RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     শনিবার   ২৮ নভেম্বর ২০২০ ||  অগ্রাহায়ণ ১৪ ১৪২৭ ||  ১১ রবিউস সানি ১৪৪২

ওয়েস্ট ইন্ডিজের জন্য প্রস্তুত হচ্ছে জৈব সুরক্ষা বলয় গাইডলাইন

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:৫৬, ২৪ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ০৮:১৫, ২৫ অক্টোবর ২০২০
ওয়েস্ট ইন্ডিজের জন্য প্রস্তুত হচ্ছে জৈব সুরক্ষা বলয় গাইডলাইন

জানুয়ারিতে বাংলাদেশ সফরের কথা রয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দলের। তিনটি করে টেস্ট ও ওয়ানডে এবং দুইটি টি-টোয়েন্টি খেলতে বাংলাদেশে আসবে ক্যারিবিয়ানরা। করোনার প্রাদুর্ভাবের পর দেশের মাটিতে প্রথম আন্তর্জাতিক সিরিজ আয়োজন করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

এজন্য সফরকারীদের জন্য পৃথক গাইডলাইন প্রস্তুত করছে বিসিবি। জৈব সুরক্ষা বলয়ে থেকে কিভাবে ক্যারিবিয়ানদের দীর্ঘ এক মাসের সফর সফল করা যাবে সেই পরিকল্পনা প্রস্তুত করছে বিসিবি। স্বাগতিক ও সফরকারীদের জন্য তৈরি হচ্ছে একই গাইডলাইন। এর মধ্যে ম্যাচ অফিসিয়াল, ধারাভাষ্যকার, টিভি ক্রুদের রাখা হয়েছে।

জানা গেছে, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ড ও বিসিবি আলোচনার মাধ্যমে গাইডলাইন প্রস্তুত করছে। শিগগিরিই সেই গাইডলাইন পাঠানো হবে ক্রীড়া মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে। সরকারের অনুমতি পেলে পরবর্তী ধাপে এগিয়ে যাবে বিসিবি।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দল এরই মধ্যে ইংল্যান্ড সফর করেছে। তারা নিজেদের মাটিতে খেলেছে ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ। দেশটির টেস্ট অধিনায়ক সহ একাধিক ক্রিকেটার সংযুক্ত আরব আমিরাতে খেলছেন আইপিএল। নভেম্বরে নিউ জিল্যান্ড সফরেরও কথা রয়েছে তাদের। করোনার পর ক্রিকেট ফেরাতে বেশ সাহসী ভূমিকা পালন করেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিকেটাররা। বিসিবিও আশাবাদী, বাংলাদেশে আসতে বড় কোনো সমস্যা হবে না তাদের। এজন্য সর্বোচ্চ সুযোগ সুবিধার নিশ্চয়তা দেওয়া হচ্ছে বোর্ড থেকে।

ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি) ও আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিল যে জৈব সুরক্ষা বলয় তৈরি করেছে সেই ধারণা নিয়ে গাইডলাইন তৈরি করছে বিসিবি। নিয়মিত করোনা পরীক্ষার পাশাপাশি ক্রিকেটারদের ব্যবহৃত হোটেল, বাস, অনুশীলন মাঠ, মূল মাঠ ও আসা-যাওয়ার পথ শতভাগ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করা হবে। ক্রিকেটারদের সংস্পর্শে যাওয়া প্রত্যেককে থাকবে হবে জৈব সুরক্ষা বলয়ে।

জানা গেছে, ঢাকায় নেমে এক সপ্তাহের কোয়ারেন্টাইনে থাকবেন সফরকারীরা। এ সময়ে তিনবার তাদের করোনা টেস্ট হবে। চতুর্থ দিন থেকেই নামতে পারবেন অনুশীলনে। তিনবার করোনা টেস্টের পর অতিথি দল স্বাভাবিক কার্যক্রম শুরু করতে পারবেন। দ্বিপাক্ষিক সফরের জন্য দুইটি ভেন্যুতে ম্যাচ আয়োজন করতে হবে। ঢাকা ও সিলেটে ম্যাচ আয়োজনের পরিকল্পনা বিসিবি। ঢাকায় দুই দল থাকবে হোটেল সোনারগাঁওয়ে। সিলেটে রোজ ভিউ। এর আগেও সিলেট সফরে সফরকারী দলের ঠিকানা ছিল রোজ ভিউ।

সেভাবেই পরিকল্পনা করে গাইডলাইন তৈরি হচ্ছে। চূড়ান্ত অনুমোদন পেলে বিসিবি জৈব সুরক্ষা বলয় নিশ্চিত করতে মাঠে নামবে।

ঢাকা/কামরুল

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়