Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     রোববার   ২৮ নভেম্বর ২০২১ ||  অগ্রহায়ণ ১৪ ১৪২৮ ||  ২১ রবিউস সানি ১৪৪৩

দৌলতদিয়ায় পারাপারের অপেক্ষায় শত শত যানবাহন

রাজবাড়ী প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১২:১২, ৮ অক্টোবর ২০২১   আপডেট: ১২:১৮, ৮ অক্টোবর ২০২১
দৌলতদিয়ায় পারাপারের অপেক্ষায় শত শত যানবাহন

ট্রাকের দীর্ঘ সারি। নিজস্ব ছবি

দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলার প্রবেশদ্বার খ্যাত রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে শত শত যানবাহন। নদীতে ড্রেজিংয়ের ফলে বিগত কয়েকদিন ধরে সৃষ্ট যানবাহনের জট এখনো কাটেনি। ফলে ভোগান্তিতে পড়েছেন দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথ ব্যবহার করা হাজার হাজার যাত্রী।

শুক্রবার (৮ অক্টোবর) সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, দৌলতদিয়া জিরো পয়েন্ট থেকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের প্রায় ৩ কিলোমিটার অংশ জুড়ে রয়েছে যাত্রীবাহী বাস, পচনশীল পণ্যবাহী ট্রাক, কাভার্ডভ্যান। এছাড়া দৌলতদিয়া থেকে ১৩.৫ কিলোমিটার দূরে জেলার গোয়ালন্দ মোড় এলাকায় ঢাকা-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কের প্রায় ৪ কিলোমিটার অংশ জুড়েও রয়েছে অপচনশীল পণ্যবাহী ট্রাক এবং কাভার্ডভ্যান। তবে যাত্রীবাহী বাস এবং পচনশীল পণ্যবাহী ট্রাকগুলো অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পারাপার করলেও ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে অপচনশীল পণ্যবাহী ট্রাক এবং কাভার্ডভ্যান চালকদের।

পটুয়াখালী থেকে আগত কাভার্ডভ্যান চালক মোতালেব খান বলেন, গত সন্ধ্যায় এখানে আসছি। সারারাত এমন খোলা আকাশের নিচে থাকতে হয়েছে। গাড়ি সারা রাতই একটু একটু করে আগাইছে। কিন্তু ২ মিনিট আগাইছি তো ২০ মিনিট বসে থাকতে হয়েছে।

ঝিনাইদাহ থেকে আসা ট্রাকচালক আফসার আলী বলেন, এই ঘাট ব্যবহারকারীদের মধ্যে সবচেয়ে দুর্ভোগ পোহাতে হয় ট্রাকচালকদের। আমাদেরকে দিনের পর দিন খোলা জায়গায় থাকতে হয়। আমাদের থাকা, খাওয়া, ঘুম, বিশ্রাম বা টয়লেটের কোনও সুযোগ সুবিধা নাই।

যশোর থেকে আসা কাভার্ডভ্যান চালক মোহন সরদার বলেন, গত রাত ৭টার দিকে এখানে আসছি। কিন্তু এখনো ফেরিতে উঠতে পারি নাই। সারারাত জেগে কাটিয়েছি। কারণ গাড়ি কখন টান দিতে হয়, তা বলা যায় না। আবার গাড়িতে ঘুমানোর জন্য পর্যাপ্ত জায়গাও নেই। আর এখানে তো ঘুমানো বা বিশ্রামের জন্য কোনও জায়গাও নেই।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপথ কর্পোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) দৌলতদিয়া ঘাট শাখার ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) শিহাব উদ্দিন জানান, যাত্রীবাহী যানবাহন পারাপার চলমান রয়েছে। সড়কে কিছু ট্রাক সিরিয়ালে আছে, যার চাপও দ্রুত কমে যাবে আশা করছি। দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া রুটে ছোট বড় মিলিয়ে ২০টি ফেরি চলাচল করছে। তবে ড্রেজিংয়ের কাজ চলায় ঘাট স্বল্পতা রয়েছে। যে কারণে দৌলতদিয়া প্রান্তে কিছুটা যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। কয়েকদিনের মধ্যেই পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে যাবে বলে আশা করি।

সুকান্ত/কেআই

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়