Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     বুধবার   ০৮ ডিসেম্বর ২০২১ ||  অগ্রহায়ণ ২৪ ১৪২৮ ||  ০২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

বাংলাদেশ সুবিধা দেখছে দুপুরের ম্যাচে

সাইফুল ইসলাম রিয়াদ, দুবাই থেকে || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২৩:২৭, ২২ অক্টোবর ২০২১  
বাংলাদেশ সুবিধা দেখছে দুপুরের ম্যাচে

ওমানে তপ্ত দুপুরে একটিই ম্যাচ খেলেছিল বাংলাদেশ। গরমে স্রেফ হাঁসফাঁস করেছিলেন সাকিব, মুশফিকরা। ২২ গজে টিকে থাকা কতটা কষ্টকর ছিল তা বোঝা যায় বাংলাদেশের ইনিংসের ১০ ওভার শেষে।

ড্রেসিংরুম থেকে চেয়ার, ছাতা ডেকে আনান সাকিব। কয়েক মিনিটের ছায়া পেয়ে যেন স্বস্তির ঢেকুর তোলেন তিনি। সাজঘরে ফিরে সোজা পানির নিচে। আইসবাথ নেওয়ার সুযোগ ছিল না। নয়তো ওখানে গা ডুবাতেন। ওমান পর্ব ঠিকঠাক মতো পার করলেও বাংলাদেশের সামনে সুপার টুয়েলভে কঠিন চ্যালেঞ্জ।

বাংলাদেশের পাঁচটি ম্যাচ পড়েছে দুপুরে। সূর্য যখন মধ্যগগনে থাকবে তখন মাঠে নামতে হবে মাহমুদউল্লাহদের। প্রতিটি ম্যাচ শুরু স্থানীয় সময় দুপুর ২টায়, বাংলাদেশ সময় ৪টায়। গরমে ক্রিকেটাররা কতটা সুস্থ থাকবেন, পারফর্ম করতে পারবেন সেগুলো নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। তবে দলীয় খেলায় দলের লাভ মানে নিজের লাভ। দুপুরে খেলা হওয়াতে বাংলাদেশ সুবিধাই দেখছে। সেজন্য দলের প্রত্যেকেই খুশি।

দলের সঙ্গে থাকা নির্বাচক হাবিবুল বাশার রাইজিংবিডিকে জানালেন, আমিরাতে দিনের আলোয় খেলা হওয়াতে বাংলাদেশের স্পিনাররা ভালো সুবিধা পাবেন। বলে বেশি টার্ণ করাতে পারবেন। রাতের খেলায় শিশির ম্যাচে বড় প্রভাব রাখতে পারে। দিনে সেই সুযোগটি নেই। পেসার, স্পিনার দুই বিভাগের বোলাররা সহজেই বল গ্রিপ করতে পারবেন। রাতে খেলা হলে টস বড় ভূমিকা রাখত। দিনের খেলায় সেই সুযোগটি নেই। আবার ব্যবহৃত উইকেটে খেলার সম্ভাবনা থাকত। দিনের খেলার সেই সুযোগটি নেই। সতেজ উইকেটে খেলবে বাংলাদেশ।

সুপার টুয়েলভে অংশ নিতে শুক্রবার বিকেলে ওমান থেকে দুবাই পৌঁছেছে বাংলাদেশ। টিম হোটেলে চেক-ইনের পর হাবিবুল বাশার রাইজিংবিডিকে মুঠোফোনে বলেন, ‘দুপুরে খেলা হওয়ায় আমাদের সুবিধা হবে। বিশেষ করে স্পিনারদের সুবিধা হবে। বলে স্পিন করবে বেশি। আরো কিছু সুযোগ সুবিধাও আছে। যেগুলো সব হয়তো খালি চোখে বোঝা যাবে না। এসব কিছু মিলিয়ে আমার কাছে মনে হয়েছে দুপুরে খেলা হওয়াতে ভালো হয়েছে।'

সুপার টুয়েলভে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা, অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, ইংল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ। বাংলাদেশের পাঁচটি খেলার মধ্যে দুটি করে খেলা শারজাহ ও আবুধাবিতে। শেষটি হবে দুবাইয়ে।

বিশ্বকাপের প্রথম পর্বে বাংলাদেশ প্রথম ম্যাচে হেরে গিয়েছিল। পরের দুইটিতে দাপটের সঙ্গে জিতে সুপার টুয়েলভে উঠে। হাবিবুল বাশার বিশ্বাস করেন, শেষ দুটি জয়ের আত্মবিশ্বাস মূল পর্বে কাজে আসবে,'প্রথম রাউন্ডে প্রথম ম্যাচটা আমাদের পরিকল্পনা মতো হয়নি। আমরা ভালো খেলতে পারিনি। দ্বিতীয় ম্যাচে খুবই চিন্তিত ছিলাম, কারণ আমরা কেউই স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে হার মেনে উঠতে পারিনি। মানতে সবার কষ্ট হইছে। বাড়তি চাপতো ছিলই। তৃতীয় ম্যাচটা আমরা আমাদের সামর্থ্য দেখাতে পেরেছি। আত্মবিশ্বাস বেড়েছে। আমি মনে করি এটা সুপার টুয়েল্ভে কাজে দেবে।'

ওয়ানডেতে বাংলাদেশ নিয়মিত আলো ছড়ালেও টি-টোয়েন্টিতে ভালো সময় এসেছে কালেভদ্রে। তবে এবারের হিসাবটা সম্পূর্ণ ভিন্ন। অস্ট্রেলিয়া-নিউ জিল্যান্ডকে দেশের মাটিতে উড়িয়ে র‌্যাংকিংয়ে নিজেদের ইতিহাসের সেরা অবস্থানে থেকে (ষষ্ঠ) বিশ্বকাপে পা রাখে বাংলাদেশ। গ্রুপ পর্বের বাধা পেরোনো গেছে, এবার সুপার টুয়েলভের মহারণ। এতে বাংলাদেশের সম্ভাবনা কতটুকু?

সাবেক অধিনায়ক মনে করেন ক্রিকেটারদের দলীয় পারফরম্যান্সের উপরই নির্ভর করছে বাংলাদেশের সম্ভাবনা,‘সুপার টুয়েলভে বাংলাদেশের সম্ভাবনা থাকবে আমাদের ছেলেরা কতুটুকু পারফর্ম করবে তার উপর। আমরা আমাদের পরিকল্পনা কতটুকু দিতে পারবো এটাও একটা বিষয়। এটা আরও কঠিন হবে, এখানে সবগুলো দলই ভালো। আমাদের সেরা ক্রিকেট খেলতে হবে যদি আমরা ভালো করতে চাই। ভালো ক্রিকেট খেলতে হবে এখানে। এ ছাড়া কোনো বিকল্প নাই। উন্নতি করতে হবে।'

দুবাই/রিয়াদ/ইয়াসিন

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়