ঢাকা, সোমবার, ১১ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

প্রথম দিন শেষে ভালো অবস্থানে ওয়ালটন

ক্রীড়া প্রতিবেদক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০২-১৪ ৯:৪০:৪১ এএম     ||     আপডেট: ২০২০-০২-১৪ ৫:০৮:২৮ পিএম
ছবি : মিলটন আহমেদ

কক্সবাজারে বিসিএলের শেষ রাউন্ডের ম্যাচে সাউথ জোনের বিপক্ষে প্রথম দিন শেষে এগিয়ে আছে ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোন। সকাল সাড়ে নয়টায় কক্সবাজারের শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের একাডেমি মাঠে ওয়ালটন ও সাউথ জোনের ম্যাচটি শুরু হয়। টস জিতে ব্যাট করতে নেমে মার্শাল আইয়্যুবের ১১৬ ও মুস্তাফিজুর রহমানের অপরাজিত ৩০ রানের ইনিংসে ভর করে ২৩৫ রানে অলআউট হয় ওয়ালটন। জবাবে প্রথম ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নামলে ওয়ালটনের খেলোয়াড়রা সাউথ জোনের দুই উইকেট তুলে নেয়।

সংক্ষিপ্ত স্কোর :

প্রথম দিন শেষে

ওয়ালটন : ২৩৫/১০ (৮২.২ ওভারে)।

সাউথ জোন : ২৯/২ (৯ ওভার)।

বিসিএলের শেষ রাউন্ডের ম্যাচে জয়ের খোঁজে কক্সবাজারে মাঠে নেমেছে ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোন। টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি ওয়ালটনের। তবে মার্শালের শতকের পাশাপাশি মুস্তাফিজ ঝড়ে ২৩৫ রানের সংগ্রহ পায় ওয়ালটন। শেষ বিকালে মাত্র ৯ ওভার বোলিং করে সাউথ জোনের দুই ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে ভালো অবস্থানে আছে ওয়ালটন। ২১ রানের মধ্যে ওপেনার শাহরিয়ার নাফিস ও ইরফান শুক্কুরের উইকেট তুলে নেয় দ্বিতীয় রাউন্ডে জয় তুলে নেয়া ওয়ালটন। দিন শেষে সাউথ জোনের সংগ্রহ ২৯/২। ওয়ালটন থেকে এখনো ২০৬ রানে পিছিয়ে আছে দলটি। 

দ্বিতীয় উইকেট তুলে নিলো ওয়ালটন : সপ্তম ওভারের মাথায় সাউথ জোনের দ্বিতীয় উইকেট তুলে নেয় ওয়ালটন। তিনে ব্যাটিং করতে নামা ইরফান শুক্কুরকে (৩) রান আউটের কাঁটায় ফেরান ওয়ালটনের নাজমুল হোসেন শান্ত। দলীয় রান তখন ২১।

শুরুতে ওয়ালটনের আঘাত : ওয়ালটনের ২৩৫ রানের জবাবে প্রথম দিনের শেষ বিকালে ব্যাটিংয়ে নামে সাউথ জোন। ব্যাটিংয়ে নেমে তৃতীয় ওভারে বাঁহাতি ওপেনার শাহরিয়ার নাফিসের উইকেট হারায় সাউথ জোন। ওয়ালটনের ডান হাতি পেসার ইরফান হোসেনের বলে ১০ রান করে মাঠ ছাড়েন শাহরিয়ার। 

২৩৫ রানে অলআউট ওয়ালটন : বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের শেষ রাউন্ডের প্রথম দিনেই ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোন তাদের প্রথম ইনিংসে ২৩৫ রানে অলআউট হয়েছে। প্রথম সেশনে তারা ৩টি উইকেট হারায়। দ্বিতীয় সেশনে হারায় ৪টি। আর তৃতীয় সেশন শেষ হওয়ার আগেই (৮২.৩ ওভারে) অলআউট হয়ে যায় দুইবারের চ্যাম্পিয়ন দলটি। ব্যাট হাতে ওয়ালটনের মার্শাল আইয়্যুব সর্বোচ্চ ১১৬ রান করেছেন। ১ চার ও ৪ ছক্কায় দ্বিতীয় সর্বোচ্চ অপরাজিত ৩০ রান করেছেন মুস্তাফিজুর রহমান। যা তার ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস। ২১ রান করেছেন জাবিত হোসেন।

