ঢাকা     শনিবার   ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||  ফাল্গুন ১১ ১৪৩০

সংখ্যায় সংখ্যায় কোহলির সেঞ্চুরির ফিফটি ও অন্যান্য রেকর্ড

ক্রীড়া ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২২:৪৮, ১৫ নভেম্বর ২০২৩  
সংখ্যায় সংখ্যায় কোহলির সেঞ্চুরির ফিফটি ও অন্যান্য রেকর্ড

ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে নতুন এক চূড়ায় আরোহণ করেছেন বিরাট কোহলি। সবাইকে পেছনে ফেলে হয়ে যান সর্বোচ্চ সেঞ্চুরিয়ান। ছুঁয়ে ফেলেন সেঞ্চুরির ফিফটি। এ যাত্রায় বেশ কিছু রেকর্ড স্পর্শ করেন তিনি। তার পাশাপাশি নিউ জিল্যান্ড, রোহিত শর্মা, শ্রেয়াস আয়ার, টিম সাউদি বেশ কিছু কাঙ্খিত ও অনাকাঙ্খিত রেকর্ড গড়ে। চলুন সংখ্যায় সংখ্যায় সেগুলো দেখে নেওয়া যাক।

৫০ সেঞ্চুরি:
ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে সর্বোচ্চ সেঞ্চুরি। পেছনে ফেলেন শচীন টেন্ডুলকারের ৪৯ সেঞ্চুরির রেকর্ড।

৭১১ রান:
এবারের বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ ৭১১ রান করেন কোহলি। যা বিশ্বকাপের ইতিহাসে এক আসরে সর্বোচ্চ। এর আগে ২০০৩ বিশ্বকাপে শচীন সর্বোচ্চ ৬৭৩ রান করেছিলেন।

৮ ফিফটি:
এবারের বিশ্বকাপে ১০ ইনিংসে ৮টি পঞ্চাশোর্ধ্ব ইনিংস খেলেন কোহলি। যা বিশ্বকাপের ইতিহাসে এক আসরে সর্বোচ্চ। এর আগে শচীন ২০০৩ বিশ্বকাপে ও সাকিব আল হাসান ২০১৯ বিশ্বকাপে এক আসরে সর্বোচ্চ ৭টি পঞ্চাশোর্ধ্ব রানের ইনিংস খেলেছিলেন।

৫১ ছক্কা:
আজকের ম্যাচে কোহলির পাশাপাশি রোহিত শর্মাও একটি রেকর্ড গড়েন। বিশ্বকাপের মঞ্চে সর্বোচ্চ ৫১ ছক্কা হাঁকান তিনি। তার আগে ক্রিস গেইল বিশ্বকাপে ৪৯ ছক্কা হাঁকিয়েছিলেন। রোহিতের ৫১ ছক্কার ২৮টিই মেরেছেন এবারের আসরে।

১৪ পঞ্চাশোর্ধ্ব রানের জুটি:
রোহিত ও শুভমান গিল এ বছর ২১ ওয়ানডে ইনিংসে ১৪টি পঞ্চাশোর্ধ্ব রানের জুটি গড়েন। যা এক পঞ্জিকাবর্ষে সর্বোচ্চ।

৬৭ বলে সেঞ্চুরি:
শ্রেয়াস আয়ার আজ ৬৭ বলে সেঞ্চুরি হাঁকান। যা বিশ্বকাপের নকআউট পর্বের ম্যাচে দ্রুততম সেঞ্চুরি। এর আগে ২০০৭ বিশ্বকাপের ফাইনালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে অস্ট্রেলিয়ার অ্যাডাম গিলক্রিস্ট ৭২ বলে করেছিলেন সেঞ্চুরি।

৩৯৭/৪:
যা বিশ্বকাপের ইতিহাসে নকআউট পর্বের ম্যাচে সর্বোচ্চ। এর পারে ২০১৫ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ৩৯৩ রান করেছিল নিউ জিল্যানন্ড।

১৯ ছক্কা:
আজ ভারতের ইনিংসে মোট ১৯টি ছক্কার মার ছিল। যা ওয়ানডেতে ভারতের যৌথ সর্বোচ্চ। এর আগে ২০১৩ সালে বেঙ্গালুরুতে নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে হাঁকিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া।

আরও ১ বার নিউ জিল্যান্ড:
নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে ভারতের আগে একবারই কোনেনা দল এতো রান করেছিল। ২০১৫ সালে বিরমিংহ্যামে ইংল্যান্ড ৯ উইকেটে করেছিল ৪০৮ রান।

২ বার সাউদি:
আজ বল হাতে ১০ ওভারে ১০০ রান দেন টিম সাউদি। প্রথম কোনো পেসার হিসেবে এ নিয়ে দ্বিতীয়বার তিনি ১০ ওভারে শতাধিক রান দিলেন। ২০০৯ সালে ক্রাইস্টচার্চে ভারতের বিপক্ষে ১০৫ রান দিয়েছিলেন।

ঢাকা/আমিনুল

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়