ঢাকা     মঙ্গলবার   ১৬ আগস্ট ২০২২ ||  ভাদ্র ১ ১৪২৯ ||  ১৭ মহরম ১৪৪৪

জ্বালানির দাম বৃদ্ধি, ১৫০ টাকার ভাড়া হাঁকা হচ্ছে ২৫০

মেসবাহ য়াযাদ || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:০৯, ৬ আগস্ট ২০২২   আপডেট: ১৫:১১, ৬ আগস্ট ২০২২
জ্বালানির দাম বৃদ্ধি, ১৫০ টাকার ভাড়া হাঁকা হচ্ছে ২৫০

জ্বালানির দাম বাড়ায় দুশ্চিন্তা বেড়েছে রাইড শেয়ারিং চালকদেরও

শুক্রবার (৫ আগস্ট) রাতে মাত্র দুই ঘণ্টার নোটিশে পেট্রোল ৪৪ ও অকটেন ৪৬ টাকা লিটার প্রতি বাড়ার কারণে দুশ্চিন্তায় পড়েছেন রাইড শেয়ারিং মোটরসাইকেল চালকরা। শনিবার রাজধানীর শাহবাগ, বাংলামোটর, কারওয়ান বাজার, ফার্মগেট এলাকায় কয়েকজন পাঠাও চালক এই প্রতিবেদকের কাছে জ্বালানি তেলের দাম বাড়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন। 

শাহবাগ থেকে মিরপুর-১ যাবেন মিজানুর রহমান। অনেকক্ষণ দাঁড়িয়েও কোনো গণপরিবহন না পেয়ে পাঠাওতে যেতে চাইলে পাঠাও দাম চাইলো ২৫০ টাকা। এই নিয়ে পাঠাও চালকের সঙ্গে তার বাগ-বিতণ্ডা হয়। যাত্রী মিজানুর রাইজিংবিডিকে বলেন, ১৫০ থেকে ১৭০ টাকা ভাড়া। অথচ পাঠাও চাইলো ২৫০ টাকা। এটা কি মগের মুল্লুক?

পাঠাও চালক ফারুক বলেন, তেলের দাম যে ৪৬ টাকা বাড়লো প্রতি লিটারে? আমরা এখন কী করবো? দুই সন্তান নিয়ে কীভাবে চলবো? গত দুই বছর ধরে পাঠাও চালিয়ে কোনো মতে সংসার চালাচ্ছি।

কারওয়ান বাজার থেকে মতিঝিল যেতে  পাঠাও চালক ১৫০ টাকা দাবি করলেন। মতিঝিল যেতে চাওয়া যাত্রী মামুনুর রশীদ ক্ষেপে গিয়ে বললেন, ১০০ টাকাও ভাড়া হয় না অথচ চাইছে ১৫০ টাকা। এরা যাত্রীদের ওপর অনেক জুলুম করে। তেলের মূল্য যে ৪৪ থেকে ৪৬ টাকা প্রতি লিটারে বেড়েছে- এটা শোনার পর তিনি অবশ্য আর কথা বাড়াননি।

কারওয়ান বাজার থেকে গুলশান-১ যাবেন আরেক যাত্রী। সোনারগাঁয়ের সামনের রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকা এক মোটরসাইকেল চালকের কাছে ভাড়া জানতে চাইলে তিনি ১৭০ টাকা চান। ওই যাত্রী ১৫০ টাকা বললেও বাইকার যেতে রাজি হলেন না। রাইড শেয়ারিং করা ওই মোটরসাইকেল চালক বলেন, গতকাল হলেও ১২০ টাকায় যেতাম। হঠাৎ ৪৫ থেকে ৫০ ভাগ তেলের দাম বাড়িয়েছে সরকার। আমরা কী করবো? আমার তো সেই হিসেব অনুযায়ী ভাড়া ঠিক করতে হবে।

মো. মনজু মিয়া নামের এক শেয়ার রাইড চালক শাহবাগে জানালেন, তেলের দাম বেড়েছে অস্বাভাবিক হরে। আমাদের সেটা ভাড়া বাড়িয়ে তুলতে হবে। নইলে টাকা অ্যাডজাস্ট করবো কিভাবে? আমার বাইক ৩০ কিলো চলে এক লিটার তেলে। আগে প্রতি কিলো পড়তো ৩ টাকা, এখন পড়ছে প্রায় ৫ টাকা। আমাদের কী করণীয় বলুন?

এদিকে, তেলের দাম বাড়ার কারণে সকাল থেকে রাজধানী জুড়ে গণপরিবহন চলছে না বললেই চলে। বিকালে বিআরটিএ কর্তৃপক্ষ নতুন ভাড়া নির্ধারণের পর বাস মালিকরা তাদের বাস রাস্তায় নামাবেন। বাসের সম্ভাব্য ভাড়া বৃদ্ধি প্রসঙ্গ টেনে রাইড শেয়ারিং চালক মহসিন বলেন, বাসের ভাড়া বাড়লে আমাদের ভাড়াও বাড়বে। আমাদেরও তো বেশি দামে তেল কিনতে হচ্ছে। আমরা ভাড়া বেশি চাচ্ছি বলে মানুষ রাগ করছে, বাজে কথা বলছে।

রাইড শেয়ারিং চালকদের অনেকে বলেছেন, কোম্পানি থেকে নতুন করে অ্যাপস আপডেট করে ভাড়া নির্ধারণ করে দিক। আমরা অ্যাপসেই রাইড শেয়ার করবো। অনেকেই আছেন, অ্যাপসে যেতে চান, আমরাও সেটা চাই। তাইলে আর যাত্রীদের সঙ্গে কোনো ঝামেলা হবে না। যতদিন তা না হচ্ছে, এভাবে দরদাম করেই যেতে হবে, এছাড়া আর উপায় কী!

শুক্রবার (৫ আগস্ট) মধ্যরাত থেকেই কার্যকর হয়েছে সরকার ঘোষিত ডিজেল, পেট্রোল, কেরোসিন, ও অকটেনের নতুন দাম। প্রতি লিটার ডিজেল ও কেরোসিনের দাম বেড়েছে ৩৪ টাকা , পেট্রোলের দাম ৪৪ টাকা এবং অকটেনের দাম লিটার প্রতি ৪৬ টাকা। দাম বাড়ার পর প্রতি লিটার ডিজেল ও কেরোসিন ১১৪ টাকা, পেট্রল ১৩০ টাকা এবং অকটেন ১৩৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। 


 

 মেয়া/এমএম

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়