ঢাকা, বুধবার, ২৫ চৈত্র ১৪২৬, ০৮ এপ্রিল ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

‘বাংলা ভাষাটা মিষ্টি, খুব সুন্দর!’

আমিনুল ইসলাম শান্ত : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০২-২১ ৮:০৭:০৪ এএম     ||     আপডেট: ২০২০-০২-২১ ১:১৫:৫০ পিএম

‘‘বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সময় হিন্দি ভাষা পড়তাম। তখন বাংলা ভাষার কোনো কোর্স আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে ছিল না। এটা প্রথম বর্ষের কথা। সালটা বোধহয় ২০০১। এ সময় বাংলা ভাষার কোর্স চালু করার জন্য কিছু ছেলেমেয়ে স্বাক্ষর নিতে আসে। তারা নতুন একটা কোর্স চায়। বাংলা ভাষা কেমন তখন আমি কিছুই জানতাম না। ওই সময় প্রথমবার বাংলা শব্দ শুনি। কয়েক বছর পর বিশ্ববিদ্যালয়ে তিন মাস মেয়াদি একটি সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। ওখানে উর্দু, বাংলা, তিব্বতি এই তিনটি ভাষা ছিল, পছন্দমতো যেকোনো একটি ভাষা নিতে হবে। উর্দু-হিন্দি প্রায় এক। আর তিব্বতি আমার পছন্দ ছিল না। তারপর ভাবলাম আমি বাংলা ভাষা পড়ব। কিন্তু তিন মাসে আর কি শেখা যায়! বর্ণমালা আর ‘আমি ভালো আছি’, ‘তোমার দেশ কোথায়?’। এ পর্যন্তই তখন শিখেছিলাম।’’— রাইজিংবিডির সঙ্গে আলাপকালে কথাগুলো বলেন ইতালিয়ান নাগরিক আন্না কোক্কিযরেল্লা।

ইতালির বেনেবেন্ত গ্রামে জন্ম আন্না কোক্কিযরেল্লার। বেড়ে উঠেছেন সেখানেই। পরবর্তী সময়ে উচ্চশিক্ষার জন্য পাড়ি জমান ইতালির রাজধানী শহর রোমে। লা সাপিয়েনসা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ওরিয়েন্টাল ল্যাংগুয়েজ সিভিলাইজেশন বিষয়ে স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেন। বাংলাদেশের সঙ্গে তার দীর্ঘ দিনের সম্পর্ক। ভালোবেসে নিজের ভেতর ধারণ করেছেন বাংলা ভাষা। ইতিহাস তাকে গভীরভাবে টানে। ইতিহাসের টান আর বাংলা ভাষাকে ভালোবেসে ইতালিয়ান ভাষায় অনুবাদ করেছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ বইটি।

নিজের দেশে থাকতেই বাংলা ভাষার সঙ্গে প্রথম পরিচয় আন্না কোক্কিযরেল্লার। কিন্তু বাংলাদেশে এলেন কী করে? জবাবে তিনি বলেন, ‘আমি একবার ভারতে আসি। তখন বাংলাদেশি এক বন্ধু বলল, ভারত-বাংলাদেশ পাশাপাশি রাষ্ট্র, তাহলে বাংলাদেশ ঘুরে যাও। এরপর বাংলাদেশ হয়ে দিল্লি গিয়েছিলাম। যেদিন বাংলাদেশে পৌঁছাই সেদিন ২১ ফেব্রুয়ারি ছিল। এটা অপ্রত্যাশিতভাবে ঘটেছিল। সালটা ২০০৩। এসে আতিথেয়তা যেমন দেখলাম, তেমনি কিছু বিরক্তির কাজও দেখলাম। আগে আমি শিখেছিলাম—আমি খেয়েছি, আমি শিখেছি ইত্যাদি। কিন্তু বাংলাদেশে এসে শুনি, আমি খাইছি, আমি শিখছি। আমি তো অবাক! ভাবলাম ভুলটা কোথায়? তবে কি আমি ভুল শিখেছি? যাই হোক, এরপর আমি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাষা ইনস্টিটিউটে যাই বাংলা ভাষা শেখার জন্য।’

বাংলা ভাষা শেখার কারণ ব্যাখ্যা করে আন্না বলেন, ‘প্রথমবার বাংলাদেশে আসার পর ভাষা আন্দোলন নিয়ে পড়াশোনা করেছিলাম। ওখান থেকে জানতে পারি এই বাংলা ভাষার জন্য ১৯৫২ সালে অনেকে সংগ্রাম করেছেন, জীবন দিয়েছেন। তারপরই ভাবি, এই ভাষা শেখা উচিৎ, এই ভাষা অবশ্যই আমাকে জানতে হবে এবং সিদ্ধান্ত নিই, আমি এটা শিখবই। বাংলা ভাষাটা মিষ্টি, খুব সুন্দর!  আমি ইতিহাসের স্টুডেন্ট। ইতিহাস পছন্দ করি। তাই এটা আমার কাছে ছোট বিষয় না।’


ঢাকা/শান্ত/তারা