এক্সপোর্টস লিমিটেড ৪১১ ডলার এবং মেসার্স সৌম্যদীপ অ‌্যাগ্রো ফুড প্রডাক্টস প্রাইভেট লিমিটেড ৪১৯ ডলার উল্লেখ করে।

দরপত্র বিজ্ঞপ্তি ও সিডিউলে ক্রয়যোগ্য চালের মান সম্পর্কে বিনির্দেশ ময়েশ্চার-১৩.৫ শতাংশ, ভাঙা চাল ৫ শতাংশ, ফরেন ম্যাটার ০.৩ শতাংশ; মরা, নষ্ট ও বিবর্ণ চাল ৩ শতাংশ, রেডিও অ্যাক্টিভিটি ৫০ বিকিউ দেওয়া আছে।

উল্লেখ্য, বিদেশ থেকে সরকারিভাবে খাদ্যশস্য আমদানির ক্ষেত্রে পণ্য আগমনের পর পণ্য খালাসের আগেই দরদাতা প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি, খাদ্য অধিদপ্তরের প্রতিনিধি এবং খাদ্য মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধির উপস্থিতিতে পর্যায়ক্রমে নমুনা সংগ্রহ করা হয়। সংগৃহীত নমুনা খাদ্য অধিদপ্তরের স্থানীয় পরীক্ষাগারে পরীক্ষা করা হয় এবং পরে সংগৃহীত নমুনা কম্পোজিট করে এক প্যাকেট পরীক্ষার জন্য খাদ্য অধিদপ্তরে পাঠানো হয়। খাদ্য অধিদপ্তরের পরীক্ষাগারে তা পরীক্ষা করে মান নিশ্চিত করা হয়। দরপত্রে উল্লেখ করা বিনির্দেশের কোনো প্যারামিটারের সঙ্গে পণ্যের প্রাপ্ত মান নিম্নমানের হলে দরপত্রে সমুদয় চাল প্রত্যাখ্যানের বিধান রয়েছে।

দরপত্র মূল্যায়ন কমিটি সার্বিক বিষয় পর্যালোচনা করে মেসার্স বাগাদিয়া ব্রাদার্স প্রাইভেট লিমিটেডের কাছ থেকে প্রতি মেট্রিক টন চাল ৩৭৭.৮৮ মার্কিন ডলার দরে পাবনার মুলাডুলি সিএসডি, বগুড়ার সান্তাহার সিএসডি, খুলনার মহেশ্বরপাশা সিএসডি ও খুলনা সিএসডিতে সরবরাহের শর্তে সরবরাহ করার সুপারিশ করেছে।

এ সংক্রান্ত একটি ক্রয় প্রস্তাব অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠেয় সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির পরবর্তী সভায় উপস্থাপন করা হতে পারে বলে সূত্র জানিয়েছে।

ঢাকা/হাসনাত/রফিক

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়