ঢাকা     শনিবার   ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||  মাঘ ২১ ১৪২৯

সমতা ভাঙার নির্মম পরীক্ষায় হৃদয় ভাঙলো ব্রাজিলের

ক্রীড়া ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০১:২০, ১০ ডিসেম্বর ২০২২   আপডেট: ০১:২৭, ১০ ডিসেম্বর ২০২২
সমতা ভাঙার নির্মম পরীক্ষায় হৃদয় ভাঙলো ব্রাজিলের

হারের পর বিমর্ষ ব্রাজিল শিবির

ফুটবল কেবল আনন্দেই ভাসায় না, কাঁদায়ও। এই যেমন হেক্সা মিশনে আসা ব্রাজিল সমতা ভাঙার টাইব্রেকার নামক নির্মম ভাগ্য পরীক্ষার কাছে হেরে চোখের জলে বিদায় নিলো। তাদের সঙ্গে বিশ্বব্যাপী কোটি কোটি ভক্ত-সমর্থকদেরও চোখের জলে জোয়ার লাগলো।

অথচ ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে ফেভারিট ছিল তারাই। ম্যাচেও আক্রমণ, পাল্টা আক্রমণে তার ছাপ রেখেছিল। আক্রমণের দিক দিয়ে ক্রোয়েশিয়ার চেয়ে ঢের এগিয়ে ছিল। ম্যাচে সেলেসাঁওরা ২১টি শট নেয়। তার মধ্যে ১১টিই ছিল অন টার্গেটে। অন্যদিকে ভালো খেলে সমানে সমান লড়াই করা ক্রোয়েশিয়া শট নিয়েছিল ৯টি। তার মধ্যে অন টার্গেটে ছিল মাত্র ১টি!

গোলের খেলা ফুটবলে অবশ্য পরিসংখ্যান দিয়ে কাজ হয় না। এখানে ম্যাচ নির্ধারিত হয় গোলে। নির্ধারিত ৯০ মিনিটের লড়াইয়ে শুক্রবার রাতে অবশ্য গোল পায়নি ব্রাজিল-ক্রোয়েশিয়ার কেউ। তাতে ম্যাচ গড়ায় অতিরিক্ত সময়ে। অতিরিক্ত সময়ের যোগ করা সময়ে (১০৫+১) নেইমারের গোলে লিড নেয় পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। পরিকল্পিত আক্রমণে গোলটি পান নেইমার।

এ সময় নিজেদের অর্ধ থেকে আক্রমণে ওঠে ব্রাজিল। এরপর সতীর্থের কাছ থেকে বল পেয়ে ক্রোয়েশিয়ার ডি বক্সের কিছুটা সামনে গিয়ে বামদিকে লুকাস পাকুয়েতাকে বল বাড়িয়ে দেন নেইমার। এরপর দ্রুত ঢুকে পড়েন বক্সের মধ্যে। তাকে আবার বল দেন পাকুয়েতা। এবার বল নিয়ে সামনে আগান। তাকে আসতে দেখে ক্রোয়েশিয়ার গোলরক্ষক ডমিনিক লিভাকোভিচও সামনে এগিয়ে আসেন। নেইমার শট না নিয়ে তাকে পরাস্ত করে ডানদিকে এগিয়ে যান। এরপর কোনাকুনি শট নিয়ে জালে জড়ান বল। সমুদ্রের গর্জনের মতো উল্লাসে মেতে ওঠে এজুকেশন সিটি স্টেডিয়াম।

এই গোলের মধ্য দিয়ে নেইমার ছুঁয়ে ফেলেন কিংবদন্তি পেলেকে। পেলে জাতীয় দলের হয়ে ৭৭টি গোল করেছিলেন। নেইমারের গোলও এখন ৭৭।

তবে বেশিক্ষণ তারা এগিয়ে থাকতে পারেনি। অতিরিক্ত সময়ের শেষ মুহূর্তে রক্ষণভাগের ভুলে গোল হজম করে ব্রাজিল। এ সময় বামদিক থেকে আক্রমণে গিয়ে বক্সের মধ্যে ব্রুনো পেটকোভিচকে লক্ষ্য করে বল বাড়িয়ে দেন মিসলাভ ওরসিচ। বক্সের মধ্যে সেটা পেয়েই শট নেন পেটকোভিচ। অ্যালিসন ছাপিয়ে পড়ে চেষ্টা করেও রুখতে পারেননি। বল তার হাত ছুঁয়ে জালে জড়ায়। তাতে ম্যাচে ফেরে সমতা।

এই সমতা নিয়ে শেষ হয় অতিরিক্ত সময়। তাতে ম্যাচ গড়ায় টাইব্রেকার নামক ভাগ্য পরীক্ষায়। নির্মম এই পরীক্ষায় নিয়তির কাছে হেরে যায় ব্রাজিল। তাদের রিয়াল তারকা রদ্রিগোর নেওয়া প্রথম শটটি ডানদিকে ঝাপিয়ে পড়ে রুখে দেন ক্রোয়েশিয়ার গোলরক্ষক লিভাকোভিচ। এরপর কাসেমিরো ও পেদ্রো গোল করলেও মারকুইনহোসের নেওয়া চতুর্থ শটটি পোস্ট কাঁপিয়ে ফিরে আসে।

অন্যদিকে ক্রোয়েশিয়ার নিকোলা ভ্লাসিচ, লোভরো মাজের, লুক মদ্রিচ গোল এবং মিসলাভ ওরসিক গোল করেন শট থেকে। তাতে ৪-২ ব্যবধানে ব্রাজিলকে হারিয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মতো সেমিফাইনালে ওঠে ক্রোয়াটরা। আর টানা দ্বিতীয়বারের মতো কোয়ার্টার ফাইনাল থেকেই বিদায় নেয় তিতের শিষ্যরা।

সেমিফাইনালে ওঠার পাশাপাশি টাইব্রেকারে নতুন এক রেকর্ডও গড়েছে ক্রোয়েশিয়া। নিয়ে তারা টানা চার-চারবার বিশ্বকাপে পেনাল্টি শ্যুটআউট জিতলো।

আজ ব্রাজিলকে ৪-২ ব্যবধানে হারানোর আগে শেষ ষোলোতে জাপানকে টাইব্রেকারে হারিয়েছিল ৩-১ ব্যবধানে হারিয়েছিল তারা। তার আগে ২০১৮ বিশ্বকাপে শেষ ষোলোতে ডেনমার্ককে এবং কোয়ার্টার ফাইনালে রাশিয়াকে হারিয়েছিল টাইব্রেকারে। সবশেষ ২০১০ বিশ্বকাপে প্যারাগুয়ের কাছে টাইব্রেকারে হেরেছিল ক্রোয়েশিয়া।

অপর কোয়ার্টার ফাইনালে আর্জেন্টিনা ও নেদারল্যান্ডসের মধ্যকার জয়ী দলের বিপক্ষে সেমিফাইনাল খেলবে মদ্রিচ-লিভাকোভিচরা। এখন দেখার বিষয় সেমিফাইনালেও জিতে টানা দ্বিতীয়বারের মতো ফাইনালে উঠতে পারে কিনা তারা।

ঢাকা/আমিনুল

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়