ঢাকা, শুক্রবার, ১১ ফাল্গুন ১৪২৪, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮
Risingbd
অমর একুশে
সর্বশেষ:

কালি ও কলম পুরস্কার পেলেন ছয়জন

আরিফ সাওন : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৮-০১-৩০ ৯:৫৩:৪১ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০১-৩১ ৫:৪৪:১৯ পিএম
ছবি : শাহীন ভূইয়া

নিজস্ব প্রতিবেদক : কালি ও কলম তরুণ কবি ও লেখক পুরস্কার-২০১৭ পেয়েছেন ছয়জন।

মঙ্গলবার জাতীয় জাদুঘর মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানে তাদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়।

দশমবারের মতো সাহিত্য, শিল্প ও সংস্কৃতিবিষয়ক মাসিক পত্রিকা কালি ও কলম কবিতা, কথাসাহিত্য, প্রবন্ধ, গবেষণা ও নাটক, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক সাহিত্য এবং শিশুকিশোর সাহিত্য- এই পাঁচ ক্যাটাগরিতে এ পুরস্কার দেওয়া হয়েছে।

পুরস্কার হিসেবে চারজনকে ১ লাখ করে টাকা ও ক্রেস্ট এবং দুজনকে ৫০ হাজার করে টাকা ও ক্রেস্ট দেওয়া হয়েছে। কবিতা ক্যাটাগরিতে দুজন নির্বাচিত হওয়ায় তাদের পুরস্কারও ভাগাভাগি করে দেওয়া হয়েছে।



পুরস্কারপ্রাপ্তরা হলেন- কবিতায় যৌথভাবে ‘জুমজুয়াড়ি’ কাব্যগ্রন্থের জন্য মিজানুর রহমান বেলাল ও ‘নিশিন্দা পাতার ঘ্রাণ’ কাব্যগ্রন্থের জন্য হোসনে আরা জাহান। কথাসাহিত্য শাখায় ‘এই বেশ আতঙ্কে আছি’ গ্রন্থের জন্য পুরস্কার পেয়েছেন তাপস রায়। ‘নৃত্যকী’ রচনার জন্য প্রবন্ধ, গবেষণা ও নাটক শাখায় পুরস্কার পেয়েছেন নাট্যকার আলতাফ শাহনেওয়াজ। মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক সাহিত্য শাখায় ‘মুক্তিযুদ্ধের অজানা ভাষ্য’ গ্রন্থের জন্য পুরস্কার অর্জন করেছেন গবেষক মামুন সিদ্দিকী। শিশুকিশোর সাহিত্য শাখায় ‘হরিপদ ও গেলিয়েন’ গ্রন্থের জন্য পুরস্কার পেয়েছেন রাজীব হাসান।

বাংলাদেশের নবীন কবি-লেখকদের সাহিত্যচর্চা ও সাধনাকে গতিময় এবং তরুণদের সৃজনধারাকে সঞ্জীবিত করার লক্ষ্যে কালি ও কলম তরুণ লেখক কবি পুরস্কার দিয়ে আসছে। ১০ বছরে তারা ৩৯ জনকে পুরস্কৃত করেছে।

পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, কথাসাহিত্যিক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম, রবীন্দ্র গবেষক ড. মার্টিন, কালি ও কলমের প্রকাশক  আবুল হাসনাত প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম বলেন, এই পুরস্কারের মধ্য দিয়ে প্রকাশ পায় আমাদের শিল্পের, সাহিত্যের প্রতি অঙ্গীকার। বাংলাদেশের বাইরে ভারতেও আমাদের সাহিত্য ছড়িয়ে দিচ্ছে কালি ও কলম।



তিনি আরো বলেন, পুরস্কার আসলে আনন্দের। এর মাধ্যমে আমাদের দায়িত্ব বেড়ে যায়। বাড়ে পাঠকের চাহিদা। পুরস্কার লেখকের বইয়ের কাটতি বাড়াতেও সহযোগিতা করে।

ড. মার্টিন বলেন, আমি খুবই আনন্দিত আপনাদের এই অনুষ্ঠানে আসতে পেরে। অনেক পথ পাড়ি দিয়ে আমি এসেছি। মনে হচ্ছিল, আমি অন্য এক জগতে এসেছি। কিন্তু এখন আমি বুঝতে পারছি যে, আমি একই জগতে রয়ে গেছি।

তিনি বলেন, ঢাকা এব্ং কলকাতায় কালি ও কলমের প্রকাশ একটি বিশেষ গুণ।

অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে তাপস রায় তার সব শুভাকাঙ্ক্ষীদের ধন্যবাদ জানান এবং সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে।




রাইজিংবিডি/ঢাকা/৩০ জানুয়ারি ২০১৮/সাওন/রফিক

Walton
 
   
Marcel