Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     সোমবার   ২৬ জুলাই ২০২১ ||  শ্রাবণ ১১ ১৪২৮ ||  ১৩ জিলহজ ১৪৪২

‘ওরকম খেললে আমার পাঁচটা সেঞ্চুরিও হতো না’

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২২:৪১, ২৫ এপ্রিল ২০২১  
‘ওরকম খেললে আমার পাঁচটা সেঞ্চুরিও হতো না’

২২ গজে তামিম ইকবাল ছুটছিলেন। মন্থর গতিতে এগিয়ে যাচ্ছিলেন ছিলেন মুমিনুল হক। দলের রান যখন ৫২ তখন তামিমের রান ৫০। চা-বিরতিতে বাংলাদেশ যায় ১০০ রানে। সেখানে তামিমের একার রানই ৭৬। মুমিনুলের অপরাজিত ২৩ কোনও বাউন্ডারি ছাড়া।

শ্রীলঙ্কার থেকে ১০৭ রানে পিছিয়ে থেকে বাংলাদেশ হারায় সাইফ হাসান ও নাজমুল হোসেন শান্তর উইকেট। তামিম নিজেকে খোলসবন্দি না রেখে আক্রমণাত্মক ক্রিকেট বেছে নেন। ছক্কায় ক্রিজে স্বাগত জানান ধনাঞ্জয়া ডি সিলভাকে। অফ স্পিনারকে পরবর্তীতে আরও ২টি ছক্কা হাঁকান। বিরতিতে যাওয়ার আগে তার নামের পাশে আরও ১০ বাউন্ডারি।

আগ্রাসী মনোভাবে ব্যাটিংয়ে পাল্টা জবাব দেওয়ার তাড়না ছিল তামিমের। আর উইকেট ধরে রেখে এগিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা ছিল মুমিনুলের। নিজেদের ব্যাটিং প্রেক্ষাপট তুলে ধরে মুমিনুল বলেন, ‘আপনারা প্রথম থেকে যদি দেখেন, তিনি ছোটবেলা থেকে এভাবে ব্যাটিং করছেন। আপনারা তো জানেনই। তার খেলার ধরনই এরকম। আমার খেলার ধরন আরেকরকম। তিনি শট খেলতে পছন্দ করেন। আমার আজকে ১১টা একশো, তার মতো খেলতে গেলে হয়তো পাঁচটাও হতো কিনা সন্দেহ। তো একেক জনের খেলার ধরন একেক রকম।’

তামিম প্রথম ইনিংসেও প্রতি আক্রমণে গিয়ে রান পেয়েছেন। ৯০ রানের ঝকঝকে ইনিংস খেলেছেন। মুমিনুল বিদেশের মাটিতে পেয়েছেন প্রথম সেঞ্চুরি। শান্তর ব্যাট থেকে সেঞ্চুরি এবং মুশফিকুর রহিম ও লিটন দাশ পেয়েছেন হাফ সেঞ্চুরি। সব মিলিয়ে বাংলাদেশ প্রথম ইনিংসে করেছিল ৭ উইকেটে ৫৪১ রান।

সবুজাভ উইকেটে প্রতি আক্রমণে ব্যাটিং করে তামিম ভিত গড়ে দিয়েছিলেন বলে মনে করছেন মুমিনুল, ‘ব্যাটিংয়ের কথা যদি বলেন আমাদের টোন সেট করে দিয়েছে তামিম ভাই। উনার ৯০ রানের ইনিংসটা খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল। আর শান্ত আউটস্ট্যান্ডিং ব্যাট করেছে। আমি সবচেয়ে বেশি খুশি যে দল হিসেবে সবাই ভালো করেছে, দলীয় পারফরম্যান্স ছিল। লিটন, মুশফিক ভাই সবাই।’ 

বিদেশের মাটিতে সেঞ্চুরি খরা কাটানোয় তৃপ্ত মুমিনুল। নিজের পারফরম্যান্সে খুশি, ‘আমি যখনই বাংলাদেশ দলে খেলি, তখন থেকেই আমি চেষ্টা করি দলের হয়ে অবদান রাখার। বিদেশে এসে ওভাবে হয়তো বড় করে অবদান রাখা হয়নি। আল্লাহর রহমতে এবার কিছুটা অবদান রাখতে পেরে খুশি। আর অধিনায়ক হিসেবে আমার সব সময় অবদান রাখাটা জরুরি।’

ঢাকা/ইয়াসিন/ফাহিম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়