Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ১৩ এপ্রিল ২০২১ ||  চৈত্র ৩০ ১৪২৭ ||  ২৮ শা'বান ১৪৪২

ক্যাম্পাস ক্লাব সামিট ৬-৭ নভেম্বর 

বেনজির আবরার || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৪:৪৬, ২ নভেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৪:৪৯, ২ নভেম্বর ২০২০
ক্যাম্পাস ক্লাব সামিট ৬-৭ নভেম্বর 

দেশের বিশ্ববিদ্যালয় ভিত্তিক ক্লাবের সদস্যদের অংশগ্রহণে আগামী ৬ ও ৭ নভেম্বর অনলাইনে হবে ‘ক্যাম্পাস ক্লাব সামিট-২০২০’। সামিটের মূল সহযোগী হিসেবে রয়েছে ‘মাইডাস ফাইনান্সিং লিমিটেড’ এবং আয়োজক প্রতিষ্ঠান ‘এক্সিলেন্স বাংলাদেশ’ ও ‘দ্য ডেইলি স্টার’।

দেশীয় বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে রয়েছে ক্যারিয়ার ক্লাব, ডিবেটিং ক্লাব, কালচারাল ক্লাব, ড্রামা সোসাইটিসহ নানা ধরনের সহশিক্ষাকার্যক্রম পরিচালনাকারী সংগঠন। গত ৭ মাসে ক্যাম্পাস বন্ধ থাকার এই সময়ে তারা নানাভাবে টিকিয়ে রেখেছে তাদের কার্যক্রম। তারুণ্যের সংগঠন এক্সিলেন্স বাংলাদেশও কাজ করছে গত তিন বছর ধরে শিক্ষার্থীদের পড়াশোনা, চাকরির বাজারে প্রবেশের তথ্য প্রদান ও স্কিল ডেভেলপমেন্ট বিষয়ক নানা প্রশিক্ষণ নিয়ে। 

দুদিনের আয়োজনের পর্দা উঠবে আগামী শুক্রবার সকালে। আয়োজনটিতে মূল আকর্ষণ হিসেবে থাকবে ৪টি কি-নোট সেশন। এগুলোতে দ্য ডেইলি স্টার সম্পাদক মাহফুজ আনাম, মিডিয়া ব্যক্তিত্ব গাওসুল আজম শাওন, আইসিটি ব্যক্তিত্ব সোনিয়া বশির কবির, গ্রামীণফোনের সিইও ইয়াসির আজমান অংশ নেবেন।

এছাড়াও দুদিনের আয়োজনে প্রাক্তন সফল ক্লাবিয়ান, স্কিল ডেভেলপমেন্ট সেক্টরের জনপ্রিয় বিভিন্ন মানুষ অংশ নেবেন অতিথি হিসেবে। 

এ বিষয়ে মাইডাস ফাইনান্সিং লিমিটেডের কোম্পানি সেক্রেটারি তানভীর হাসান বলেন, ‘আমরা খুবই আনন্দিত তারুণ্যের এতবড় একটি জয়োৎসবের সঙ্গে যুক্ত হতে পেরে। এই আয়োজন ইতোমধ্যেই দেশের ভার্সিটিগুলোতে সাড়া ফেলেছে।’ 

সহ-আয়োজক প্রতিষ্ঠান দ্য ডেইলি স্টারের হেড অব মার্কেটিং তাজদীন হাসান বলেন, ‘ডেইলি স্টার সবসময় তারুণ্যকে প্রমোট করে, ভালো কাজের অংশ হিসেবে এই সামিটকে আমরা সফল করতে চাই।’ 

এক্সিলেন্স বাংলাদেশের সিইও বেনজির আবরার বলেন, ‘আমরা দীর্ঘ দিন ধরে শিক্ষার্থীদের নিয়ে কাজ করছি। আমাদের এবারের আয়োজনটি অনলাইনে হলেও আমাদের ইচ্ছা ২১ সালের ক্লাব সামিট অফলাইনে দেশের সর্ববৃহৎ তারুণ্যের মিলনমেলায় পরিণত করার। ক্লাবিং আমাদের দেশের ভার্সিটি পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের এক চমৎকার সময়ের নাম।’

ইউনিভার্সিটির ক্লাবগুলো অংশগ্রহণের কারণে পাবে সার্টিফিকেট। ক্লাব হিসেবে অংশ নিতে এই লিঙ্কটি পূরণ করতে হবে - 
https://docs.google.com/forms/d/1Bs5piVT4tZkPCrRF-3eVuX5qmA-_-3C4M2iA7ffdci0

ক্লাব প্রেসিডেন্টদের জন্য রয়েছে একটি ‘শো’। ক্যাম্পাস ক্লাবগুলোর সভাপতিদের কি কি গুণ থাকলে সেটা তার পরবর্তী জীবনকে করবে রঙ্গিন, এমন বিষয়ে দিকনির্দেশনা দেওয়া হবে শো-তে

এই সেশনে যুক্ত হতে ক্লাব প্রেসিডেন্টদের পূরণ করতে হবে এই লিঙ্কটি- 

https://docs.google.com/forms/d/182aoGGlYeSxv5rZy6NXqzuHRAa6Gb7nz_Si_SZhiOM0/edit

