ঢাকা     সোমবার   ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||  ফাল্গুন ১৪ ১৪৩০

প্রকৌশল খাতে নারীদের চাকরি ও দক্ষতা বাড়াতে সহযোগিতা করবে নেদারল্যান্ডস

কূটনৈতিক প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:২৭, ১৬ নভেম্বর ২০২৩   আপডেট: ১৮:২৭, ১৬ নভেম্বর ২০২৩
প্রকৌশল খাতে নারীদের চাকরি ও দক্ষতা বাড়াতে সহযোগিতা করবে নেদারল্যান্ডস

বাংলাদেশে প্রকৌশল বিষয়ে পড়াশোনা করা নারীদের চাকরির সুযোগ তৈরি ও দক্ষতা উন্নয়নে সহযোগিতা করবে নেদারল্যান্ডস। শি-স্টেম (She-STEM) এর আওতায় দেশে বিজ্ঞান ও প্রকৌশল খাতে চাকরিতে নারীর অংশগ্রহণ বাড়ানোর লক্ষ্যে বাংলাদেশস্থ নেদারল্যান্ডস দূতাবাসের সঙ্গে সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর করেছে দেশের বিজনেস কনসালট্যান্ট প্রতিষ্ঠান লাইটক্যাসল পার্টনার্স ও শি-স্টেমভিত্তিক কনসোর্টিয়াম। শি-স্টেম একটি ফ্ল্যাগশিপ প্রকল্প, যার মূল লক্ষ্য বিজ্ঞান ও ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে পড়াশোনা করা নারীদের চাকরির সুযোগ তৈরি ও দক্ষতা উন্নয়নে কাজ করা।

এই চুক্তির আওতায় নারীদের বিজ্ঞান, প্রযুক্তি, প্রকৌশল, গণিত—চারটি বিষয়ে বিশেষ পড়শোনা ও দক্ষতা উন্নয়নের মাধ্যমে চাকরির সুযোগ ও প্রবেশেগম্যতায় সহযোগিতা করবে শি-স্টেম কনসোর্টিয়াম। প্রকল্পের মেয়াদ নির্ধারণ করা হয়েছে চলতি বছরের নভেম্বর থেকে ২০২৬ সালের এপ্রিল পর্যন্ত।

লাইটক্যাসল পার্টনার্সের নেতৃত্বে কনসোর্টিয়ামের অন্যান্য অংশীদাররা হলো: তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন এ টু আই কর্মসূচি, অনলাইনভিত্তিক শিক্ষা প্ল্যাটফর্ম টেন মিনিট স্কুল, পলিসি এক্সচেঞ্জ বাংলাদেশ এবং ডেভলার্ন।

বুধবার (১৫ নভেম্বর) ঢাকার নেদারল্যান্ডস দূতাবাসের সঙ্গে পাঁচ সদস্য বিশিষ্ট এই কনসোর্টিয়ামের চুক্তি হয়।

নেদারল্যান্ডস দূতাবাসের পক্ষ থেকে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন দূতাবাসটির চার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্স ওয়াউড স্ট্রা এবং শি-স্টেম কনসোর্টিয়ামের পক্ষে চুক্তি স্বাক্ষর করেন লাইটক্যাসল পার্টনার্সের প্রধান নির্বাহী কর্মকতা (সিইও) বিজন ইসলাম। 

ঢাকাস্থ নেদারল্যান্ডস দূতাবাসের কার্যালয়ে আয়োজিত চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পলিসি এক্সচেঞ্জ বাংলাদেশের চেয়ারম্যান মাশরুর রিয়াজ, এটিুআই’র ফিউচার অব এডুকেশনের প্রধান আফজাল হোসেন সারওয়ার, টেন মিনিট স্কুলের চিফ অপারেটিং অফিসার (সিওও) মির্জা সালমান বেগ, ডেভলার্নের এমইএল উপদেষ্টা নাইম কাসেম ও নেদারল্যান্ডস দূতাবাসের সংশ্লিষ্ট কর্মকতারা।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, বিশ্বব্যাংকের ২০২০ সালের তথ্য অনুযায়ী, কর্মক্ষেত্রে নারীদের অংশগ্রহণের হার বাংলাদেশে ৪৩, ভারতে ২৪ ও পাকিস্তানে ২৫ শতাংশ। বাংলাদেশে নারীরা কর্মক্ষেত্রে প্রতিবেশী দেশ ভারত, পাকিস্তানের তুলনায় এগিয়ে থাকলেও তা এখনও আশাব্যাঞ্জক নয়। বিশেষ করে, বিজ্ঞান ও প্রকৌশল খাতের চাকরির ক্ষেত্রে সাফল্য অনেক কম।

শি-স্টেম (She-STEM) হলো বহু বছরের কনসোর্টিয়াম-চালিত কর্মসূচি। এরর লক্ষ্য: নারীদের বিজ্ঞান ও প্রকৌশলভিত্তিক চাকরির ক্ষেত্রে দক্ষ করা ও অগ্রাধিকার দেওয়া। এর পাশাপাশি এটি বিশ্ববিদ্যালয়ের নারী শিক্ষার্থীদের বিশেষ দক্ষতা ও কর্মক্ষেত্র প্রসারে অ্যাডভোকেসি করে থাকে। এই প্রকল্প শুধু নারীদের আগ্রহী করে তুলতে নয়, বরং গুরুত্বপূর্ণভাবে তাদের বৃদ্ধি, বিকাশ এবং অগ্রগতির সহায়ক হিসেবে কাজ করে।

হাসান/রফিক

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়