ঢাকা     শনিবার   ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||  ফাল্গুন ১১ ১৪৩০

তারায় তারায় দ্বন্দ্ব, কার লাভ কার ক্ষতি

রাহাত সাইফুল || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:৫৪, ৩০ নভেম্বর ২০২৩   আপডেট: ১৯:৪৮, ৩০ নভেম্বর ২০২৩
তারায় তারায় দ্বন্দ্ব, কার লাভ কার ক্ষতি

সিনেমার পর্দায় গল্পের প্রয়োজনে নায়ক নায়িকা খল-অভিনেতাদের দ্বন্দ্বে জড়াতে দেখা যায়। গল্পের শেষে দ্বন্দ্বের অবসান ঘটে। কিন্তু বাস্তবে তারকাদের দ্বন্দ্ব যেন কিছুতেই দূর হচ্ছে না। 

নেট দুনিয়ায় প্রায় সময়ই তারকাদের পারস্পরিক দ্বন্দ্বের খবর লক্ষ্য করা যায়। পরস্পরকে কটাক্ষ করে স্ট্যাটাস দেওয়া, একজনের ওয়ালে গিয়ে অন্যজনের বিরূপ মন্তব্য করা, এমনকি নাম উচ্চারণ না করেও অনেকে অন্যের প্রতি মনের ক্ষোভ উগড়ে দেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। শুধু তাই নয়, সংবাদমাধ্যমগুলোতেও তাদের দ্বন্দ্বের বহিঃপ্রকাশ করেন তারকারা। নিজেদের কাজ বা ক্যারিয়ার নিয়ে খুব বেশি কথা বলতে দেখা যায় না। বরং তারা ব্যক্তিগত দ্বন্দ্ব নিয়েই বেশি কথা বলেন। কিন্তু তারায় তারায় দ্বন্দ্বে ক্ষতিটা কার হচ্ছে?

শোবিজে যে কজন তারকা বর্তমান সময়ে নিজেদের অবস্থান তৈরি করতে পেরেছেন তাদের প্রায় সবাই অন্য তারকার সঙ্গে দ্বন্দ্বে জড়িয়েছেন। সোশ্যাল মিডিয়া কিংবা সংবাদমাধ্যমে একে অপরের কটাক্ষ বা ইঙ্গিত করে মন্তব্য করছেন। একটা সময় তারকাদের মধ্যে পারস্পরিক সম্মান-শ্রদ্ধাবোধ ছিল। বর্তমানে পরচর্চা, সমালোচনা, কুৎসা রটানো যেন নিয়মে পরিণত হয়েছে। এ ছাড়া কোনো তারকার ত্রুটির খবর পেলে কিছু তারকাদের মধ্যে উৎসবের আমেজ বইতে থাকে। এসব কারণে তারায় তারায় বন্ধন তলানিতে ঠেকেছে।

শুধু তাই নয়, সহকর্মীরা তাদের কাছে একেকজন হয়ে যাচ্ছেন শত্রু। শুটিং সেটের তুচ্ছ ঘটনা তারকারা একে অন্যকে ছোট করতে নিজেরাই বাইরে ছড়িয়ে দিচ্ছেন। এতে যেমন তারকারা ভক্তদের কাছে ছোট হচ্ছেন, তেমনি তারকাদের নিয়ে ভক্তরা হাসি-ঠাট্টায় মেতে উঠছেন। কেউ কেউ ট্রল করছেন। এসব ঘটনায় গুণী তারকারাও দিন দিন অন্তরালে চলে যাচ্ছেন। প্রবীণ-নবীন তারকাদের মধ্যে আগের মতো সেই মেলবন্ধনও নেই। শিল্পী পরিবারের মাঝে ভাঙন ধরছে। 

তারায় তারায় দ্বন্দ্বের তালিকায় রয়েছেনে- অপু বিশ্বাস-শবনম বুবলী। তাদের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে দ্বন্দ্বে জড়ান এই দুই নায়িকা। তাদের শুরুটা হয়- শাকিব খানের সঙ্গে ছবি তুলে এর ক্যাপশনে বুবলী লেখেন ‘ফ্যামিলি টাইম’। আর এতেই চটে যান নায়িকা অপু বিশ্বাস। কারণ সেসময় শাকিব খানের স্ত্রী ও সন্তানের মা ছিলেন তিনি। ওই সময়ে বুবলীর সঙ্গে শাকিব খানের প্রেমের গুঞ্জন উড়ছিল। যদিও বিষয়টি তখন স্বীকার করেননি বুবলী। ফলে এ ঘটনায় অপুর প্রতিক্রিয়া দেখানো স্বাভাবিক ছিল এবং তিনি বুবলীকে নিয়ে যে আশঙ্কা করেছিলেন পরে সেটাই সত্যি হয়। শাকিব খানের সঙ্গে প্রেমে জড়ান বুবলী। এরপর থেকেই সোশ্যাল মিডিয়া কিংবা সংবাদমাধ্যমে একে অপরকে কটাক্ষ কিংবা ইঙ্গিতপূর্ণভাবে মন্তব্য করেন দুজন।  

সম্প্রতি কৌশিক হোসেন তাপসের সঙ্গে বুবলীর প্রেমে জড়ানোর অভিযোগ তোলেন তাপসের স্ত্রী ফারজানা মুন্নি। অপু বিশ্বাস ও মুন্নির কল রেকর্ডিং যখন প্রকাশ্যে আসে তখন এটি আরো স্পষ্ট হয়। 

