ঢাকা     শনিবার   ১৩ জুলাই ২০২৪ ||  আষাঢ় ২৯ ১৪৩১

বিএনপির বহিষ্কৃত নেতা শাহজাহান ওমর

প্রধানমন্ত্রীর আস্থাভাজন আমি, তোমাদের সাংবাদিকতায় কিছু আসে-যায় না

ঝালকাঠি প্রতিনিধি   || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৯:২৩, ২৮ ডিসেম্বর ২০২৩   আপডেট: ১৯:২৮, ২৮ ডিসেম্বর ২০২৩
প্রধানমন্ত্রীর আস্থাভাজন আমি, তোমাদের সাংবাদিকতায় কিছু আসে-যায় না

সাংবাদিকদের ‘সাংঘাতিক’ বলে বিদ্রূপ মন্তব্য করলেন বিএনপির বহিষ্কৃত নেতা ও দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে ঝালকাঠি-১ (রাজাপুর-কাঁঠালিয়া) আসনের নৌকার প্রার্থী শাহজাহান ওমর বীর উত্তম। এ সময় নিজেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আস্থাভাজন দাবি করেন এই নেতা।

বুধবার (২৭ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় রাজাপুর বাইপাস মোড়ে নৌকার প্রধান নির্বাচনি কার্যালয়ে কর্মী সমাবেশে তিনি এ মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, যে ভালবাসা রেখে একজন মুক্তিযোদ্ধাকে প্রধানমন্ত্রী সম্মান করেছেন, আমি তার এই আস্থাও ঋণ পরিশোধ করতে চাই।

আওয়ামী লীগ প্রার্থী শাহজাহান ওমর আরও বলেন, কেন্দ্রে নিজেরা ঝগড়াঝাঁটি, মারামারি করবেন না। নিজেরা নিজেরা ঝগড়াঝাঁটি কী? এতে রিপোর্ট হয়? এই দেখেন না, গত পরশুদিন স্কুলশিক্ষকদের সামনে আমি বক্তব্য দিলাম অথচ পেপারে উঠেছে আমি জোর করে শিক্ষকদের মিটিংয়ে থাকতে বাধ্য করেছি।

তিনি বলেন, এই যে সাংঘাতিক আছে না সাংবাদিক, এরা এতই সাংঘাতিক সত্যকে মিথ্যা, মিথ্যাকে সত্য বলে প্রচার করে। এখানে কি কোনও সাংবাদিক আছে? তোমরা তো আমার পেছনে লেগেই আছো। আমি যেহেতু প্রধানমন্ত্রীর আস্থাভাজন, তোমাদের সাংবাদিকতায় আমার কিছু আসে-যায় না।

এ সময় ঝালকাঠি জেলা আ.লীগের সহ সভাপতি অ্যাড. সঞ্জীব কুমার বিশ্বাস, রাজাপুর উপজেলা আ.লীগের সভাপতি অ্যাড. খায়রুল আলম সরফরাজ, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মিলন মাহমুদ বাচ্চুসহ আওয়ামী লীগের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, বিএনপির সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান শাহজাহান ওমর একসময় সরকারের আইন প্রতিমন্ত্রীও ছিলেন। গত ৪ নভেম্বর রাতে তাকে আটক করে পুলিশ। পরদিন ঢাকার নিউ মার্কেট থানার বাসে আগুন দেওয়ার একটি মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে তাকে আদালতে হাজির করা হয়। ওই মামলায় তিন দিন রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদও করা হয় তাকে। প্রায় চার সপ্তাহ কারাবন্দি থাকার পর জামিন পান শাহজাহান ওমর। কারামুক্ত হয়েই বিএনপি ছাড়েন তিনি। আওয়ামী লীগে যোগ দিয়ে শোরগোল ফেলে দেন। এরপর ঝালকাঠি-১ আসনে নৌকার প্রার্থীকে সরিয়ে তাকে মনোনয়ন দেয় আওয়ামী লীগ।

অলোক সাহা/এনএইচ

ঘটনাপ্রবাহ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়