ঢাকা     মঙ্গলবার   ২৮ মে ২০২৪ ||  জ্যৈষ্ঠ ১৪ ১৪৩১

বিয়ের প্রলোভনে কিশোরীকে বাড়িতে এনে লাপাত্তা প্রেমিক

গাইবান্ধা সংবাদদাতা || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১১:৪১, ৩১ মার্চ ২০২৩   আপডেট: ১১:৪৯, ৩১ মার্চ ২০২৩
বিয়ের প্রলোভনে কিশোরীকে বাড়িতে এনে লাপাত্তা প্রেমিক

গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার এক কিশোরীর সঙ্গে চুটিয়ে প্রেম করছিলেন স্বপন মিয়া নামের এক কলেজছাত্র। এরই মধ্যে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে ওই কিশোরীকে নিজের বাড়িতে ডেকে আনেন তিনি। কিন্তু পরিবারের চাপের কারণে প্রেমিকাকে বাড়িতে রেখেই পালিয়ে যান স্বপন। তবে ওই কিশোরী প্রেমিকের বাড়ি ছাড়েননি। বিয়ের দাবিতে সেখানেই অবস্থান করছেন তিনি। 

শুক্রবার (৩১ মার্চ) সকাল পর্যন্ত উপজেলার বোনারপাড়া ইউনিয়নের মধ্য রাঘবপুর গ্রামের ছইরুদ্দিন মিয়ার ছেলে স্বপন মিয়ার বাড়িতে মেয়েটি রয়েছেন বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে। 

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, ওই কিশোরী নবম শ্রেণিতে পড়ালেখা করেন। গত বুধবার সন্ধ্যায় ব্রহ্মপুত্র নদের পাড়ে বান্নী মেলা থেকে বাড়ি ফিরছিলেন কিশোরী। সাঘাটা ডিগ্রি কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র স্বপন মিয়া প্রেমের সূত্রে ওই কিশোরীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে নিজ বাড়িতে নিয়ে আসেন। এরপর স্বপন মিয়া পরিবারের চাপে কিশোরীকে তার বাড়িতে ফিরে যেতে বলেন। কিন্তু কিশোরী বাড়িতে না গিয়ে স্বপনের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অবস্থান নেন। বৃহস্পতিবার সকালে বিষয়টি জানাজানি হলে স্বপন মিয়ার বাড়িতে উৎসুক মানুষের ভিড় জমায়। পরে স্বপন বাড়ি থেকে পালিয়ে যান।

স্বপনের বাড়িতে অবস্থান করা কিশোরী বলেন, ‘স্বপনের সঙ্গে আমার দেড় বছর প্রেমের সম্পর্ক। গতকাল বুধবার আমি মেলা থেকে বাড়ি ফেরার সময় বিয়ে করবে বলে সাঘাটার উল্লা বাজার থেকে স্বপন আমাকে তার বাড়িতে আনেন। বিয়ের বিষয়টি জেনে গেলে পরিবারের চাপে স্বপন আমাকে রেখে পালিয়ে যান। বিয়ে না হওয়া পর্যন্ত আমি এই বাড়ি ছাড়বো না।’ 

এ ব্যাপারে স্বপনের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাদের বক্তব্য পাওয়া যায়নি। 

বোনারপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নাছিরুল আলম স্বপন বলেন, ‘বিষয়টি শুনেছি। মেয়ের বয়স কম হওয়া পরিষদের পক্ষ থেকে ছেলে-মেয়েকে  বিয়ে দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। তাই মেয়ের পরিবারকে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।’ 

সাঘাটার বোনারপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ রাকিব হাসান বলেন, ‘ঘটনাটি লোকমুখে শুনেছি। তবে কোনো পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

সুদীপ্ত/ মাসুদ

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়