ঢাকা     শুক্রবার   ০১ মার্চ ২০২৪ ||  ফাল্গুন ১৭ ১৪৩০

দলীয় পদ হারিয়ে নির্বাচনের ঘোষণা দিলেন শাহীনুর পাশা

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:৩৪, ২৫ নভেম্বর ২০২৩  
দলীয় পদ হারিয়ে নির্বাচনের ঘোষণা দিলেন শাহীনুর পাশা

আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে গণভবনে গিয়ে সাক্ষাতের পর পদ হারিয়েছেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মাওলানা শাহীনুর পাশা চৌধুরী।

বৃহস্পতিবার (২৩ নভেম্বর) সন্ধ্যায় গণভবনে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করেন ধর্মভিত্তিক রাজনৈতিক দলেরনেতা মাওলানা শাহীনুর পাশা। আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর সঙ্গে দেখা করার পর শুক্রবার (২৪ নভেম্বর) দলীয় পদ স্থগিত করার কথা জানিয়ে জমিয়তের কেন্দ্রীয় মহাসচিব চিঠি পাঠান শাহীনুর পাশাকে।

দলের পদ স্থগিত করার পর উল্টো পদত্যাগ করে আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণের কথা জানিয়েছেন শাহীনুর পাশা চৌধুরী। তবে প্রিয় নেতার এমন দ্বিচারিতার কারণে ক্ষোভ প্রকাশ করছেন খোঁদ শাহীনুর পাশার ঘনিষ্ঠ সমর্থকেরা। কেন্দ্রিয় কমিটির পক্ষ থেকে শাহীনূর পাশার সকল পদ স্থগিত করায় খুশি হয়েছেন দলের অনেকেই। এদিকে তার নির্বাচনি এলাকার রাজনৈতিক অঙ্গনের বিভিন্ন দলের নেতাকর্মীদের অনেকে মনে করেন নির্বাচন এলেই তিনি জনসম্মুখে এসে হাজির হন। নয়ত এই নেতার দেখা মেলে না তেমন একটা।

এ ব্যাপারে আজ শনিবার (২৫ নভেম্বর) শাহীনুর পাশা চৌধুরী রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘আমি আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সুনামগঞ্জ-৩ ( শান্তিগঞ্জ-জগন্নাথপুর) আসনে নির্বাচন করব। তবে কোন প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করব, এটা এখন নিশ্চিত না। হয়ত নতুন কোনো দলও গঠন করতে পারি।’

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় শাহীনুর পাশা গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ সাক্ষাতকে নির্বাচনি ও দলীয় সাক্ষাত ভেবে পাশার প্রতি ক্রোধান্বিত হন জমিয়ত নেতারা। এ ঘটনায় আলোচনা শুরু হয় জমিয়ত সমর্থিত নেতাকর্মীদের মাঝে। পরের দিন শুক্রবার (২৪ নভেম্বর) দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ, দলের কিছু নেতাকর্মীকে দলের সিদ্ধান্ত ও অবস্থানের বিরুদ্ধে আসতে প্ররোচিত করা ও দলের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করার অভিযোগে জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের সহ-সভাপতি মাওলানা শাহিনূর পাশা চৌধুরীকে প্রাথমিক সদস্যপদসহ দলীয় সকল পদ স্থগিত করেছেন। জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের সভাপতি মাওলানা শায়খ জিয়াউদ্দিনের বরাত দিয়ে নিজ স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন দলটির প্রচার সম্পাদক মাওলানা জয়নুল আবেদীন।

মাহমুদুল হাসানের নামের একজন শাহীনুর পাশা চৌধুরীকে উদ্দেশ্য করে তার ফেসবুকে পোস্টে লিখেছেন, ‘লোকটাকে এমনিতেই আমার অপছন্দ ছিল। আলেমদের মান-সম্মান নিয়ে এমন খেলা করা উনাদের মতো লোকেরই সাজে।’

সুনামগঞ্জ জেলা জমিয়তের সাধারণ সম্পাদক তৈয়িবুর রহমান বলেন, ‘একজন ব্যক্তি হিসেবে শাহীনুর পাশা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতেই পারেন। আমি বিষয়টিকে স্বাভাবিকভাবেই দেখছি। তবে দলের শৃঙ্খলার বাইরে যাওয়া কোনোভাবে উচিত নয়। যেহেতু দল করি, দলের সিদ্ধান্তের সঙ্গে আমরা একমত।’ 

শাহীনুর পাশা চৌধুরী সুনামগঞ্জ-৩ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য। তিনি গত নির্বাচনে ২০ দলীয় জোটের শরিক হিসেবে ধানের শীষ নিয়ে নির্বাচন করে পরাজিত হন। এর আগে এই আসনের সাবেক সংসদ সদস্য প্রয়াত জাতীয় নেতা আব্দুস সামাদ আজাদের মৃত্যুর পর ২০০৫ সালের উপ-নির্বাচনে চার দলীয় জোটের প্রার্থী হয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান পরিকল্পনা মন্ত্রী এমএ মান্নানকে হারিয়ে এমপি হন মাওলানা শাহীনুর পাশা। 
 

মনোয়ার/বকুল

ঘটনাপ্রবাহ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়