ঢাকা     রোববার   ০২ অক্টোবর ২০২২ ||  আশ্বিন ১৭ ১৪২৯ ||  ০৫ রবিউল আউয়াল ১৪১৪

ট্রাম্পে বাড়িতে তল্লাশি: সরগরম যুক্তরাষ্ট্রের রাজনৈতিক অঙ্গন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২২:৩৮, ৯ আগস্ট ২০২২   আপডেট: ২২:৫৪, ৯ আগস্ট ২০২২
ট্রাম্পে বাড়িতে তল্লাশি: সরগরম যুক্তরাষ্ট্রের রাজনৈতিক অঙ্গন

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ফ্লোরিডার বাড়িতে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআইয়ের তল্লাশি অভিযানের পর সরগম হয়ে উঠেছে মার্কিন রাজনীতি। ট্রাম্পের দল রিপাবলিকান পার্টি ও তার সমর্থকরা সরকারের তীব্র সমালোচনা শুরু করেছে। এসব সমালোচনাকে উড়িয়ে দিয়ে প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ও ডেমোক্রেট নেতা ন্যান্সি পেলোসি সাফ বলেছেন, কোনো সাবেক প্রেসিডেন্টই আইনের ঊর্ধ্বে নন।

সোমবার পাম বিচ শহরের মার-এ-লাগোতে ট্রাম্পের বাড়িতে অভিযান চালায় এফবিআইয়ের গোয়েন্দারা। সাবেক এই প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে সরকারি নথি সরানোর অভিযোগে বিচার বিভাগীয় তদন্তের অংশ হিসেবে এ তল্লাশি চালানো হয়েছে। গোয়েন্দারা এ সময় একটি সিন্দুকও ভেঙে ফেলে বলে অভিযোগ করেছেন ট্রাম্প। যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক কোনো প্রেসিডেন্টের বাড়িতে এভাবে এফবিআইয়ের তল্লাশির ঘটনা রীতিমতো নজিরবিহীন।

রিপাবলিকান পার্টির কৌশলবিদ সেথ ওয়েদারস ফ্লোরিডা ট্রাম্পের বাড়িতে এফবিআইয়ের অভিযানকে ‘সত্যিকারার্থে অবিশ্বাস্যরকম আপত্তিকর’ বলে মন্তব্য করেছেন।

তিনি বলেছেন, তল্লাশি ওয়ারেন্টের আইনি অনুমোদন রাজনৈতিকভাবে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ছিল এবং জো বাইডেনের প্রশাসন ‘সীমা ছাড়িয়েছে।’

রিপাবলিকান পার্টির ন্যাশনাল কমিটির চেয়ারপার্সন রোনা ম্যাকড্যানিয়েল বলেছেন, ‘আমাদের আবার ক্ষমতার লাগাম ধরতে হবে। আমরা তাদের থামাতে পারি,যার একমাত্র উপায় হল হাউজ এবং সিনেটে জয়লাভ করা...।’

প্রতিনিধি পরিষদে রিপাবলিকান নেতা কেভিন ম্যাকার্থি হুমকি দিয়ে বলেছেন, আসন্ন মধ্যবর্তী নির্বাচনে রিপাবলিকানরা হাউজে ফিরে আসলে এই তল্লাশি অভিযানের বিষয়ে বিচার বিভাগীয় তদন্ত করবে।

সাবেক সিনেটের ডগ জোনস বলেছেন, ‘এটি কোনো রাজনৈতিক অস্থিতিশীল প্রজাতন্ত্র নয়, যেখানে সরকার দরজা ভেঙে ঢুকে যাবে। যুক্তরাষ্ট্রের সংবিধানেই প্রক্রিয়া নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে...।’

এদিকে, প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ও ডেমোক্রেট নেতা ন্যান্সি পেলোসি বলেছেন, ‘আমরা আইনের শাসনে বিশ্বাস করি এবং এটাই আমাদের দেশ। কোনো ব্যক্তিই আইনের ঊর্ধ্বে নয়, এমনকি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টও নন।’
 

ঢাকা/শাহেদ

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়