এদিকে শিল্পী সমিতির নির্বাচনকে ঘিরে চির প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে আছেন জায়েদ খান-নিপুণ আক্তার। তাদের দ্বন্দ্ব শুধু বাহাসেই সীমাবদ্ধ নেই, তা গড়িয়েছে আদালত পর্যন্ত। মামলা এখনও চলমান। সুযোগ পেলেই দুজনই গণমাধ্যমে কটাক্ষ করে মন্তব্য করেন।

 

বর্তমান সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা পরীমণি। রুপালি জগতে পা রেখে বিভিন্ন কারণে আলোচিত হয়েছেন তিনি। ভালোবেসে বিয়ে করেন শরীফুল রাজকে। বিয়ের পরে সংসার, বিয়ে, বিচ্ছেদসহ নানা কারণে আলোচনা–সমালোচনায় ছিলেন এই তারকা দম্পতি। এ নিয়ে বিভিন্ন সময় ফেসবুকে ব্যক্তিগত ভালো ও খারাপ লাগার অনুভূতি ভক্তদের সঙ্গে ভাগাভাগি করেছেন। তাদের সম্পর্কের টানাপড়েনে উঠে আসে বিদ্যা সিনহা মিম, সুনেরাহ, তানজিন তিশাদের নাম। প্রায়ই এরা বাকযুদ্ধে জড়ান।

তারকারাদের সেলিব্রিটি ক্রিকেট লিগে একদল অভিনয়শিল্পী ও কলাকুশলীরা সহকর্মীদের আরেক দলের ওপর হামলা চালান। সহকর্মীদের অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। কে কাকে দেখে নেবেন, সেগুলো নিয়েও কথা হয়, হুমকি দেন একে অন্যকে। এমনও দেখা গেছে, প্রকাশ্যে একে অন্যকে বোতল ছুড়ে মারছেন! কাউকে মেরে ফেলার মতো হুমকি দেওয়া হয়। সেগুলো দেশের গণমাধ্যমে এসেছে। দেনদরবার কম হয়নি। সেদিন ঢাকার মিরপুর ইনডোর স্টেডিয়ামে পরিচালক মোস্তফা কামাল রাজ ও দীপংকর দীপনের দলের মধ্যে খেলাকে কেন্দ্র করে এ ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে। এই হট্টগোলের দিন পক্ষে-বিপক্ষে ছিলেন মনির খান শিমুল, শরীফুল রাজ, মনোজ প্রামাণিক, মৌসুমী হামিদ, জয় চৌধুরী প্রমুখ। এখনো তারা অনেকেই একে অন্যকে এড়িয়ে চলছেন।

এদিকে ওমর সানী-জায়েদ খানের সম্পর্কটাও দা-কুমড়ার মতো। ডিপজলের ছেলের বিয়ের অনুষ্ঠানে চিত্রনায়ক জায়েদ খানকে থাপ্পড় মারা ও ওমর সানীকে পিস্তল দিয়ে গুলি করার হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠে চিত্রনায়ক জায়েদ খানের বিরুদ্ধে। তখন জানা যায়, চিত্রনায়িকা মৌসুমীকে কেন্দ্র করেই এই দ্বন্দ্বের সূত্রপাত। 

ছোট পর্দার তরুণ অভিনয়শিল্পী আরশ খান ও অভিনেত্রী রোকাইয়া জাহান চমকের মধ্যে দ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে আসে। রোকাইয়া জাহান অভিনয়ের চেয়ে অনেক বেশি আলোচনায় আসেন সহকর্মী অভিনয়শিল্পী আরশ খানের বিরুদ্ধে সরাসরি যৌন নিপীড়নের মতো গুরুতর অভিযোগ এনে। চমকের এ অভিযোগ থানা-পুলিশ পর্যন্ত গড়ায়।

অন্যদিকে বর্ষার সঙ্গে অপু বিশ্বাসের সম্পর্ক ভালো নয়, বুবলীর সঙ্গে পূজা চেরির, পপি-মাহির সঙ্গে নায়ক জায়েদ খানের সম্পর্ক ভালো নয়। বলার অপেক্ষা রাখে না মিম, সুনেরাহ, তানজিন তিশার সঙ্গে পরীমণির সম্পর্ক কেমন। সংগীতাঙ্গনে শিল্পী আসিফ আকবরের সঙ্গে শিল্পী শফিক তুহিন ও ন্যানসির দ্বন্দ্ব চরমে ওঠে; এ দ্বন্দ্ব মামলা পর্যন্ত গড়ায়। 

তারকারা তাদের নিজেদের কর্ম নিয়ে কতটা মনোযোগী? নিজের কাজ নিয়ে প্রতিযোগিতা তেমন চোখে না পড়লেও রেষারেষির বিষয়টি দৃশ্যমান। সিনেমা বা নাটকের কোনো খবর না থাকলেও তারকাদের ব্যক্তি জীবনের অনেক গল্পই দর্শকদের জানা।  এতে ব্যথিত হন ভক্তরা। চলচ্চিত্র কিংবা নাটকের প্রতি তাদের নেতিবাচক মনোভাব তৈরি হয়। এমনও শিল্পী রয়েছেন যাদের সিনেমা বা নাটকের নাম না বলতে পারলেও তাদের ব্যক্তি জীবনের অপকর্ম বা সমালোচিত বিষয়গুলো সবার জানা। 

রাহাত//

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়