Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     সোমবার   ১৭ মে ২০২১ ||  জ্যৈষ্ঠ ৩ ১৪২৮ ||  ০৩ শাওয়াল ১৪৪২

কলকাতার এমন হার এবং সাকিবের দায়!

ক্রীড়া ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৪:৪৮, ১৪ এপ্রিল ২০২১  
কলকাতার এমন হার এবং সাকিবের দায়!

বোলিংয়ে মুগ্ধতা ছড়ালেও ব্যাট হাতে সাকিব আল হাসান এখনো চলতি আইপিএলে ম্লান। বিশেষ করে শেষ ম্যাচে তিনি যে শট খেলে আউট হয়েছেন তা নিয়ে সমালোচনা চলছে।

গুরুত্বপূর্ণ সময়ে বাজে শট খেলে আউট হয়ে বাড়িয়েছেন দলের বিপদ। সেই বিপদ কাটিয়ে আর উঠতে পারেনি কলকাতা নাইট রাইডার্স; ম্যাচ হেরেছে ১০ রানে। অথচ সাকিব যখন ব্যাট হাতে নামেন তখন এই ম্যাচটা পুুরোপুরি তাদের হাতের মুঠোয় ছিল। ম্যাচ জিততে তখন প্রয়োজন ছিল ৪৩ বলে ৪৯ রান। হাতে জমা ৭ উইকেট। টি- টোয়েন্টিতে মামুলি টার্গেট।

কিন্তু সেই মামুলি টার্গেটই পার করতে পারল না কলকাতা। একÑদুই করে রান নিয়েই এই ম্যাচ জিততে পারতো কলকাতা। কিন্তু সাকিবের ইচ্ছে হলো ছক্কা মেরে রানের ব্যবধান কমিয়ে আনার। ক্রুনাল পান্ডিয়া বলটা সম্ভবত ডেলিভারি দেওয়ার আগেই সাকিব সিদ্ধান্ত নিয়ে রেখেছিলেনÑএই বলে ছক্কা মারবোই! শর্ট বলে হাঁটু গেঁড়ে মিডউইকেট দিয়ে ছক্কা হাঁকানোর চেষ্টা চালান সাকিব। বল বাউন্ডারি লাইনের কাছে সহজ ক্যাচ। ৯ বলে ৯ রান করে আউট সাকিব।

কলকাতার ডাগআউটে তখন ম্যাচ হারার শঙ্কার ছায়া। জাপপ্রিত বুমরা ও ট্রেন্ট বোল্ট ডেথ ওভারে কলকাতার ‘মৃত্যুঘন্টা’ বাজিয়ে দিলেন। আন্দ্রে রাসেলও পারলেন না ব্যাট হাতে কিছু করতে। আর অলরাউন্ডার কোটায় খেলা প্যাট কামিন্স তো প্রথম বলেই বোল্ড!

সাকিব যখন আউট হন তখন কলকাতার প্রয়োজন ছিল ২৮ বলে ৩১ রান। কিন্তু তাও পারেনি কলকাতা। পরের ২৮ বল থেকে আসে মাত্র ২১ রান! ক্রিজে দীনেশ কার্তিক-আন্দ্রে রাসেলরা থাকলেও কোনো কাজে আসেনি। শেষ পর্যন্ত ১০ রানে হার নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়। দুই ওপেনার নিতিশ রানা- শুভমান গিল ছাড়া কোনো ব্যাটসম্যানই দুই অংকের ঘরে পৌছাতে পারেননি।

এমন ম্যাচে দলের হারের পর অবশ্য সাফাই গাইলেন অধিনায়ক মরগ্যান। ম্যাচ শেষে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে দোষ দিয়েছেন পিচের। তিনি বলেন,  'আমাদের জেতা উচিত ছিল। এখানে (চেন্নাইয়ে) যে খেলাগুলো হয়েছে তাতে দেখা গিয়েছে শেষের দিকে রান করা কঠিন হয়ে যায়। এবি ডি’ভিলিয়ার্স ছাড়া কেউই সেটা করতে পারেনি।'    

তবে ক্ষোভ লুকাতে পারেননি কলকাতা ফ্র্যাঞ্চাইজির কর্ণধার বলিউড সুপারস্টার শাহরুখ খান। এক টুইটে এই হারকে আখ্যা দিয়েছেন হতাশজনক পারফরম্যান্স হিসেবে। মুম্বাইয়ের ১৫৩ রানের জবাবে কলকাতা আটকে গেল ৭ উইকেটে ১৪২ রানে।

কলকাতার এই হারে পুরো দায় মিডলঅর্ডার ব্যাটসম্যানদের। রাহুল ত্রিপাটি, অধিনায়ক মরগ্যান, আন্দ্রে রাসেল, দিনেশ কার্তিকের সঙ্গে ব্যাটসম্যান সাকিব আল হাসানের নামটাও ব্যর্থদের কাতারে উপরের দিকেই!

 

ঢাকা/রিয়াদ

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়