RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     রোববার   ১৭ জানুয়ারি ২০২১ ||  মাঘ ৩ ১৪২৭ ||  ০২ জমাদিউস সানি ১৪৪২

কিডনি কেটে লাপাত্তা চিকিৎসক, অভিযানে পুলিশ

প্রকাশিত: ১৫:৫৬, ২৮ নভেম্বর ২০২০   আপডেট: ০৬:৪৬, ২৯ নভেম্বর ২০২০
কিডনি কেটে লাপাত্তা চিকিৎসক, অভিযানে পুলিশ

চিকিৎসকের নির্মমতায় জীবনযুদ্ধে হেরে গেছেন চলচ্চিত্র নির্মাতা রফিক শিকদারের মা রওশন আরা। ২০১৮ সালে তিনি মারা যান। চিকিৎসকের অবহেলার কারণে মায়ের মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ করে সেই নির্মাতা সে সময় ফেসবুক পোস্টে লিখেছিলেন: ‘পাষাণ ডাক্তারের নির্মমতার কাছে জীবনযুদ্ধে হেরে গেছেন আমার মা। আমাদের ছয় ভাই বোনকে বিচারহীনতার নরকে ফেলে রেখে অভিমানে এইমাত্র ওপারে চলে গেলেন আমার মা।’

রফিক শিকদারের অভিযোগ- স্বাভাবিক কিডনি ভুল করে অপসারণ করে তার মাকে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের (বিএসএমএমইউ) ৪ চিকিৎসক। ২০১৮ সাল থেকে এই অভিযোগ তিনি করলেও সম্প্রতি মামলা নিয়েছে পুলিশ। গত ২৭ নভেম্বর রাজধানীর শাহবাগ থানায় এ বিষয়ে  হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত মামলায় কেউ গ্রেপ্তার হয়নি বলে রাইজিংবিডিকে জানিয়েছেন রফিক শিকদার।

রফিক শিকদার বলেন, ‘আমার মাকে হত্যা করা হয়েছে। ন্যায়বিচারের জন্য মামলা করেছি। ওসি সাহেব বলছেন তিনি আসামিদের ধরতে চেষ্টা করছেন। অথচ আসামিদের মোবাইল নাম্বার খোলা রয়েছে বলেও আমি জেনেছি।’

এদিকে রমনা বিভাগের, রমনা জোনের দায়িত্বে থাকা অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) হারুন-অর-রশীদ জানান,  মামলায় এখনো কাউকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি। তবে আসামিদের গ্রেপ্তারের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

মামলার আসামিরা হলেন, হাসপাতালের ইউরোলজি বিভাগের অধ্যাপক ডা. মো. হাবিবুর রহমান দুলাল (৫৫), একই বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মো. ফারুক হোসেন (৪৮), চিকিৎসক মো. মোস্তফা কামাল (৪৬) এবং চিকিৎসক আল মামুন (৩৩)। এছাড়া অজ্ঞাত আরও ৩-৪ জনকে আসামি করা হয়েছে।

** ‘পাষাণ ডাক্তারের নির্মমতার কাছে জীবনযুদ্ধে হেরে গেছেন মা'

ঢাকা/রাহাত সাইফুল

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়