ঢাকা     বুধবার   ০১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||  মাঘ ১৯ ১৪২৯

ব্রুনোর জোড়া গোলে শেষ ষোলোতে পর্তুগাল

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০১:০০, ২৯ নভেম্বর ২০২২   আপডেট: ০৩:১৩, ২৯ নভেম্বর ২০২২
ব্রুনোর জোড়া গোলে শেষ ষোলোতে পর্তুগাল

এইচ গ্রুপ থেকে সোমবার বাংলাদেশ সময় দিবাগত রাত ১টায় উরুগুয়েকে ২-০ গোলে হারিয়ে শেষ ষোলো নিশ্চিত করে পর্তুগাল।

 

ব্রুনোর জোড়া গোলে শেষ ষোলোতে পর্তুগাল। ৫৪ মিনিটে প্রথম গোল পায় পর্তুগাল। প্রথমে এটি রোনালদোর নামে দেওয়া হয়। ১২ মিনিট পর আবার ব্রুনোকেই দেওয়া হয় সেই গোল। রোনালদোর স্পর্শ লাগেনি। এরপর যোগ করা সময়ের ৩ মিনিটে দ্বিতীয় গোল দেন পেনাল্টি থেকে। পর্তুগালের ১৮ শটের বিপরীতে উরুগুয়ে ১৪টি নেয়। প্রত্যেকেরই তিনটি করে অন টার্গেট শট। 

২-০ গোলে এগিয়ে পর্তুগাল

এবার পেনাল্টি থেকে ব্রুনোর গোল। যোগ করা সময়ে ২-০ গোলে এগিয়ে পর্তুগাল। ডি বক্সে ব্রুনোর শটই ক্লিয়ার করতে গিয়ে নীচে পড়ে বল হাতে লাগিয়ে ফেলেন গিমিনেজ। ভারের সহায়তায় রেফারি পেনাল্টি দেন। উরুগুয়ে সেটি মানতে চায়নি। তবে উপায় ছিল না।  

রোনালদো নয়, এটি ব্রুনোর গোল

লুসাইলে ব্রুনোর গোলে লাল উৎসব। ৫৪ মিনিটে গোল দিয়ে এগিয়ে দেন দলকে। ম্যাচের প্রথম অন টার্গেট শটেই পর্তুগালের গোল! ৬ গজের মধ্যে দারুণ একটু ক্রস করেন ব্রুনো। দৌড়ে এসে রোনালদো হালকা স্পর্শেই জড়িয়ে দেন জালে। লুসাইল মেতে উঠে লাল উৎসবে। কিন্তু না, রোনালদোর গোল হয়নি, কারণ তার স্পর্শ লাগেনি।৬৮ মিনিটে স্টেডিয়ামের ঘোষক জানান এটি ব্রুনোর গোল। তার নামেই যোগ হয়েছে গোল। গোল পেতে পেতেও পাননি সিআরসেভেন। 

প্রথমার্ধে উরুগুয়ের রক্ষণভেদ করতে পারেননি রোনালদোরা

রোনালদো-কাভানির লড়াইয়ের প্রথমার্ধ শেষ হলো গোল শুণ্য ড্রতে। শুরুর দিকে বেশি রক্ষণাত্মক ছিল উরুগুয়ে। ধীরে ধীরে আক্রমণে উঠে আসছিল বারবার। তবে লাভ হয়নি। একটি সহজ সুযোগ মিস করেছে তারা। অন্যদিকে বারবার আক্রমণের চেষ্টা করে গেলেও উরুগুয়ের রক্ষণভেদ করতে পারেনি পর্তুগীজরা। ৮টি আক্রমণ করে, সবগুলোই ছিল লক্ষ্যহীন। প্রথমার্ধে ৭০শতাংশ বল ছিল পর্তুগালের পায়ে। উরুগুয়ে যেখানে ১০টি ফাউল করে সেখানে পর্তুগাল করে মাত্র ২টি।

অল্পের জন্য বেঁচে গেলেন রোনালদোরা

৩২ মিনিটে অল্পের জন্য বেঁচে গেলেন রোনালদোরা। বেন্টাকুর বল পেয়েই ডি বক্সে ড্রিবলিং করে ঢুকে যান। বাঁধা হয়ে দাঁড়ান পর্তুগীজ গোলরক্ষক। এগিয়ে এসে শট রুখে দিয়ে বল নিয়ে নেন নিজের নিয়ন্ত্রণে। 

রক্ষণাত্মক খেলছে উরুগুয়ে, গোলের দেখা পাচ্ছে না পর্তুগাল

অতি রক্ষণাত্মক ফুটবল খেলছে উরুগুয়ে। কাভানিরা আক্রমণের চেয়ে নিজেদের রক্ষণের দিকেই বেশি মনোযোগ দিচ্ছে। রোনালদোর বারবার উঠে এসেও ডিফেন্সের ফাঁক ফোকর বের করতে পারছে না। এখন পর্যন্ত ৫টি আক্রমণ করে পর্তুগাল। অন্যদিকে উরুগুয়ে মাত্র ২টি। ৩০ মিনিট পর্যন্ত বল ৭৭ শতাংশ সময় পর্তুগীজদের পায়ে ছিল। 

পর্তুগাল (৪-৪-২):

ডিগো কস্তা; ক্যানসেলো, ডায়াস, পেপে, মেন্ডেস; নেভেস, কারভালহো, বার্নার্ডো সিলভা, ব্রুনো ফার্নান্দেস; ফেলিক্স, রোনালদো।

উরুগুয়ে (৩-৫-২): সুয়ারেজকে প্রথম একাদশে রাখেনি উরুগুয়ে। 

রোচেট; জিমেনেজ, গডিন, কোটস; ভারেলা, ভালভার্দে, বেন্টানকুর, ভেকিনো, অলিভিরা; নুনেজ, কাভানি।

মেসির পর লুসাইলে কি রোনালদো শো!

বিশ্ব ফুটবলে বর্তমান সময়ের দুই সেরা খেলোয়াড় লিওনেল মেসি ও ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। দুজনেই কাতার বিশ্বকাপে নিজ জাতীয় দলের জার্সিতে গোল পেয়েছেন। সবশেষ লুসাইল স্টেডিয়ামে জাদু দেখিয়ে দলকে জেতান মেসি। এবার সেই ভেন্যুতেই পা রাখবেন রোনালদো, বিশ্বকাপ ফাইনালের মাঠে কি ছাপ রাখতে পারবেন তিনিও?

একা পারবেন রোনালদো? 

রোনালদো যে একাই দলকে টেনে নিতে পারবেন সাফল্যের শিখড়ে, তা নয়। এই তো আগের ম্যাচে ঘানার বিপক্ষে জিততে জোয়াও ফেলিক্স ও রাফায়েল লিওর গোলের প্রয়োজন হয়েছিল। পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী গোলটা করেছিলেন পেনাল্টি থেকে। গোলটা স্পট কিক থেকে হলেও কী চমৎকারিত্ব দেখিয়ে তিনি পেনাল্টি আদায় করেছেন, তা হয়েছে প্রশংসিত। পেনাল্টি যে চতুরতার সঙ্গে আদায় করেছিলেন ৩৭ বছর বয়সী, তা স্বয়ং ফিফা টেকনিক্যাল স্টাডি গ্রুপ সদস্যদেরও করেছে মুগ্ধ। উদযাপনেও রোনালদো বুঝিয়ে দিয়েছেন, গোলটা কীভাবে হয়েছে সেটা নিয়ে মাথাব্যথা নেই তার। গোল করাই আসল কথা।

ঢাকা/রিয়াদ

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়