ঢাকা     সোমবার   ১৫ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ২ ১৪৩১

মন্থর উইকেটে কুমিল্লা বেসামাল ব্যাটিংয়ের পর জাকেরের ঝড়

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:৫১, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪  
মন্থর উইকেটে কুমিল্লা বেসামাল ব্যাটিংয়ের পর জাকেরের ঝড়

প্রত্যাশিত বিরতির পর আবার মিরপুর শের-ই-বাংলায় ফিরেছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল)। মাঠের আউটফিল্ডে চাকচিক্য আনার চেষ্টা করেছেন কিউরেটর গামিনি ডি সিলভা। কিন্তু উইকেট!

সেই চিরচেনা মিরপুরের ২২ গজ। মন্থর, অসমান বাউন্স। বল ব্যাটে যাচ্ছে ধীর গতিতে। টাইমিং মেলাতে রীতিমত হিমশিম খেতে হলো।  এমন উইকেটে অন্তত একটা ছোট্ট জুটি বড় স্কোর এনে দিতে যথেষ্ট। কিন্তু ফরচুন বরিশালের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের ব্যাটসম্যানরা ছিলেন বেসামাল।

এলোমেলো ব্যাটিংয়ে উইকেট বিলিয়ে স্কোরবোর্ডে একেবারে মামুলি পুঁজি পেয়েছে কুমিল্লা। বরিশালের আমন্ত্রণে ব্যাটিংয়ে নেমে কুমিল্লার সংগ্রহ ৮ উইকেটে ১৪০। ইনিংসের শেষ দিকে জাকের আলী ছিলেন বলে কুমিল্লার রান এতোদূর এসেছে। নয়তো যে গতিতে রান উঠছিল তাতে বলার মতো কিছুই হতো না।

জাকের ১৬ বলে ৩৮ রান করেন ২ চার ও ৪ ছক্কায়। শেষ ৩ ওভারে কুমিল্লা ৪২ রান পায়। যেখানে জাকের একাই তোলেন ৩৭ রান।

ওপেনিংয়ে নারিন ও লিটনকে পাঠিয়েছিল কুমিল্লা। তাদের জুটি খুব একটা জমেনি। দলীয় ২৪ রানে নারিন ড্রেসিংরুমে ফেরেন ওবেদ ম্যাকয়ের বলে সৌম্যর হাতে ক্যাচ দিয়ে। ড্রেসিংরুমে ফেরার আগে ১৮ বলে ১৬ রান করেন ২ চার ও ১ ছক্কায়। সঙ্গী হারানোর পর লিটনও বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি। একাদশে ফেরা তাইজুল ইসলামের ভেতরে ঢোকানো বলে বোল্ড হন ১২ রানে।

বাঁহাতি স্পিনার নিজের দ্বিতীয় ওভারে আরেকটি উইকেট পান মাহিদুল ইসলাম অঙ্কনকে ফিরিয়ে। ৬ বলে ১ রান করে সীমানায় ক্যাচ দেন মাহিদুল। মঈন আলী ক্রিজে এসে ছক্কা হাঁকিয়ে রানের খাতা খোলেন। কিন্তু উইকেট ব্যাটিংবান্ধব না হওয়ায় মঈন আলীও বেশি কিছু করতে পারেননি। ২২ বল খেলে রান করেন মাত্র ২৪।

আগের ম্যাচে আন্দ্রে রাসেল মাত্র ১২ বলে ৪৩ রান করে কুমিল্লাকে ম্যাচ জিতিয়েছিলেন। আজ ১১ বল খেলে ১৪ রানের বেশি করতে পারেননি। তাইজুলকে উড়াতে গিয়ে বোল্ড হন ১ চার ও ১ ছক্কা হাঁকিয়ে। ৯৬ রানে ৬ উইকেট হারানো কুমিল্লা তখন রান খরায় ভুগছিল।

সেখান থেকে জাকের আলী ছড়ান মুগ্ধতা। বাঁহাতি পেসার আকিফকে ছক্কা উড়ানোর পর সাইফ উদ্দিন ও ওদেব ম্যাকয়ের বল সীমানার বাইরে আছড়ে ফেলেন চোখের পলকে। শেষ ওভারে দুই ছক্কা ও এক চারে ১৬ রান তুলে নেন যা ছিল ইনিংসের সর্বোচ্চ।

জাকের শো’এর আগে বরিশালের বোলিং ছিল দুর্দান্ত। ৩ ওভারে ২০ রানে ৩ উইকেট নিয়ে তাইজুল তাদের সেরা। এছাড়া ১৬ রানে ২ উইকেট পেয়েছেন সাইফ উদ্দিন।

ইয়াসিন/আমিনুল

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়