ঢাকা     সোমবার   ০৪ মার্চ ২০২৪ ||  ফাল্গুন ২০ ১৪৩০

সেরা ৩ ই-বাইক

মটো কর্নার ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২১:০৪, ২৬ নভেম্বর ২০২৩   আপডেট: ১১:৪০, ৩ ডিসেম্বর ২০২৩
সেরা ৩ ই-বাইক

ইদানিং সারাবিশ্বেই জনপ্রিয় হচ্ছে ই-বাইক। পরিবেশবান্ধব হওয়ায় অনেক দেশই ই-বাইক উৎপাদন ও ব্যবহারে জোর দিচ্ছে। মোটরযান বিষয়ক সাময়িকী টপ স্পিড ডটকম চলতি বছর সেরা ই-বাইকের তালিকা প্রকাশ করেছে। রাইজিং বিডির পাঠকদের জন্য আমরা সেখান থেকে তিনটি ই-বাইককে হাজির করছি।

সিট মো ১২৫

ইলেকট্রিক স্কুটার প্রস্তুতকারক সাইলেন্সের সাথে অংশীদারিত্বে স্পেনের সুপরিচিত গাড়ি ব্র্যান্ড সিট (SEAT) তৈরি করেছে সিট মো ১২৫। ব্র্যান্ডটি শহুরে গতিশীলতার উপর ফোকাস করতে চায়।

আমাদের তালিকায় প্রথম অবস্থানে রয়েছে সিট মটো ১২৫ স্কুটারটি। ১২৫ সিসির স্কুটারটিতে শক্তিশালী ১১ হাজার ওয়াট ইন-হুইল বৈদ্যুতিক মোটর রয়েছে যা ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ১০৫ কিলোমিটার গতি প্রদান করে। এটি সর্বোচ্চ ১২ বিএইচপি এবং ২৪০ এনএম টর্ক উৎপাদন করে। স্কুটারটি মাত্র ৩ দশমিক ৮ সেকেন্ডের মধ্যে শূন্য থেকে ৫০ কিলোমিটার গতি তুলতে পারে। এর ইঞ্জিনটি ব্রাশলেস ইলেকট্রিক মোটর সেভেন পয়েন্ট ফাইভ। বাইকটিতে তিনটি ড্রাইভিং মোড রয়েছে-ইকো, সিটি ও স্পোটর্স। এতে সামনেহাইড্রোলিক ব্রেক এবং সঙ্গে রয়েছে সিবিএস সিস্টেম। বাইকটিতে রিভার্স গিয়ারও রয়েছে।

স্কুটারটিতে একটি শক্তিশালী অপসারণযোগ্য লিথিয়াম ব্যাটারি রয়েছে। ব্যাটারিতে একটি ট্রলি সিস্টেম রয়েছে যা ব্যাটারি পরিবহন করা সহজ করে তোলে। স্কুটারটিতে একটি ব্যাটারি ব্যালেন্সিং সিস্টেম (BBS) রয়েছে যা ব্যাটারির স্থায়িত্ব নিশ্চিত করে। ব্যাটারির সঙ্গে ৬০০ ওয়াটের চার্জার যুক্ত রয়েছে যা ৩০০ মিনিট এ ব্যাটারি চার্জ করতে সক্ষম করে।

বাইকটির দাম শুনলে অবশ্য আপনি টাশকি খেয়ে যেতে পারেন। পাঁচ হাজার ৯৯০ ইউরো।

এস জিরো ওয়ান প্লাস

তালিকায় দ্বিতীয় নম্বরে থাকা S01 প্লাস  স্কুটারটিরও উৎপাদনকারী দেশ স্পেন। বাইকটি দিয়ে সহজেই ডেলিভারি ও কুরিয়ার পরিষেবা দেওয়া যাবে। 

