Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ২৮ অক্টোবর ২০২১ ||  কার্তিক ১২ ১৪২৮ ||  ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

Risingbd Online Bangla News Portal

লকডাউনে ঢাকায় গাড়ির চাপ বেড়েছে 

নিজস্ব প্রতিবেদক  || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৩:৪৯, ২৩ এপ্রিল ২০২১  
লকডাউনে ঢাকায় গাড়ির চাপ বেড়েছে 

করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে দেশে লকডাউন চলছে। চলমান লকডাউনের নবম দিন শুক্রবার (২৩ এপ্রিল) ঢাকার সড়কে গাড়ির চাপ বেড়েছে।

সকাল থেকে রাজধানীর সড়কেও প্রচুর সংখ্যক ব্যক্তিগত গাড়ি, রিকশা, অটোরিকশা, পণ্যবাহী ছোট-বড় ট্রাক, কাভার্ড ভ্যান ও অ্যাম্বুলেন্স চলছে। রাজধানীর গুলিস্তান, শনিরআখড়াসহ কয়েকটি এলাকায় এই চিত্র দেখা গেছে।

গুলিস্তান, কাপ্তানবাজার, আলুবাজার, সিদ্দিকবাজার, বংশাল, নয়াবাজার, বাবুবাজার সড়কের একদিক বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। সড়কের বিভিন্ন জায়গায় বসানো হয়েছে চেকপোস্ট। এরফলে যানবহন একদিকে চলাচল করায় সড়কের ট্রাফিক সিগন্যালে জ্যাম লাগছে। 

মহাখালী, নাবিস্কো, সাতরাস্তাসহ বিভিন্ন পয়েন্টে গাড়ির চাপ রয়েছে। তিন রাস্তা এবং চৌরাস্তায় ট্রাফিক সিগন্যালে গাড়ির লাইন ছিলো। 

কাপ্তানবাজারে কথা হয় কাভার্ড ভ্যান চালক আব্দুর রহমানের সঙ্গে। তিনি বলেন, গণপরিবহন ছাড়া সব ধরনের গাড়ি চলাচল করছে। রাজধানীর বিভিন্ন সড়কের একপাশ বন্ধ করে দেওয়ায় অন্যপাশ দিয়ে গাড়ি আসা-যাওয়া করায় যানজট লেগে যাচ্ছে। তার বাবুবাজার থেকে কাপ্তানবাজর আসতে ৪০ মিনিট সময় লেগেছে।

গুলিস্তানে কথা হয় গণমাধ্যমে কর্মরত আবির রায়হানের সঙ্গে। তিনি বলেন, লকডাউনে সড়কে মানুষজনের চলাচল বাড়ছে। গণপরিবহন ছাড়া সব পরিবহণ চলাচল করছে। অন্যসময়ের মতো সড়কে জ্যামও লাগছে। যদিও সেটা অল্পক্ষণের জন্য। তিনি বলেন, ‘ঢাকায় লকডাউনে কড়াকড়ি নেই। ঢিলেঢালা অবস্থা। মানুষ অসচেতন। রাস্তার চিত্র দেখলে মনে হয় করোনাভাইরাস সংক্রমণের মধ্যে নেই আমরা।’   

গুলিস্তানের ফুলবাড়িয়া চেকপোস্টে দায়িত্বরত ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) উপপরিদর্শক (এসআই) সোহেল হোসেন বলেন, মুভমেন্ট পাস,  জরুরি সেবা ছাড়াও মানুষ বিভিন্ন অজুহাতে মানুষ রাস্তায় বের হচ্ছে। অনেকে বিনা কারণে রাস্তায় ঘোরাফেরা করছে। অনেকের কোনো কাজ নেই, তারপরও ব্যক্তিগত গাড়ি নিয়ে বাইরে ঘুরছেন। লকডাউনের প্রথমদিকে যে ছিল দৃশ্য, আজকে সেরকম নেই। 

পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, কাজ ছাড়া যারা বাসা থেকে বের হচ্ছেন, তাদের বুঝিয়ে বাসায় ফেরত পাঠানো হচ্ছে। 
 

আসাদ/বকুল 

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়