Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     রোববার   ১৭ অক্টোবর ২০২১ ||  কার্তিক ১ ১৪২৮ ||  ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

গান্ধী আশ্রম ট্রাস্টি বোর্ড বিল সংসদে উত্থাপন

সংসদ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৩:০৫, ৩ জুলাই ২০২১  
গান্ধী আশ্রম ট্রাস্টি বোর্ড বিল সংসদে উত্থাপন

নোয়াখালীতে প্রতিষ্ঠিত গান্ধী আশ্রমের সম্পত্তি রক্ষণাবেক্ষণ ও পরিচালনার জন্য গান্ধী আশ্রম ট্রাস্টি বোর্ড বিল সংসদে উত্থাপন করা হয়েছে।

শনিবার (৩ জুলাই) স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে জাতীয় সংসদ অধিবেশনে বিলটি উত্থাপন করেন আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক।

পরে বিলটি অধিকতর যাচাই-বাছাইয়ের জন্য আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে পাঠানো হয়। যাচাই-বাছাই শেষে আগামী ৬০ কর্মদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

সামরিক অধ্যাদেশ বাতিল করে আইনটি বলবৎ করার উদ্দেশ্যে গান্ধী আশ্রম ট্রাস্টি বোর্ড আইন-২০২১ যুগোপযোগী করার জন্য এ বিলটি সংসদে আনা হয়েছে।

বিলে বলা হয়, গান্ধী ট্রাস্টি বোর্ডের প্রধান কার্যালয় নোয়াখালীতে থাকবে। তবে, বোর্ড প্রয়োজনবোধে সরকারের অনুমোদনক্রমে বাংলাদেশের যেকোনো স্থানে তার আঞ্চলিক কার্যালয় বা শাখা স্থাপন করতে পারবে।

একজন চেয়ারম্যান ও ছয়জন ট্রাস্টির সমন্বয়ে ট্রাস্টি বোর্ড গঠিত হবে। চেয়ারম্যান ও ট্রাস্টিরা সরকারের মনোনীত হবেন। চেয়ারম্যান ও ট্রাস্টিরা তাদের মনোনয়নের তারিখ থেকে তিন বছর পর্যন্ত স্বপদে বহাল থাকবেন। তবে, শর্ত আছে যে, সরকার চেয়ারম্যান বা ট্রাস্টিদের মেয়াদ শেষ হওয়ার আগে তাদের মনোনয়ন বাতিল করতে পারবে।

ট্রাস্টি বোর্ডে একজন সচিব থাকবেন। সচিবকে নিয়োগ দেবে বোর্ড। তার চাকরির মেয়াদ ও শর্তাবলী বোর্ডের স্বীকৃত হবে। সচিব বোর্ডের প্রধান নির্বাহী হবেন। তিনি বোর্ড নির্ধারিত দায়িত্ব পালন ও ক্ষমতা প্রয়োগ করবেন। সচিবের পদ শূন্য হলে কিংবা অনুপস্থিতি, অসুস্থতা বা অন্য কোনো কারণে সচিব তার দায়িত্ব পালনে অসমর্থ হলে শূন্য পদে নবনিযুক্ত সচিব যোগদান না করা পর্যন্ত কিংবা সচিব পূর্ণ দায়িত্ব পালনে সামর্থ্য না হওয়া পর্যন্ত বোর্ড নিযুক্ত ব্যক্তি সচিবের দায়িত্ব পালন করবেন।

ট্রাস্টি বোর্ডের একটি তহবিল থাকবে। সরকারি অনুদান, কোনো স্থানীয় কর্তৃপক্ষ, ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের অনুদান, ব্যাংকে গচ্ছিত অর্থ থেকে আয়, সরকারের অনুমোদনক্রমে বিদেশি সরকার বা সংস্থা থেকে পাওয়া অনুদান বা ঋণ, অন্য কোনো বৈধ উৎস থেকে পাওয়া অর্থ, গান্ধী আশ্রমের অধীন প্রতিষ্ঠান থেকে পাওয়া অর্থ এবং গান্ধী আশ্রমে উৎপাদিত পণ্য বিক্রি থেকে প্রাপ্ত আয় এ তহবিলে থাকবে।

বিলের উদ্দেশ্য সম্পর্কে আইনমন্ত্রী বলেছেন, ‘নোয়াখালী জেলার জয়াগ নামক স্থানে প্রতিষ্ঠিত গান্ধী আশ্রমের সম্পত্তি রক্ষণাবেক্ষণ ও পরিচালনার জন্য গান্ধী আশ্রম ট্রাস্টি বোর্ড অর্ডিন্যান্স-১৯৭৫ এর মাধ্যমে একটি ট্রাস্টি বোর্ড গঠন করা হয়। সামরিক অধ্যাদেশ বাতিল করে আইনটি কার্যকর করার জন্য বিলটি উত্থাপন করা হয়েছে।’

ঢাকা/আসাদ/রফি

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়