ইভেন্টের আগের দিন সন্ধ্যায় আপনার ইমেইলে জয়েন করার লিংক চলে যাবে। এই সেশনটিও সরাসরি সম্প্রচার হবে বেশ কয়েকটি জনপ্রিয় ফেসবুক পাতায়। এতে অংশ নেওয়া প্রেসিডেন্টরাও পাবেন সার্টিফিকেট।

এরপর বিকাল ৩টায় ক্লাবের সদস্য বাকি সবার জন্য থাকবে আরেকটি সেশন। সেশনটি নেবেন এসবি টেক ভেঞ্চারসের সিইও সোনিয়া বশির কবির।

অংশ নিতে আপনারা ফরম পূরণ করবেন এই লিঙ্কটির- 

https://docs.google.com/forms/d/1V6Ktjberc0G25e69HSj5QRp-BpM9cGB3yXk2qIkDFPU/edit

ইভেন্টের আগের দিন সন্ধ্যায়ই আপনার ইমেইলে জয়েন করার লিঙ্ক চলে যাবে। এই সেশনটিও সরাসরি সম্প্রচার হবে বেশ কয়েকটি জনপ্রিয় ফেসবুক পাতায়।

ইভেন্টটির শেষদিন সন্ধ্যা ৭ টায় হবে ‘রিকগনিশন সেরেমনি’। করোনাকালানীন সময়ে ক্লাবের কার্যক্রম সচল রাখা পাঁচটি ক্লাব তাদের জমা দেয়া পোর্টফোলিওর উপর ভিত্তি করে পাবে ‘রিকশনিশন’। পোর্টফোলিও মেইলে জমা দিতে হবে ৩ নভেম্বর রাত ১২টার আগে [email protected] আর ক্লাব হিসেবে পোর্টফোলিও জমা দিলে ৩ নভেম্বর রাত ১২টার আগে মিলবে তিনটি বেস্ট ক্লাব অ্যাওয়ার্ড ২০২০৷ রিকশনগুলোর জন্য কাজ করছে একটি অভিজ্ঞ জুরি বোর্ড। 

ইভেন্টের অন্যতম সহযোগী প্রতিষ্ঠান সদাগর.কম, ক্যারিয়ার্স হাব বাংলাদেশ, অ্যাশেন্সী, পার্কিং কই, জাগোজবস, টিএল এক্সপ্রেস কুরিয়ার, এইচ বি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টার, উমাই ফুড অ্যান্ড বেভারেজেস লি.।  

আয়োজনে মিডিয়া সহযোগী হিসেবে থাকছে রাইজিংবিডি ডটকম, দৈনিক সমকাল, সময় টেলিভিশন, বার্তাবাজার ও পজেটিভ নিউজ। 

ক্লাব সামিটে অংশ নিতে কোনো ধরনের ফি-এর প্রয়োজন নেই।

ক্লাব সামিট সংক্রান্ত যেকোনো তথ্যের জন্য- 01521429019, 01834024744, 01947500480, 01933025047

ঢাকা/মাহি

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়

শিরোনাম

Bulletলকডাউন: ১৪-২১ এপ্রিল। যা যা চলবে: ১. বিমান, সমুদ্র, নৌ ও স্থল বন্দর এবং তৎসংশ্লিষ্ট অফিস। ২. পণ্য পরিবহন, উৎপাদন ব্যবস্থা ও জরুরি সেবাদানের ক্ষেত্রে এ আদেশ প্রযোজ্য হবে না ৩. শিল্প-কারখানা ৪. আইনশৃঙ্খলা এবং জরুরি পরিসেবা, যেমন, কৃষি উপকরণ (সার, বীজ, কীটনাশক, কৃষি যন্ত্রপাতি ইত্যাদি), খাদ্যশস্য ও খাদ্যদ্রব্য পরিবহন, ত্রাণ বিতরণ, স্বাস্থ্যসেবা, কোভিড-১৯ টিকা প্রদান, বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস/জ্বালানি, ফায়ার সার্ভিস, বন্দরগুলোর (স্থল, নদী ও সমুদ্রবন্দর) কার্যক্রম, টেলিফোন ও ইন্টারনেট (সরকারি-বেসরকারি), গণমাধ্যম (প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া), বেসরকারি নিরাপত্তা ব্যবস্থা, ডাক সেবাসহ অন্যান্য জরুরি ও অত্যাবশ্যকীয় পণ্য ও সেবার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অফিসসমূহ, তাদের কর্মচারী ও যানবাহন এ নিষেধাজ্ঞার আওতা বর্হিভূত থাকবে। ৫. ওষুধ ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ক্রয়, চিকিৎসা সেবা, মৃতদেহ দাফন/সৎকার ৬. খাবারের দোকান ও হোটেল-রেস্তোরাঁয় দুপুর ১২টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা এবং রাত ১২টা থেকে ভোর ৬টা পর্যন্ত কেবল খাদ্য বিক্রয়/সরবরাহ করা যাবে। ৭. কাঁচাবাজার এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি সকাল ৯টা থেকে বেলা ৩টা পর্যন্ত উন্মুক্ত স্থানে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্রয়-বিক্রয় করা যাবে || যা যা বন্ধ থাকবে: ১. সব সরকারি, আধাসরকারি, সায়ত্ত্বশাসিত ও বেসরকারি অফিস, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে ২. সব ধরনের পরিবহন (সড়ক, নৌ, অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক ফ্লাইট) বন্ধ থাকবে ৩. শপিংমলসহ অন্যান্য দোকান বন্ধ থাকবে