Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ১৯ অক্টোবর ২০২১ ||  কার্তিক ৩ ১৪২৮ ||  ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

ইয়াসির-মুমিনুলের ব্যাটে জয়ে রাঙাল গাজী গ্রুপ

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২২:১১, ২৬ জুন ২০২১  
ইয়াসির-মুমিনুলের ব্যাটে জয়ে রাঙাল গাজী গ্রুপ

লিগ শিরোপা আগের ম্যাচে নির্ধারণ হয়ে যাওয়ায় শেষ ম্যাচ নিয়ে বাড়তি আগ্রহ, উন্মাদনা ছিল না। খেলোয়াড়দের ব্যক্তিগত অর্জন ভারী করার সুযোগ ছিল। সেই সুযোগটি দারুণ কাজে লাগিয়েছেন ইয়াসির আলী রাব্বী ও মুমিনুল হক। 

দুজন লিগের সর্বোচ্চ রান-ই না, দলকেও সর্বোচ্চ রানের চূঁড়ায় নিয়ে যান। তাতে গাজী গ্রুপ উড়েছে। শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবে লিগের শেষটা করেছে হারের তিক্ত স্বাদ নেয়।

টস হেরে ব্যাটিং করতে নেমে গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স মাত্র ৪ উইকেট হারিয়ে ১৮৪ রান তোলে। জবাবে শেখ জামালের ইনিংস ১৮ ওভারে থেমে যায় ১৪৯ রানে। ৩৫ রানের জয়ে লিগের নবম জয় তুলে নেয় মাহমুদউল্লাহর দল। 

পুরো লিগে নিষ্প্রভ হয়ে থাকা ইয়াসির শেষ ম্যাচে পেলেন প্রথম অর্ধশতকের দেখা। এর আগে ৪৭ ও ৪৫ রানের দুটি ইনিংস খেললেও এবার ডানহাতি ব্যাটসম্যান ছাড়িয়ে গেলেন আগের সব পারফরম্যান্স। ব্যাট হাতে দ্যুতি ছড়িয়ে মাত্র ২২ বলে তুলে নেন ফিফটি। সব মিলিয়ে ২৪ বলে করেন ৫৬ রান। ২৩৩.৩৩ স্ট্রাইক রেটে সাজানো ইনিংসে ছিল ৪টি করে চার ও ছক্কা। 

এদিকে মুমিনুল হক বুঝিয়ে দিয়েছেন তিনি টি-টোয়েন্টিও খেলতে পারেন। ৫৩ বলে ১১ বাউন্ডারিতে ৭৮ রান করেন বাংলাদেশের টেস্টে অধিনায়ক। যদিও তার টি-টোয়েন্টি সর্বোচ্চ ৯১ রান। ২০২০ বঙ্গবন্ধু বিপিএলে ঢাকা প্লাটুনের হয়ে খুলনা টাইগার্সের বিপক্ষে করেছিলেন ওই রান। 

এ দুই ক্রিকেটারের পঞ্চম উইকেট জুটিতে ১১৩ রান যোগ করেন। তাতে গাজী গ্রুপ লিগের সর্বোচ্চ রানও পেয়ে যায়। তবে সৌম্য সরকার শুরুতেই সাজঘরে ফেরেন। ১০ বলে ৯ করে আউট হন জিয়াউর রহমানের বলে। ১৭ বলে ২৭ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে মেহেদী হাসান ফেরেন সাজঘরে। ভালো করতে পারেননি শাহাদাত হোসেন (১১) ও মাহমুদউল্লাহ (১) ।

আগের ম্যাচে শেখ জামাল ১৭৪ রান তাড়া করে জিতেছিল আবাহনীর বিপক্ষে। আজ লক্ষ্য আরেকটু বড় হলেও দলের হয়ে লড়াই করতে পারেননি কেউ। ইনিংসের শুরু থেকে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারায় তারা। এক সময় লক্ষ্য নাগালের বাইরে চলে যায়। সেখান থেকে শেষের ব্যাটসম্যানদের লড়াই পরাজয়ের ব্যবধান কমায় মাত্র। 

দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৪৫ রান করেন ইমরুল কায়েস। ৩৩ বলে ১ চার ও ৩ ছক্কায় ৪৫ রান করেন তিনি। এছাড়া তানবীর হায়দার ২৯, জিয়াউর রহমান ২১, আশরাফুল ১৫ ও নাসির ১৩ রান করেন। বল হাতে ২২ রানে ৩ উইকেট নিয়ে গাজী গ্রুপের সেরা বোলার মহিউদ্দিন তারেক। 

এ জয়ে গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স রান রেটে এগিয়ে লিগের চতুর্থ স্থানে রয়েছে। শেখ জামালের অবস্থান পাঁচে। ১৬ ম্যাচে দুই দলের জয় ৯টিতে। হেরেছে ৬টিতে।

প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছে আবাহনী লিমিটেড। রানার্সআপ প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব। 

 

 


 

ঢাকা/ইয়াসিন

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়