Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     বুধবার   ২০ অক্টোবর ২০২১ ||  কার্তিক ৪ ১৪২৮ ||  ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

ইরান অর্থ পায় প্রথমবার স্বীকার করলো ব্রিটেন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১০:২১, ৬ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১০:২৪, ৬ সেপ্টেম্বর ২০২০
ইরান অর্থ পায় প্রথমবার স্বীকার করলো ব্রিটেন

ব্রিটেনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী বেন ওয়ালেস

কয়েক দশকের পুরোনা অস্ত্র চুক্তিতে ইরান বিপুল অংকের অর্থ পায় বলে প্রথমবার স্বীকার করলো ব্রিটেন। ব্রিটিশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী বেন ওয়ালেস একটি চিঠিতে এই স্বীকারোক্তি দিয়েছেন, যা পৌঁছেছে সংবাদপত্র দ্য গার্ডিয়ানের কাছে।

এই অর্থ ফেরত দিতে আইনি পথ খুঁজে বের করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ওয়ালেস। ইসলামী বিপ্লবের আগে ইরানের শেষ ও ক্ষমতাচ্যুত রাজা মোহাম্মদ রেজা পাহলভী ব্রিটেনের কাছে কিছু ট্যাংকের অর্ডার করেছিলেন, যার অর্থমূল্য ৪০ কোটি পাউন্ড।

১৯৭১ সালে ব্রিটিশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধিভুক্ত ইন্টারন্যাশনাল মিলিটারি সার্ভিসের সঙ্গে সঙ্গে এক হাজার ৭৫০টিরও বেশি চিফটেইন ট্যাক ও সাঁজোয়া যান কেনার চুক্তি হয়েছিল ইরানের। কিন্তু ১৯৭৯ সালে ইসলামিক প্রজাতন্ত্র প্রতিষ্ঠার পর ওই চুক্তি বাতিল হয়ে যায়। এর আগেই ইরান খরচ দিয়ে দিয়েছিল, তবে ট্যাংকগুলো তাদের কাছে হস্তান্তর করেনি ব্রিটেন।

তবে ব্রিটেন এতদিন ধরে ইরানের ওই অর্থ পাওনার দাবি প্রত্যাখ্যান করে আসছিল। ২০০৮ সালে আন্তর্জাতিক আদালত রায় দিলেও তা দিতে অস্বীকৃতি জানায় লন্ডন। অবশেষে স্বীকারোক্তি দিলো দেশটি, ওয়ালেস লিখেছেন, ‘আইএমএস লিমিটেড ও বকেয়া বিবাদ আইন অনুযায়ী সরকার স্বীকার করছে যে ঋণ পরিশোধ করতে হবে এবং এই পাওনা মেটাতে আইনি পথ খুঁজে বের করা হচ্ছে।’

ইরানের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের অবৈধ নিষেধাজ্ঞা আরোপের দোহাই দিয়ে বারবার এই পাওনা পরিশোধে গড়িমসি করেছে ব্রিটেন। গত মার্চে ব্রিটেনের ইরানি রাষ্ট্রদূত হামিদ বায়েদিনেজাদ ঘোষণা দেন সুদসহ তেহরানকে পাওনা মেটাতে রাজি হয়েছে লন্ডন। কীভাবে তা পরিশোধ করা যায় সেটা নিয়ে আলোচনাও শুরু করতে যাচ্ছে দুই দেশ। আগামী ৪ নভেম্বর এ নিয়ে আদালতে স্থগিত শুনানি হওয়ার কথা।

ঢাকা/ফাহিম

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়