ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ আষাঢ় ১৪২৬, ২৭ জুন ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

ইতিহাসের জানান দিচ্ছে ‘বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ’

আমিনুর রহমান হৃদয় : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০১-১৯ ৮:৫২:৫৮ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০১-১৯ ৯:১১:৪০ পিএম
Walton AC 10% Discount

আমিনুর রহমান হৃদয় : ‘বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ’ শিরোনামে একটি প্যাভিলিয়ন এবারও ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় ইতিহাসের বার্তা নতুন প্রজন্মের মাঝে পৌঁছে দিচ্ছে। ওই প্যাভিলিয়নটিতে বঙ্গবন্ধুর ব্যক্তিগত জীবন, রাজনৈতিক কর্মকান্ড ও বাংলাদেশের স্বাধীনতায় তাঁর ভূমিকা আলোকচিত্রের মাধ্যমে তুলে ধরা হয়েছে। এছাড়া তৎকালীন সময়ে বিভিন্ন পত্রিকার গুরুত্বপূর্ণ সংবাদ কাটিংও স্থান পেয়েছে প্যাভিলিয়নটিতে।

বাণিজ্যমেলায় প্রবেশ করার পর কিছুটা এগিয়ে গেলেই দেখা যাবে ‘বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ’ প্যাভিলিয়নটি। নানা উন্নয়নের তথ্য ও চিত্র দিয়ে প্যাভিলিয়নটির বাইরের দিকটি সাজানো হয়েছে। সেই সঙ্গে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবির পাশে তাঁর কন্যা ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবিও শোভা পাচ্ছে প্যাভিলিয়নটির বাইরে।

সরেজমিনে দেখা যায়, স্কুল ও কলেজের শিক্ষার্থীরা ছাড়াও ছোট ছোট শিশুরা বাবা-মায়ের সঙ্গে প্যাভিলিটির ভিতরে ঘুরে ঘুরে বঙ্গবন্ধুর নানা কর্মকান্ডের আলোকচিত্রগুলো দেখছেন। কেউ আবার ভিতরে বঙ্গবন্ধুর ছবির সঙ্গে নিজের ছবিও তুলছে।

সম্প্রতি গঠন হওয়া নতুন মন্ত্রীসভার মন্ত্রীদের শপথ অনুষ্ঠানের একটি ছবিও দেখা গেছে। ‘নির্বাচনী প্রতীক নৌকায় চড়ে প্রচারণায় বঙ্গবন্ধু, ১৯৪০ সালে ঢাকা ওয়ান্ডারার্স ক্লাবে সহখেলোয়াড়দের সঙ্গে শেখ মুজিবুর রহমান বসে আছেন’ বঙ্গবন্ধুর এমনই নানা কর্মকান্ডের ওপর প্রায় ২০০টির মতো আলোকচিত্র রয়েছে। প্যাভিলিয়টির এক কর্ণারে প্রদর্শন করা হচ্ছে বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক কর্মকান্ডের ভিডিও চিত্র।

বাবা-মায়ের সঙ্গে ঘুরতে আসা শিশু শাওন জানায়, ‘বঙ্গবন্ধুর ভাষণ আমি টিভিতে দেখেছি। এখানে বঙ্গবন্ধুর অনেক ছবি দেখলাম।’ বঙ্গবন্ধুর কী ভাষণ টিভিতে দেখেছো জিজ্ঞেস করলে ওই শিশুটি বলে, ‘এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম- এই ভাষণটি দেখেছি। বাবা বলেছে, যুদ্ধের আগে বঙ্গবন্ধু এই ভাষণটি দিয়েছিল।’

রাফসান নামের এক শিক্ষার্থী বলেন, ‘ছবির সঙ্গে সংক্ষিপ্ত বর্ণনা থাকার কারণে সহজে বুঝতে পারছি ছবিটি আসলে কিসের। বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে পাঠ্য বইয়ে যা পড়েছি, এর বাইরেও অনেক ছবি ও তথ্য জানলাম আজকে। বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে নতুন কিছু ধারণা পেলাম।’

মেয়েকে সঙ্গে নিয়ে আসা সাব্বির রহমান নামে এক অভিভাবক বলেন, ‘বাংলাদেশের স্বাধীনতায় বঙ্গবন্ধুর অবদান ভুলে যাবার নয়। মেয়েকে ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে সবগুলো ছবি দেখালাম। তাকেও তো জানাতে ও বুঝাতে হবে একটি দেশ স্বাধীন হওয়ার পিছনে অবদান কার ছিল।’

দৃষ্টি আক্তার নামে আরেক দর্শনার্থী বলেন, ‘এই প্যাভিলিয়নটি আসলে ইতিহাসের জানান দিচ্ছে। বঙ্গবন্ধুর অবদানের কথা জানাচ্ছে আমাদের মতো তরুণদের।’

প্যাভিলিয়টির দায়িত্বে থাকা মোহাম্মদ সুমন বলেন, ‘শুক্র ও শনিবার ভিড় বেশি হয়ে থাকে। এছাড়া মেলায় ঘুরতে আসলে অনেকেই এখানে এসে ঘুরে ঘুরে ছবিগুলো একনজরে দেখে যায়।’



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৯ জানুয়ারি ২০১৯/ফিরোজ

Walton AC
     
Walton AC
Marcel Fridge