ঢাকা     বুধবার   ১৭ আগস্ট ২০২২ ||  ভাদ্র ২ ১৪২৯ ||  ১৮ মহরম ১৪৪৪

ইকোনমি রেট নিয়ন্ত্রণে রাখায় জোর দিচ্ছেন মোস্তাফিজ

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৪:১৯, ৬ জুলাই ২০২২   আপডেট: ১৪:২১, ৬ জুলাই ২০২২
ইকোনমি রেট নিয়ন্ত্রণে রাখায় জোর দিচ্ছেন মোস্তাফিজ

উপমহাদেশে ও তার বাইরে মোস্তাফিজুর রহমানের বোলিং ইকোনমিতে পার্থক্য রয়েছে বেশ। উপমহাদেশে তার বোলিং ইকোনমি ৭.৩৮, বাইরে ৯.১২। বোলিং গড়েও রয়েছে পার্থক্য। উপমহাদেশের বাইরে ২২.১৬, উপমহাদেশে সেটা ১৯.৭৪। উপমহাদেশের উইকেটগুলো মোস্তাফিজের জন্য বোলিংবান্ধব। বল সেখানে গ্রিপ করে। তার কাটার ধরে। স্লোয়ারগুলো হয় কার্যকর। 

অন্যদিকে উপমহাদেশের বাইরের উইকেট অনেকটাই ফ্ল্যাট। ব্যাটিংবান্ধব উইকেটে ব্যাটসম্যানরা রানের ফোয়ারা ছোটান অনায়াসে। সেখানে গতি কার্যকর। বৈচিত্র্য খুব একটা প্রভাব রাখে না। উপমহাদেশের বাইরে নিজের ইকোনমি রেট নিয়ন্ত্রণে রাখতে জোর দিচ্ছেন মোস্তাফিজ। নিজেকে ঘষামাঝা করে তৈরি করতে যাচ্ছেন বড় মঞ্চের জন্য। 
বুধবার মোস্তাফিজ ভিডিও বার্তায় বলেছেন, ‘এশিয়ার উইকেট একরকম, এশিয়ার বাইরের উইকেট আরেক রকম। এশিয়ার বাইরে উইকেট বেশি ভালো থাকে। আমার মনে হয় এটা একটা কারণ হতে পারে। আর আমি চেষ্টা করি আমার সেরাটা দেওয়ার। এশিয়ার মধ্যে দেখবেন (টি–টোয়েন্টিতে) ১৫০ রান করতেই কষ্ট হয়। আর এশিয়ার বাইরে দুইশ রানও নিরাপদ নয়। আমার যেটা মনে হয়, এই কারণ ইকোনমি রেট বাড়তে পারে।’ 

শুরুতে মোস্তাফিজের বোলিংয়ে বৈচিত্র্যের পাশাপাশি জোর ছিল। তবে ক্যারিয়ারের শুরুতেই তার কাঁধে অস্ত্রোপচার হয়। এরপর গতি অনেকটাই কমিয়েছেন বাঁহাতি পেসার। তবে নিজেকে সেরা ছন্দে ফিরে পেতে লড়াই অব্যহত রাখছেন তিনি, ‘অস্ত্রোপচার করানোর পর হয়তো এক–দেড় বছর আমার পারফরম্যান্স ভালো ছিল না। এরপর তো আমি মনে করি নিজেকে ফিরিয়ে আনতে পেরেছি। তবে শেখার শেষ নেই। প্রতিদিনই শেখা যায়। আমিও চেষ্টা করছি আরও উন্নতি করতে যেন বিশ্বের অন্য ভালো বোলারদের মতো হওয়া যায়। ফিটনেসে উন্নতি আনা বলেন, কোচদের পরামর্শ নেওয়া বলেন; শিখছি আমি।’

বোলিং কোচ  অ্যালান ডোনাল্ডের সঙ্গে নিয়মিত কাজ করছেন মোস্তাফিজ। তার সান্নিধ্যে উন্নতির পথ খুঁজে পেয়েছেন এ পেসার, ‘সাদা বলে আমি মাত্র দুটি সেশন করেছি, বিশেষ করে টি–টোয়েন্টি নিয়ে। আর ওয়ানডের জন্য কাজ করেছি দক্ষিণ আফ্রিকায়। খুব বেশিদিন এখনও ওনাকে পাইনি। তবে কোচের পরিকল্পনাগুলো খুব ভালো লাগছে।’

ঢাকা/ইয়াসিন/ফাহিম

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়