RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ০১ অক্টোবর ২০২০ ||  আশ্বিন ১৬ ১৪২৭ ||  ১৩ সফর ১৪৪২

বঙ্গবন্ধুকে আমরা ‘মুজিব ভাই’ ডাকতাম: সোহেল রানা

রাহাত সাইফুল || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:১৮, ১৫ আগস্ট ২০২০   আপডেট: ১০:৩৯, ২৫ আগস্ট ২০২০
বঙ্গবন্ধুকে আমরা ‘মুজিব ভাই’ ডাকতাম: সোহেল রানা

সদ্য স্বাধীন দেশে চলচ্চিত্রে সোহেল রানার আত্মপ্রকাশ ঘটে প্রযোজক হিসেবে। এরপর অভিনেতা এবং পরিচালক। তারও আগে, ছাত্রজীবনে রাজনীতির মাঠে সক্রীয় ছিলেন এই ড্যাশিং হিরো। যে কারণে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সংস্পর্শে আসার সুযোগ হয়েছিল তার।

আজ ১৫ আগস্ট। বঙ্গবন্ধুর মৃত্যুদিন। বেদনাবিধুর দিনটি জাতীয়ভাবে পালন করা হয়। সমগ্র জাতি বিনম্র চিত্তে স্মরণ করে জাতির পিতাকে। এ প্রসঙ্গে সোহেল রানা বলেন, ‘বাঙালি যদি হাজার বছর কাঁদে, তবুও এই কান্নায় বঙ্গবন্ধু হত্যার পাপের ঋণ শোধ হবে না।’

তিনি দুঃখপ্রকাশ করে আরো বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে পূর্ণাঙ্গ চলচ্চিত্র নির্মাণ হয়নি। তবে রূপক হিসেবে বঙ্গবন্ধুর বক্তব্য, আদর্শ তুলে ধরার চেষ্টা হয়েছে ‘রাজা সূর্য খান’সহ বেশ কিছু সিনেমায়।’ স্বাধীনতার এতোগুলো বছর পরেও বঙ্গবন্ধুর জীবনী নিয়ে সিনেমা হলো না কেন? এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘মহামানবদের নিয়ে হাজারটা সিনেমা নির্মাণ হয় না। কারণ তাদের নিয়ে সিনেমা নির্মাণ করতে হলে অনেক বিশ্লেষণ করতে হয়। কোনো ভুল করার সুযোগ এখানে নেই। তাছাড়া স্বাধীনতার পর অনেকগুলো বছর সময় অনুকূলে ছিল না।’

সরকার সম্প্রতি বঙ্গবন্ধুর জীবনীভিত্তিক সিনেমা নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছে। ভারতীয় বরেণ্য চিত্রপরিচালক শ্যাম বেনেগাল সিনেমাটি নির্মাণ করবেন। সোহেল রানা বলেন, ‘আমি পরিচালকের প্রতি বিশ্বাস ও সন্মান রাখছি। তারপরও একটু হতাশা থেকেই যায়। কারণ বঙ্গবন্ধুকে আমরা যেভাবে হৃদয় থেকে ভালোবেসেছি, সেই ভালোবাসার ছোঁয়া কতটুকু পাওয়া যাবে সেটাই এখন দেখার অপেক্ষায় আছি। আমি আশাবাদী ভালো একটি চলচ্চিত্র হবে। বঙ্গবন্ধুকে আমরা যারা কাছ থেকে দেখেছি, তাদের মধ্যে চলচ্চিত্রে আমি জীবিত আছি। ছাত্রলীগের রাজনীতি করার কারণে নেতার সান্নিধ্যও পেয়েছি। ফলে এই প্রজেক্টে আমাকে একটু কথা বলার জন্যও যদি রাখা হতো, তাহলে হয়তো কিছুটা সহযোগিতা করতে পারতাম।’

বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে সোহেল রানার স্মৃতি রয়েছে, যার অনেকগুলো স্বাধীনতা যুদ্ধ আন্দোলনকেন্দ্রীক। সোহেল রানা স্মৃতিচারণ করে বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুকে আমরা ‘মুজিব ভাই’ ডাকতাম। তিনি যেমন আদর করতেন, স্নেহ করতেন, তেমনি শাসনও করতেন। তিনি যখন চোখে চোখ রেখে কিছু বলতেন আমাদের চোখ তখন স্বাভাবিকভাবেই মাটির দিকে চলে যেত। মুজিব ভাইয়ের চোখে চোখ রেখে তাঁর সম্পূর্ণ চেহারা আমি দেখিনি।’

স্বাধীন দেশের প্রথম চলচ্চিত্র ‘ওরা ১১ জন’। সিনেমাটি প্রযোজনা করেন সোহেল রানা। এই সিনেমা প্রসঙ্গে জানতে চাইলে সোহেল রানা বলেন, ‘‘সিনেমাটি কীভাবে যেন মুজিব ভাই দেখেছিলেন। একদিন দেখা হতেই বললেন, ‘ভালোই তো বানিয়েছিস। চালিয়ে যা।’ তার এই কথাটি আমার কাছে আজও অনেক মূল্যবান।’’

ঢাকা/তারা

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়