ঢাকা     শুক্রবার   ০২ ডিসেম্বর ২০২২ ||  অগ্রহায়ণ ১৮ ১৪২৯ ||  ০৭ জমাদিউল আউয়াল ১৪১৪

ওপেনিং উপভোগ করছেন মিরাজ

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৪:১২, ৬ অক্টোবর ২০২২  
ওপেনিং উপভোগ করছেন মিরাজ

নিয়মিত ওপেনাররা বারবার সুযোগ পেয়েও ব‌্যর্থ। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের যে চাহিদা, তা যেন কেউই পূরণ করতে পারছিলেন না। তাই বাধ‌্য হয়ে আউট অব বক্স থেকে মেহেদী হাসান মিরাজকে ওপেনিংয়ে নিয়ে আসা। ঘরোয়া ক্রিকেটে টুকটাক ওপেনিং করে নিজের হাত ঝালাই আগেই করেছিলেন তিনি। সেই অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে জাতীয় দলে ইনিংস উদ্বোধন করতে নেমেই বাজিমাত। 

নিয়মিত ওপেনাররা যখন কাজে আসছেন না তখন মিরাজ দেয়াল হয়ে দাঁড়িয়ে রান করছেন। ব‌্যাটিংয়ে ঝড় না তুললেও অন্তত রান পাচ্ছেন। এক পাশ আগলে রেখে প্রতিপক্ষকে চোখ রাঙানি দিচ্ছেন। ওপেনিংয়ে নিজের সময়টা উপভোগ করছেন বলেই দাবি তার। 

বিসিবির পাঠানো ভিডিও বার্তায় মিরাজ বলেছেন, ‘যেহেতু আমি ওপেনিংয়ে একটা সুযোগ পেয়েছি, চেষ্টা করছি ভালো ক্রিকেট খেলার জন্য এবং আমি উপভোগ করছি। সবাই আমাকে সাপোর্ট করছে, এই জিনিসটা ভালো লাগছে। অনুশীলন যখনই করছি, আমাকে সবাই সাপোর্ট করছে এবং আমার ওপর সবাই অনেক বিশ্বাস রাখছে। আমি নিজেও অনেক আত্মবিশ্বাসী। এখন শুধু মাঠে ভালো ক্রিকেট খেলার অপেক্ষায়।’ 

বিসিবির পাঠানো আরেকটি ভিডিওতে দেখা যায়, মিরাজ লিংকনের নেটে ছক্কা মারার অনুশীলন করছেন। বোঝার বাকি নেই পাওয়ার প্লেতে বৃত্ত পার করার কৌশল নিয়েই কোচিং স্টাফদের সঙ্গে সময় কাটিয়েছেন। এশিয়া কাপে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথমবার ওপেনিংয়ে নামেন মিরাজ। প্রথম ম‌্যাচেই ২৬ বলে ৩৮ রান আসে তার ব‌্যাট থেকে। এরপর দুবাইয়ে দুই টি-টোয়েন্টিতে একটিতে ১২ এবং অপরটিতে ৪৬ রানে ঝকঝকে ইনিংস খেলেন। 

টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের ওপেনারদের কাছে প্রত‌্যাশাই থাকে পাওয়ার প্লের সদ্ব্যবহার। অন্তত কোনও উইকেট না হারিয়ে ৪০-৫০ রান। মিরাজ সেই চাহিদা পূরণ করতে পারায় তাকে ধারাবাহিক সুযোগ দেয়ার পক্ষে টিম ম‌্যানেজমেন্টও। নিউ জিল‌্যান্ডে সেভাবেই চলেছে প্রস্তুতি। 

শুক্রবার ত্রিদেশীয় সিরিজে বাংলাদেশের প্রথম ম‌্যাচ পাকিস্তানের বিপক্ষে। ম‌্যাচে মিরাজের সঙ্গী কে হবেন তা নিয়ে জল্পনা-কল্পনার শেষ নেই। তবে প্রস্তুতি ভালো হয়েছে বলেই দাবি মিরাজের, ‘আমাদের খুব ভালো প্রস্তুতি হয়েছে। আমরা যে তিনদিন অনুশীলন করেছি, খুব ভালো অনুশীলন হয়েছে। বোলাররা বোলিং করেছে, ব্যাটসম্যানরা ব্যাটিং করেছে। দুটি গ্রুপে আমাদের অনুশীলন হয়েছে এবং সুনির্দিষ্ট  অনুশীলন করেছি আমরা। যার যতটুকু দরকার, ততটুকুই করেছি। বিশেষ করে, আমি ব্যাটিং করেছি এবং বোলিংও করেছি। পেস বোলাররা স্পট বোলিং করেছে। যার যার যতটুকু দরকার, খুব ভালো প্রস্তুতি হয়েছে। কোচিং স্টাফ যারা আছেন, তারা খুব ভালো সহায়তা করেছেন আমাদের। আমাদের এখানে সহজ ছিল না অনুশীলন সেশন, কারণ এখানে একটু বেশি ঠাণ্ডা। তার পরও সবাই খুব ভালো মানিয়ে নিয়েছে। আমাদের দলের জন্য এটা ইতিবাচক দিক।’ 

ঢাকা/ইয়াসিন/ফাহিম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়