ঢাকা     বুধবার   ২৯ মে ২০২৪ ||  জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪৩১

মা কখন অসুখী হয়?

লাইফস্টাইল ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:০৯, ১০ মে ২০২৪   আপডেট: ১৫:৪৭, ১০ মে ২০২৪
মা কখন অসুখী হয়?

ছবি: প্রতীকী

একজন মা যদি বিশ্বাস করতে শুরু করেন যে পৃথিবী ভুলে গেছে তিনিও একজন মানুষ, তাহলে তার সুখী হওয়ার সুযোগ নেই! প্রথম কথা হচ্ছে তিনি কোনো সুপারহিরো নন, যে চারপাশের সব মানুষকে ভালোবাসবেন আর ভালো রাখবেন। তিনিও পরিবারের প্রতি দায়িত্ব পালন করে বিদ্ধস্ত অবস্থায় ঘুমাতে যান। সকাল বেলায়ও তার ক্লান্তি কাটে না। বিশেষ করে মা জেগে ওঠার আগেই যদি সন্তান জেগে ওঠে তাহলে সেসব মায়েদের মানসিক স্বাস্থ্য দিন দিন খারাপ হতে শুরু করে। আর মা শারীরিক এবং মানসিকভাবে অসুস্থ থাকলে পরিবারের অন্য সদস্যদের ওপর এর নেতিবাচক প্রভাব পড়ে।

মা দিবস উপলক্ষে রাইজিংবিডি জানতে চেষ্টা করেছে মা কখন নিজেকে অসুখী মনে করেন? এক একজন মা এক এক রকম উত্তর দিয়েছেন। কথাসাহিত্যিক পাপড়ি রহমান বলেছেন, যখন বাবা রিল্যাক্স থেকে মায়ের ওপর সব দায়িত্ব চাপিয়ে দেয়। আর সন্তানের কাছে মায়ের নামে মিথ্যাচার করে।

সাংবাদিক শরীফা খাতুন শিউলি বলেন, সন্তানের সামনে মাকে অপমান করলে মা নিজেকে অসুখী মনে করেন।

সাংবাদিক তানজিনা আফরিন ইভা বলেন, সন্তানের খারাপ কিছু হলে মা নিজেকে অসুখী মনে করেন।

সত্য কথা বলতে আসলে এমন হাজারটা কারণ আছে। তবে একজন মায়ের ব্যাখ্যায় এক এক কারণ বড় হয়ে দেখা দেয়। 

ডা. শেরিল জিগলার টেড টক-এ এক বক্তৃতায় উল্লেখ করেন যে, কেন নিজেকে অসুখী মনে হচ্ছে? এই প্রশ্নটি নিজেকে করুন।

জিগলার বলেন, মা হওয়ার পরে মনে হতে পারে তিনি বন্দি হয়ে পড়েছেন। কারণ তার বন্ধুবান্ধব, পরিচিতজনদের সঙ্গে আগের মতো কথা বলার বা বেড়াতে যাওয়ার সুযোগ থাকে না। হঠাৎ তিনি নিজেকে একা মনে করতে শুরু করেন। তখন তিনি সন্তানের প্রতিও রাগ শুরু করতে পারেন। ওই কঠিন অবস্থায় মায়ের উচিত স্থান ত্যাগ করা। প্রয়োজনে বেডরুম থেকে ওয়াশরুমে চলে যেতে পারেন। কারণ সন্তানের প্রতি রাগ প্রকাশের অভিজ্ঞতা মাকে আরও বেশি অসুখী করে তুলতে পারে। 

জিগলারের পরামর্শ, সন্তানের সঙ্গে ঘুমানো এবং সন্তানের সঙ্গে জেগে ওঠার অভ্যাস থাকলে নিজেকে আরও বেশি ক্লান্ত মনে হতে পারে। সন্তান জেগে ওঠার আগেই জেগে উঠতে পারেন। নিজেকে একটু পরিপাটি করে নিতে পারেন। এটা খুব স্বাভাবিক যে মা হিসেবে আপনার অনেক দুশ্চিন্তা থাকবে, আবার এটাও স্বাভাবিক যে সেসব দুশ্চিন্তা নিয়েই কাজ করে যেতে হবে। খুব ক্লান্ত অনুভব হলে প্রিয় মানুষদের সঙ্গে কথা বলুন, তাদের পরামর্শ নিন। দেখবেন ভালো লাগছে।

সন্তানের প্রতি ভালোবাসার প্রকাশ মাকে সুখী করতে পারে। সন্তানের বেড়ে ওঠা, বদলে যাওয়া; এসব দৃশ্য একজন মাকে অপার্থিব সুখানুভূতি দিতে পারে। কখনও মা হিসেবে নিজেকে ব্যর্থ মনে হলে, নিজেকে বার বার মনে করিয়ে দিতে পারেন যে, মাতৃত্ব একটি কঠিন দায়িত্ব। এই দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে একেবারে পারফেক্ট হওয়ার কোনো সুযোগ নেই।

/লিপি

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়