বল হাতে বিসিবি সাউথ জোনের মাহেদী হাসান ৩টি উইকেট নিয়েছেন। ২টি করে উইকেট নিয়েছেন নাসুম আহমেদ, শফিউল ইসলাম ও আব্দুর রাজ্জাক।  

ফিরলেন মার্শাল, লড়ছেন মুস্তাফিজ : একপ্রান্ত আগলে লড়াই করা মার্শাল আইয়্যুবকে ফিরিয়েছেন মাহেদী হাসান। ১২ চার ও ২ ছক্কায় ১১৬ রান করে আউট হয়েছেন। তিনি আউট হওয়ার পর মুস্তাফিজ লড়াই করছেন। ইতিমধ্যে তিনি ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস খেলে ফেলেছেন ১ চার ও ৪ ছক্কায়।

অষ্টম উইকেটের পতন : চা বিরতি থেকে ফিরে আরাফাত সানীর উইকেট হারিয়েছে ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোন। দলীয় ১৬৯ রানের মাথায় নাসুম আহমেদের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হন সানী। ৩৮ বল খেলে ১১ রান করে যান তিনি। তবে একপ্রান্ত আগলে এখনো লড়ে যাচ্ছেন মার্শাল আইয়্যুব। তিনি ৯ চার ও ২ ছক্কায় ৯৪ রানে অপরাজিত আছেন। 

চা বিরতি পর্যন্ত ওয়ালটন ১৫৯/৭ : প্রথম সেশনে ৩ উইকেট হারানোর পর দ্বিতীয় সেশনে আরো ৪টি উইকেট হারিয়েছে ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোন। আসা-যাওয়ার মিছিলে একপ্রান্ত আগলে লড়ছেন মার্শাল আইয়্যুব। চা বিরতি পর্যন্ত তিনি ১৩৫ বল মোকাবেলা করে ৮ চার ও ১ ছক্কায় ৭৭ রান নিয়ে অপরাজিত আছেন। তার এই ইনিংসে ভর করে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৫৯ রান তুলে চা বিরতিতে গিয়েছে টিম ওয়ালটন। 

সপ্তম উইকেটের পতন : মার্শাল আইয়্যুবের সঙ্গে সপ্তম উইকেটে ৩৯ রানের ‍জুটি গড়েন জাবিত হোসেন। তবে আর বেশিদূর এগোতে পারেননি। দলীয় ১৩৬ রানের মাথায় মাহেদী হাসানের বলে এলবিডব্লিউ হয়ে ফিরে যান জাবিত। ৩৯ বল খেলে ৩ চারে ২১ রান করে যান তিনি। মার্শাল আইয়্যুব ৬১ রান নিয়ে অপরাজিত আছেন।

মার্শাল আইয়্যুবের হাফ সেঞ্চুরি : আসা-যাওয়ার মিছিলে ব্যতিক্রম হয়ে দাঁড়িয়েছেন ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোনের ব্যাটসম্যান মার্শাল আইয়ুব। টপ ও মিডল অর্ডার যখন তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ছে তখন তিনি দাঁড়িয়ে যান একপ্রান্তে। মাথা ঠাণ্ডা রেখে লড়াই করতে থাকেন সাউথ জোনের বোলারদের বিপক্ষে। ইতিমধ্যে তিনি হাফ সেঞ্চুরিও তুলে নিয়েছেন। ৭৫ বল খেলে ৬ চারে ফিফটি পূর্ণ করেন তিনি। তার ফিফটিতে ভর করে শতরান পেরিয়েছে ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোন। 

