ঢাকা     বুধবার   ২৪ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ১১ ১৪৩১

গোপালগঞ্জ-১  

মুকসুদপুরে নৌকা ও ঈগল প্রতীকের সমর্থকদের সংঘর্ষ, আহত ২০

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:৩৪, ২৯ ডিসেম্বর ২০২৩   আপডেট: ১৮:৩৭, ২৯ ডিসেম্বর ২০২৩
মুকসুদপুরে নৌকা ও ঈগল প্রতীকের সমর্থকদের সংঘর্ষ, আহত ২০

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে গোপালগঞ্জ-১ আসনের মুকসুদপুরে ‘নৌকা’ ও ‘ঈগল’ প্রতীকের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে নারীসহ অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় মোচনা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এমদাদ মোল্লাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়েছে পুলিশ।

এদিকে, স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. কাবির মিয়ার সমর্থক লাকিয়া বেগম নামের এক নারী মুকসুদপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

শুক্রবার (২৯ ডিসেম্বর) দুপুরে উপজেলার মোচনা ইউনিয়নের শুয়াশুর গ্রামে ঘটনাটি ঘটে। মুকসুদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আশরাফুল আলম ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান টুটুল সংঘর্ষের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আহতরা হলেন, রুবেল শেখ (৩৫), ফিরোজ শেখ (৬৫), বিপ্লব শেখ (৩০), শামিম শেখ (৩৫), রসুল শেখ (৩০),তানিয়া আক্তার (২২), কাদু শেখসহ (৫০) ২০ জন। আহতদের মুকসুদপুর ও ফরিদপুর হাসপাতালসহ বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, শুয়াশুর গ্রামে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মুহাম্মদ ফারুক খানের সমর্থক মোচনা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইমদাদ মোল্যা ও তার দুই ভাই মনির মোল্যা এবং এনামুল মোল্যার নেতৃত্বে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. কাবির মিয়ার সমর্থকদের ওপর হামলা হয়েছে বলে এলাকায় খবর ছড়িয়ে পড়ে। এসময় উভয় পক্ষের লোকজন দেশি অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। এতে উভয় পক্ষের  নারীসহ অন্তত ২০ জন আহত হন। এসময় ৩টি দোকান ও রাজ্জাক শেখ, মারুফ শেখ, নওসার শেখ, রবিউল শেখেরসহ অন্তত ৮ বাড়িঘর ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটে।

মুকসুদপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান টুটুল বলেন, ‘আমি ঘটনাস্থলে ছিলাম না। মুঠোফোনে জানতে পেরেছি আজ শুয়াশুর গ্রামে নৌকা সমর্থক ও ঈগলের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে উভয় পক্ষের লোকজন আহত হয়েছেন।

মুকসুদপুর থানার ওসি আশরাফুল আলম জানান, নৌকা ও ঈগলের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মোচনা ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান মো. ইমদাদ মোল্লাকে থানায় আনা হয়েছে। অভিযোগ পাওয়া গেছে। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বাদল/মাসুদ

ঘটনাপ্রবাহ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়