স্কুটারটিতে একটি শক্তিশালী ৯ হাজার ওয়াটের ইন-হুইল বৈদ্যুতিক মোটর রয়েছে। এতে পুশ টু পাস মোড দেওয়া হয়েছে, যেখানে রাইডার টপ স্পিড পাবেন ঘণ্টায় ১০০ কিলোমিটার। স্কুটারটি ৩ দশমিক ৯ সেকেন্ডে শূন্য থেকে ৫০ কিলোমিটার গতি তুলতে পারে। স্কুটারটিতে একটি শক্তিশালী অপসারণযোগ্য ৫ কিলোওয়াট লিথিয়াম ব্যাটারি রয়েছে। ব্যাটারিতে একটি ট্রলি সিস্টেম রয়েছে, যা ব্যাটারি পরিবহন করা সহজ করে তোলে। স্কুটারটিতে একটি ব্যাটারি ব্যালেন্সিং সিস্টেম (BBS) রয়েছে যা ব্যাটারির স্থায়িত্ব নিশ্চিত করে।

ব্যাটারিতে বিল্ট ইন ৬০০ ওয়াট চার্জার রয়েছে যা ৬ থেকে ৮ ঘণ্টায় ব্যাটারি চার্জ করতে সক্ষম। বাইকটিতে রয়েছে ডিস্ক ও সিবিএস ব্রেক। ব্যাটারি ছাড়া এর ওজন ১১১ কেজি। অ্যাডজাস্টেবল সাসপেনশন। WMTC এর মান অনুযায়ী এর রেঞ্জ প্রায় ১৩৭ কিলোমিটার, অর্থাৎ এক চার্জে এটি চালানো যাবে ১৩৭ কিলোমিটার। চালকের আসনের নিচে রয়েছে প্রচুর জায়গা, যেখানে অনায়সে দুটি হেলমেট ও আনুসাঙ্গিক জিনিসপত্র রাখা যাবে।

স্কুটারটিতে ৭ দশমিক ৫ কিলোওয়াটের হাই ক্যাপাসিটির মোটর রয়েছে, যা সর্বোচ্চ ১২ দশমিক ২৩ পিএস পাওয়ার জেনারেট করে। এছাড়াও এতে ইকো, সিটি, স্পোর্ট এবং রিভার্স গিয়ার রাইড মোড দেওয়া হয়েছে। স্কুটারটির দাম ধরা হয়েছে ৭ হাজার ৫৮ ডলার।

ইয়ামাহা নিও

তালিকায় তৃতীয় নম্বরে রয়েছে অত্যন্ত আকর্ষণীয় লুকের ইয়ামাহা নিও। এতে রয়েছে রিমুভেবল ব্যাটারি। 

ইয়ামাহা নিও ইলেকট্রিক স্কুটারের পাওয়ারের দিকটি নিশ্চিত করছে একটি ডিসি মোটর, যা স্ট্যান্ডার্ড মোডে ২ দশমিক ০৩ কিলোওয়াট পাওয়ার জেনারেট করতে পারে। স্কুটারটিতে রয়েছে দুটি ড্রাইভিং মোড - স্ট্যান্ডার্ড ও  ইকো। এটি ইকো মোড অন করে রাখলে তা ১ দশমিক ৫৩ কিলোওয়াট পাওয়ার জেনারেট করতে পারে। স্ট্যান্ডার্ড মোডে ইয়ামাহা নিও-র সর্বোচ্চ স্পিড ঘণ্টায় ৪০ কিলোমিটার। ইকো মোডে এই স্কুটারটি প্রতি ঘণ্টায় সর্বাধিক ৩৫ কিলোমিটার স্পিড দিতে সক্ষম।

৫০ দশমিক ৪ ভি লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে স্কুটারটিতে। বাড়িতে সম্পূর্ণ চার্জ হতে ইয়ামাহা নিও সময় নেবে ৮ ঘণ্টা। আবার অতিরিক্ত রেঞ্জ পেতে চালকরা দুটি ব্যাটারি ব্যবহার করতে পারবেন। একটির চার্জ শেষ হলে কাজে লাগাতে পারবেন অপরটি। ব্যাটারি দিয়ে এই স্কুটার থেকে ৭০ কিলোমিটার রেঞ্জ পেতে পারেন। 

স্কুটারের দুই চাকাতেই মিলবে ডিস্ক ব্রেক সঙ্গে টেলিস্কপিক ফ্রন্ট ফর্ক এবং রিয়ার মনোশক সাসপেনশন। বাইকটির দাম ধরা হয়েছে ৩ হাজার ৭৪৩ ডলার।

ঢাকা/শাহেদ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়