ঢাকা     সোমবার   ১৫ জুলাই ২০২৪ ||  আষাঢ় ৩১ ১৪৩১

ঈদের ছুটি শেষে ঢাকায় ফিরছে মানুষ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:০৩, ২২ জুন ২০২৪   আপডেট: ১৫:০৬, ২২ জুন ২০২৪
ঈদের ছুটি শেষে ঢাকায় ফিরছে মানুষ

এবারের ঈদুল আজহার ছুটিতে লম্বা সময় ধরে প্রিয়জনদের সাথে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করেছেন অনেকেই। ঈদের পরের সপ্তাহে অফিস শুরু হওয়ার আগের দিন তারা ঢাকায় ফিরছেন। ফলে সড়ক পথের পাশাপাশি ঢাকায় ফেরা ট্রেনগুলোতেও যাত্রীদের ভিড় দেখা গেছে। তবে ঈদযাত্রায় ফিরতি ট্রেন-লঞ্চ ও বাসে যাত্রীর চাপ খুব বেশি নেই। এ জন্য অনেকটা স্বস্তিতে ফিরছে মানুষ। পাশাপাশি অনেকেই আবার ঈদের সময় ছুটি না পাওয়ায় ঈদের পরে ছুটি নিয়ে পরিবারকে সময় দিতে ঢাকা ছাড়ছেন। 

গত সোমবার (১৭ জুন) সারা দেশে উদযাপিত হয় পবিত্র ঈদুল আজহা। এর আগেই ঢাকা ছাড়ে মানুষ। ঈদের ছুটি শেষে সরকারি প্রতিষ্ঠান খুলেছে গত বুধবার (১৯ জুন)। বেশিরভাগ সরকারি চাকরিজীবী ঢাকায় ফিরেছেন। এখন বেসরকারি চাকরিজীবী, ব্যবসায়ী ও শিক্ষার্থীরা ঢাকায় ফিরতে শুরু করেছেন।

শনিবার (২২ জুন) রাজধানীর কমলাপুর রেলস্টেশন, সদরঘাট, গাবতলী, সায়েদাবাদ ও মহাখালী বাস টার্মিনাল ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে। 

গাবতলী বাস টার্মিনাল ঘুরে দেখা গেছে, স্বাভাবিক সময়ের তুলনায় বেশি যাত্রী নিয়ে দূরপাল্লার বাস গাবতলীতে ঢুকছে। অর্থাৎ ঈদে বাড়ি যাওয়া মানুষগুলো এখনো ঢাকায় ফিরছেন। তবে যানবাহনের চাপ কম থাকায় আমিনবাজার ব্রিজ (পর্বতা) থেকে মাজার রোড পর্যন্ত বেশিরভাগ সময় ফাঁকা ছিল। 

বগুড়া থেকে ঢাকায় ফেরা আব্দুল্লাহ আল মামুন নামের একজন বেসরকারি চাকরিজীবী বলেন, বছরের যে কোনো একটি ঈদে বাড়ি যাওয়া হয়। তাই কোরবানি ঈদে বাড়তি ছুটি নিয়ে বাড়ি গিয়েছিলাম পরিবারের সদস্যসহ। তবে ছুটি তাড়াতাড়ি শেষ হওয়ায় পরিবারের অন্যদের রেখে এসেছি। 

সকালে সদরঘাট লঞ্চঘাটেও একই অবস্থা দেখা গেছে। স্বস্তিতে নির্বিঘ্নে ঢাকায় ফিরছে ঈদে গ্রামে যাওয়া মানুষ। যাত্রীর তেমন চাপ নেই। লঞ্চঘাটেও ঈদে যারা যেতে পারেননি তারা এখন গ্রামে যাচ্ছেন। 

তবে কমলাপুর স্টেশনে দেখা গেছে অনেকটা ভিন্ন চিত্র। শনিবার (২২ জুন) সকালে প্ল্যাটফর্মে গিয়ে দেখা যায়, ঢাকায় ফিরতি ট্রেনগুলোতে যাত্রীদের ভিড় রয়েছে। এছাড়া নির্ধারিত সময় থেকে ট্রেনগুলো স্টেশনে পৌঁছাতে এক থেকে দেড় ঘণ্টা পর্যন্ত দেরি করেছে। 

ঢাকা রেলওয়ে স্টেশনে শিডিউল বোর্ডের তথ্য অনুযায়ী, চিলাহাটিগামী নীলসাগর এক্সপ্রেস ভোর ৬টা ৪৫ মিনিটে ঢাকা স্টেশন ছেড়ে যাওয়ার কথা থাকলেও সেটি বেশ বিলম্বে সকাল ৯টায় ঢাকা স্টেশন ছাড়ে। লালমনিরহাটগামী বুড়িমারী এক্সপ্রেস সকাল সাড়ে ৮টায় ঢাকা ছেড়ে যাওয়ার কথা থাকলেও ট্রেনটি ঢাকায় পৌঁছায় সকাল ৯টায়। দেওয়ানগঞ্জগামী দেওয়ানগঞ্জ ঈদ স্পেশাল সকাল ৯টা ২৫ মিনিটে ছেড়ে যাওয়ার কথা থাকলেও সেটি সময় মতো ছেড়ে যায়নি। 

ঢাকা রেলওয়ে স্টেশন কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সকাল থেকেই ট্রেনগুলোতে যাত্রীদের ভিড় বেশি। বিভিন্ন জায়গা থেকে ট্রেনগুলো দেরিতে আসায় ঢাকা স্টেশন থেকে দেরিতে ছেড়ে যায়। ঢাকা স্টেশন থেকে আলাদাভাবে দেরিতে ছেড়ে যাওয়ার কোনো কারণ নেই।

ঢাকা/হাসান/ইমন

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়