RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     শনিবার   ২৩ জানুয়ারি ২০২১ ||  মাঘ ৯ ১৪২৭ ||  ০৭ জমাদিউস সানি ১৪৪২

‘টি-টোয়েন্টিতে ২০-৩০ রানে আউট হওয়া পাপ করার মতো’

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:৫৫, ৩০ নভেম্বর ২০২০  
‘টি-টোয়েন্টিতে ২০-৩০ রানে আউট হওয়া পাপ করার মতো’

লক্ষ্য খুব বড় ছিল না। ভালো শুরু পেয়েছিলেন তামিম ইকবাল। কঠিন উইকেটে থিতুও হয়েছিলেন। কিন্তু নিজের ইনিংস বড় করতে পারেননি ফরচুন বরিশালের অধিনায়ক। তাতে নিজেও ডুবলেন, ডোবালেন দলকে। ১৫১ রানের লক্ষ্যে নেমে ১০ রানে তার দল হেরেছে গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের কাছে। 

রান তাড়ায় তামিম খেলেছিলেন ৩২ বল, রানও ৩২। ৪৬ মিনিট ক্রিজে থেকে এক চার ও দুটি ছক্কা হাঁকান। দলের দাবি মেটাতে না পারায় তামিম নিজেও হতাশ। দলের পরাজয় অনেকটাই নিজের কাঁধে নিয়েছেন বাঁহাতি ওপেনার। 

ম্যাচ শেষে তামিমের কণ্ঠে ঝরলো হতাশা, ‘টি-টোয়েন্টিতে ২০-৩০ রানে আউট হওয়া পাপ করার মতো। আমরা যথেষ্ট বল খেলতে পারি, উইকেটের আচরণ যাচাই করতে পারি। আমি আর আফিফ যেহেতু উইকেটে অনেকক্ষণ থেকেছি, আমাদের অন্তত একজনের উচিৎ ছিল ম্যাচ শেষ করে আসা।’ 

তিন অফস্পিনার নাহিদুল ইসলাম, মোসাদ্দেক হোসেন ও সঞ্জিত সাহা বেশ চাপে রেখেছিলেন তামিমকে। তাতে স্ট্রাইক রোটেট করতে সমস্যা হচ্ছিল বাঁহাতির। এজন্য এগিয়ে এসে বারবার প্রতি আক্রমণ করেছেন। তাতে সফল হয়েছেন গুটি কয়েকবার। শেষে ওই পাতা ফাঁদেই পা বাড়িয়ে নিজের উইকেট দিয়েছেন। 

মোসাদ্দেককে এগিয়ে এসে উড়াতে গিয়ে লং অফে ক্যাচ দেন তামিম। তার বিদায়ের পর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৪ রান করেন আফিফ হোসেন। তামিম মনে করেন তার ও আফিফের আরও দায়িত্বশীল হওয়া প্রয়োজন ছিল, ‘আমরা দুইজনই অভিজ্ঞ, আমাদের দায়িত্ব নেওয়া উচিত ছিল। উইকেট ব্যাটিংয়ের জন্য এত ভালো ছিল না। তবুও আমরা সেট হয়েছিলাম। এজন্য আমাদের একজনের শেষ পর্যন্ত থাকা উচিত ছিল।‘ 

বোলিং নিয়ে কোনও অভিযোগ নেই তামিমের। তবে ১৫ রান বাড়তি দেওয়ার আক্ষেপ রয়েছে তার। সামনের ম্যাচগুলোতে জয়ে ফিরতে আশাবাদী তামিম। এজন্য ম্যাচ উপভোগ করার পরামর্শ অধিনায়কের, ‘মূল বিষয় হলো আমরা খেলা উপভোগ করছি কি না, ফল বড় কথা নয়। প্রথম ম্যাচ অনেক রোমাঞ্চকর ছিল। পরের ম্যাচে ঘুরে দাঁড়িয়েছি। আজকে আবার হারলাম। আমরা এই ম্যাচ থেকে কিছু শিক্ষা নিতে পারি। কারণ জয় কখনোই অসম্ভব ছিল না। ওই দুই উইকেটই পার্থক্য গড়ে দিয়েছে। ওই সময়ে ভালো ব্যাট করলে ম্যাচ আমাদের নিয়ন্ত্রণে থাকতো।'

ঢাকা/ইয়াসিন/ফাহিম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়