ঢাকা     সোমবার   ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||  আশ্বিন ১৩ ১৪২৭ ||  ১০ সফর ১৪৪২

ইসরায়েল-আমিরাত চুক্তি নিয়ে নীরব সৌদি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২২:৩০, ১৪ আগস্ট ২০২০   আপডেট: ১০:৩৯, ২৫ আগস্ট ২০২০
ইসরায়েল-আমিরাত চুক্তি নিয়ে নীরব সৌদি

ইসরায়েলের সঙ্গে সংযুক্ত আরব আমিরাতের শান্তিচুক্তির ব্যাপারে এখনও নীরব রয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের প্রভাবশালী দেশ সৌদি আরব। বিশেষজ্ঞদের ধারণা, তেল আবিবের সঙ্গে রিয়াদের সম্পর্ক ইতিবাচক হলেও মূলত জনরোষের ভয়ে চুক্তির ব্যাপারে মুখ খুলছে না সৌদি সরকার।

বৃহস্পতিবার ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মধ্যস্থতায় শান্তিচুক্তি করার ঘোষণা দিয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত। মধ্যপ্রাচ্যে আমিরাত হলো ইসরায়েলের সঙ্গে শান্তিচুক্তিতে যাওয়া তৃতীয় দেশ।

গত বছর মার্কিন কংগ্রেসে সৌদির কাছে অস্ত্র বিক্রির একটি চুক্তি আটকে দেওয়া হয়েছিল। ওই সময় প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ভেটো দেওয়ায় অস্ত্র বিক্রি আটকাতে পারেনি কংগ্রেস। সেই সুবাদে স্বাভাবিকভাবেই ট্রাম্প প্রশাসনের কাছে কৃতজ্ঞ সৌদি। আবার ট্রাম্পের জামাতা জেরার্ড কুশনার মধ্যপ্রাচ্যে শান্তি প্রক্রিয়ার বিষয়টি দেখভাল করছেন। এক হিসেবে মধ্যপ্রাচ্যে ট্রাম্প প্রশাসনের নীতি নির্ধারণের বিষয়টি বহুলাংশে নিয়ন্ত্রণ করেন কুশনার। ট্রাম্পের এই জামাতার সঙ্গে দহরম-মহরম সম্পর্ক সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের।

মধ্যপ্রাচ্যে সৌদি ও ইসরায়েলের সাধারণ শত্রু ইরান। তেহরানের আঞ্চলিক প্রভাব ঠেকাতে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে তেল আবিবের সঙ্গে যৌথভাবে কাজ করতে দেখা গেছে রিয়াদকে। সব মিলিয়ে চুক্তির ব্যাপারে নেতিবাচক কোনো মন্তব্য করার পথে হয়তো হাঁটবে না সৌদি।

মধ্যপ্রাচ্য বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, ইসলাম ধর্মের দুই পবিত্র স্থানের তত্ত্বাবধায়ক হচ্ছেন সৌদি বাদশাহ সালমান। ইসলামের আরেকটি পবিত্র স্থান জেরুজালেম দখল করে রেখেছে ইসরায়েল। তাই ট্রাম্প প্রশাসনের সঙ্গে যতোই দহরম-মহরম থাক না কেন সংযুক্ত আরব আমিরাতের মতো ইসরায়েলের সঙ্গে চুক্তিতে যাওয়া কিংবা চুক্তির ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করা বাদশাহ সালমানের জন্য মুশকিল।

আজুর স্ট্যাটেজির ব্যবস্থাপনা পরিচালক নেইল কুইলিয়াম এ ব্যাপারে বলেন, ‘যখন বড় ধরনের অর্থনৈতিক সংকট চলছে তখন এ ধরনের কিছু করতে গেলে জনসমর্থন হারানোর ঝুঁকি থাকবে এবং বিষয়টি এ ধরনের দুর্বল মুহূর্তে ইরানের জন্য আশীর্বাদ হয়ে দেখা দেবে।’

ঢাকা/শাহেদ

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়