৯৭ রানেই ৬ উইকেট নেই ওয়ালটনের : দলীয় সংগ্রহ শতরান না পেরুতেই ৬ উইকেট হারিয়ে বসেছে ওয়ালটন। বিরতির পর পরই ফিরেন রকিবুল হাসান। এরপর শুভাগত হোম চৌধুরী ও মার্শাল আইয়্যুব ৩১ রানের জুটি গড়ের পঞ্চম উইকেটে। দলীয় ৮৪ রানের মাথায় শুভাগতকে ফিরিয়ে এই জুটি ভাঙেন শফিউল ইসলাম। ১৪ রান করে শফিউলের বলে বোল্ড হন সেন্ট্রাল জোনের অধিনায়ক। এরপর ৯৭ রানে নাসুম আহমেদের বলে উইকেটের পেছনে নুরুল হাসান সোহানের হাতে ক্যাচ দিয়ে আউট হন মেহেদী হাসান মিরাজ। তিনি অবশ্য রানের খাতা খুলতে পারেননি। 

চতুর্থ উইকেটের পতন : ৩ উইকেট হারিয়ে ৫৩ রান তুলে মধ্যাহ্ন বিরতিতে যায় ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোন। ফিরে এসেই অভিজ্ঞ রকিবুল হাসানের উইকেটটি হারায়। দলীয় ৫৩ রানের মাথায় মাহেদী হাসানের বলে এলবিডব্লিউ হয়ে ফিরেন রকিবুল। ৭৫ বল খেলে ১টি চারের সাহায্যে ১১ রান করে যান তিনি।

তৃতীয় উইকেট হারাল ওয়ালটন : বিসিএলের তৃতীয় রাউন্ডের প্রথম দিনের প্রথম সেশনটি নিজেদের করে নিয়েছে বিসিবি সাউথ জোন। ৩১ ওভার বল করে ৫৩ রান দিয়ে তারা তুলে নিয়েছে ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোনের টপ অর্ডারের তিনজন ব্যাটসম্যানকে। শুরুতেই সাজঘরে ফেরেন সাইফ হাসান ও নাজমুল হোসেন শান্ত। এরপর থিতু হওয়া আব্দুল মজিদকে ফেরান সাউথ জোনের আব্দুর রাজ্জাক। দলীয় ৩৭ রানের মাথায় রাজ্জাকের বলে শাহরিয়ার নাফীসের হাতে ক্যাচ দিয়ে আউট হন মজিদ। ৬৪ বল খেলে ১ চারে ১৪ রান করে যান তিনি।

ফিরলেন শান্তও : সাইফ হাসান ও নাজমুল হোসেন শান্ত। পাকিস্তান সফরে খেলেছিলেন টেস্ট। শান্ত ভালো খেললেও সাইফ তার অভিষেকে সুবিধা করতে পারেননি। সেই বাজে ফর্ম তিনি টেনে এনেছেন ঘরোয়া ক্রিকেটেও। বিসিএলে আউট হয়েছেন ১ রান করে। সাইফ ফেরার কিছুক্ষণ পর ফিরেন শান্তও। ৭.৫ ওভারের মাথায় ফরহাদ রেজার বলে শাহরিয়ার নাফীসের হাতে ক্যাচ দিয়ে আউট হন তিনি। ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোনের দলীয় রান তখন সেই আনলাকি থার্টিন। যে রানে আউট হয়েছেন সাইফও!

শুরুতেই ফিরলেন সাইফ : ইনিংসের ১৫তম বলেই সাজঘরে ফিরেছেন ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোনের সাইফ হাসান। দলীয় ৪ রানের মাথায় শফিউল ইসলামের বলে মেহেদী হাসানের হাতে ক্যাচ দিয়ে আউট হন তিনি। ৫ বল খেলে ১ রান করছেন। 

আগের দুই রাউন্ডের একটিতে জিতে ও একটিতে ড্র করে ১৬.৩৯ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে সাউথ জোন। সমান ম্যাচ থেকে ১৩.০৬ পয়েন্ট নিয়ে ইসলামী ব্যাংক ইস্ট জোন রয়েছে দ্বিতীয় স্থানে। আর ৯.৫ পয়েন্ট নিয়ে ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোন রয়েছে তৃতীয় স্থানে। ফাইনালে যেতে হলে এই রাউন্ডেও দারুণ একটি জয় প্রয়োজন ওয়ালটনের।

 

ঢাকা/আমিনুল/কামরুল

     
 

রাইজিংবিডি স্পেশাল ভিডিও