RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     মঙ্গলবার   ২০ অক্টোবর ২০২০ ||  কার্তিক ৫ ১৪২৭ ||  ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

অনলাইনে শাড়ি বিক্রি করে লাখপতি তানিয়া   

সাজেদুর আবেদীন শান্ত || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:২৮, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৭:৫৪, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০
অনলাইনে শাড়ি বিক্রি করে লাখপতি তানিয়া   

করোনায় অবরুদ্ধ ছিল পুরো পৃথিবী। ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে শুরু করে শিক্ষাঙ্গনসহ সবকিছুই বন্ধ ছিল। তাই এই অবসর সময়কে কাজে লাগাতে দেশের অনেক তরুণই ইতোমধ্যে অনলাইন ব্যবসার সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়েছেন। অফলাইন ব্যবসার মতো এ ব্যবসাতেও সফলতা হাতছানি দিচ্ছে এসব তরুণকে। 

কারণ হিসেবে অনলাইনে ব্যবসা করা তরুণরা বলছে, দেশে অনলাইনে ব্যবসা চালু হওয়ায় অনেক ক্ষেত্রেই মানুষকে কষ্ট করে করোনার ঝুঁকি নিয়ে মার্কেটে যেতে হচ্ছে না। বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে দেশের তরুণরাও অনলাইন ব্যবসা-বাণিজ্যে সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। দেশের অসংখ্য নারী যুক্ত হয়েছেন অনলাইন ব্যবসায়। সাধারণ ব্যবসার মতো এখানেও সফলতা লাভ করে উদ্যোক্তা হিসাবে প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে তারা।

এমন একজন উদ্যোক্তার সফলতার গল্প বলছি আজ। তিনি একজন সংগ্রামী সফল নারী উদ্যোক্তা, ‘বিরাজবৌ’-এর স্বত্ত্বাধিকারী তানিয়া সুলতানা। সফল নারী উদ্যোক্তা তানিয়া সুলতানা জানিয়েছেন, এই সফলতার পেছনে রয়েছে শ্রম ও আনন্দ সুখের অনেক কাব্য।

ময়মনসিংহের গৃহবধূ তানিয়া সুলতানা স্বামী সন্তান সামলিয়ে অনলাইন পেজ বিরাজবৌয়ের মাধ্যমে বিক্রি করেন জামদানি শাড়ি। নিজস্ব কারিগর দ্বারা তৈরিকৃত তার শাড়িগুলোর মূল্য ৩৭০০ টাকা থেকে শুরু করে ৩৮ হাজার টাকা পর্যন্ত। শাড়িগুলো তিনি বিভিন্ন ক্রেতাদের কথা মাথায় রেখে ইএমআই সুবিধার মাধ্যমেও বিক্রি করে থাকেন। মাত্র ১৮ হাজার টাকা পুঁজি নিয়ে এই বছরের ১৩ জুলাইয়ে শুরু করেন এ অনলাইন ব্যবসা। বর্তমানে তার মোট বিক্রির অর্থের পরিমান ৪ লাখ ৮ হাজার ৭০০ টাকা।

উদ্যোক্তা হওয়ার পেছনের গল্প শুনতে চাইলে তানিয়া সুলতানা বলেন, ‘আমার অনেক দিনের স্বপ্ন ছিল ব্যবসা করা। কিন্তু কি করবো ভেবে পাইনি। অবশেষে ই-কমার্স গ্রুপ ‘উই’-এর মাধ্যমে আমি আমার লক্ষ্য স্থির করি। আসলে শুরু করাটাই ছিল আমার কাছে চ্যালেঞ্জিং। কীভাবে শুরু করবো, কী পণ্য নিয়ে কাজ করবো এই লক্ষ্য স্থির করতে পারছিলাম না। অবশেষে ভাবলাম আমি জামদানি শাড়ি নিয়ে কাজ করবো। সেই লক্ষ্যে শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের উপন্যাস ‘বিরাজবৌ’-এর চরিত্রে অনুপ্রাণিত হয়ে বিরাজবৌ নামে ফেসবুক পেজ খুলি এবং সেখান থেকে অনলাইনে পণ্যের অর্ডার নিয়ে তা কুরিয়ারের মাধ্যমে পৌঁছে দেই।’

তানিয়া সুলতানার অনলাইন ব্যবসার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার কথা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা অনলাইনেই ব্যবসা করা। আমি ট্রেড লাইসেন্সও করেছি অনলাইন ব্যবসার পরিচয় দিয়ে। আমি অনেকের স্বপ্নের শো-রুমকে দুঃস্বপ্ন হতে দেখেছি। তাই আমি চাই ওয়েবসাইট খুলে বিশ্বের বিভিন্ন দেশেও জামদানি শাড়ি ছড়িয়ে দিতে। এতে আমার স্বপ্নও ছড়িয়ে যাবে।’

লেখক: শিক্ষার্থী, বঙ্গবন্ধু কলেজ, মিরপুর। 

ঢাকা/মাহি

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়