ঢাকা     বুধবার   ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||  মাঘ ২৫ ১৪২৯

ফুটবল উন্মাদনার মাঝে ভারতবধের মিশনে নামছে বাংলাদেশ 

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৮:১৯, ৪ ডিসেম্বর ২০২২   আপডেট: ১২:০৬, ৪ ডিসেম্বর ২০২২
ফুটবল উন্মাদনার মাঝে ভারতবধের মিশনে নামছে বাংলাদেশ 

রাতে ফুটবল, দিনে ক্রিকেট। রাতে লিওনেল মেসি-নেইমার জুনিয়রদের পায়ের যাদু আর দিনে বিরাট কোহলি-লিটন দাসদের মন্ত্রমুগ্ধকর নান্দনিক ব্যাটিং। বিজয়ের মাস ডিসেম্বরে বাংলাদেশিদের যেন দম ফেলার ফুরসত নেই। ফুটবল বিশ্বকাপের উন্মাদনার মাঝে শুরু হতে যাচ্ছে প্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের বিপক্ষে ক্রিকেট লড়াই। 

মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে রোববার (৪ ডিসেম্বর) দুপুর ১২টায় তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে ভারতের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। এই ম্যাচ দিয়ে ওয়ানডেতে লিটন যুগে নাম লেখাচ্ছে স্বাগতিক দল। নিয়মিত অধিয়ানয়ক ইনজুরিতে ছিটকে যাওয়ায় এই সিরিজে নেতৃত্বের ভার লিটনের কাঁধে। 

ভারতের মতো দলের বিপক্ষে নেতৃত্ব, বিরাট কোহলি-রোহিত শর্মাদের বিপক্ষে নেতৃত্ব দেওয়া নিশ্চয় বড় কিছু, দারুণ কিছু। লিটনের চোখও জয়ের দিকেই। ভারত বলে বিষয়টি এড়িয়ে যেতে চাননি লিটন বাঁ নিজেদের আন্ডারডগ বলেও মন্তব্য করেননি। ঘরের মাঠে জয়ের নেশায় বিভোর লিটন জানিয়ে দৃঢ় প্রত্যয়ের কথা। 

লিটন বলছিলেন এভাবে, ‘লক্ষ্য একটাই। জেতার জন্যই খেলতে নামব। ওদের সাথে লড়াই করা পুরোপুরি সম্ভব। আমাদের তিন বিভাগই ভালো আছে।’ 

‘এই সিরিজ নিয়ে প্রত্যেক খেলোয়াড় অনেক আশাবাদী। বড় দলের বিপক্ষে খেলতে পারলে সুযোগ সৃষ্টি হয়। ভালো পারফর্ম করলে চিন্তাধারা বদলে যায়, টপ লেভেলে যাওয়ার চিন্তাভাবনা আসে। বিগ সিরিজ, সব খেলোয়াড় অনেক উৎসাহী’-আরও যোগ করেন লিটন। 

 
বাংলাদেশের সবচেয়ে প্রেরণা হতে পারে ২০১৫ সালে ঘরের মাঠে সিরিজ জয়। তারপর প্রায় ৭ বছর পেরিয়ে যাওয়ার পর আবার ওয়ানডে সিরিজ খেলতে এসেছে। ৩০টি ওয়ানডে খেলে ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের জয় মাত্র ৫টিতে। তার মধ্যে ৪টি দেশের মাটিতে। 

দারুণ একটা সিরিজ হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন ভারত অধিনায়ক রোহিত শর্মাও। ‘আমরা তাদের চেনা পরিবেশে খেলব। সব বিভাগেই তারা আমাদের চ্যালেঞ্জ জানাবে বলে প্রত্যাশা করি। তারা অনেক প্রতিদ্বন্দ্বীতাপূর্ণ দল, লড়াকু দল। এখানে জিততে হলে আমাদের সেরা খেলাটা নিংড়ে দিতে হবে।’
‘টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে একটি ক্লোজ ম্যাচ ছিল। ২০১৫ সালে এখানে সিরিজ হেরেছি। শেষ কয়েক বছর ধরে দল হিসেবে তারা খুব উন্নতি করেছে। আমাদের সেরা খেলাটা খেলতে হবে জয়ের জন্য। এটা আমাদের জন্য সহজ কিছু হবে না’ -আরও যোগ করেন রোহিত।


তামিম ছাড়াও ইনজুরিতে তাসকিন আহমেদ। দলের সেরা ওপেনারের সঙ্গে প্রধান পেসার তাসকিনের ইনজুরি স্বাগতিক শিবিরের জন্য একটু অস্বস্তিকর বটে। ভারতও হারিয়েছে প্রধান পেসার মোহাম্মদ শামিকে। বদলি হিসেবে স্কোয়াডে যুক্ত হলে নতুন পেস সেনসেশন উমরান মালিক। 


তাসকিনের পরিবর্তে বাংলাদেশ একাদশে ডুকতে পারেন ইবাদত হোসেন। আর তামিম না থাকায় একজন বাড়তি ব্যাটসম্যান খেলাবে। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ব্যর্থ ইয়াসির আলীকে যেখা যেতে পারে। বাংলাদেশ একাদশ সাজাতে পারে তিন পেসার ও দুই স্পিনার নিয়ে। টিপিক্যাল মিরপুরের উইকেট দেখা যেতে পারে আজ। আগে ব্যাটিং করা দল কিছুটা সুবিধা পেতে পারে। 

ঘরের সুবিধা কাজে লাগাতে পারবেনতো লিটনরা?

ঢাকা/রিয়াদ
 

ঢাকা/রিয়াদ

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়