RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     রোববার   ২৫ অক্টোবর ২০২০ ||  কার্তিক ১০ ১৪২৭ ||  ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

‘আঘাত করেও থামানো যায় না মেসিকে’

ক্রীড়া ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:১১, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০  
‘আঘাত করেও থামানো যায় না মেসিকে’

ফুটবল মাঠে লিওনেল মেসির দুই পায়ের জাদুতে মুগ্ধ হয় ফুটবল বিশ্ব। মুগ্ধ হয় প্রতিপক্ষও। তবে ডিফেন্ডাররা তাতে খুব বেশি খুশি হন না। আর তাই মেসিকে আটকাতে বিভিন্ন পরিকল্পনা আঁটেন তারা। প্রয়োজনে আঘাত করতেও পিছপা হন না। তবে লিভারপুলের লেফট ব্যাক অ্যান্ডি রবার্টসন জানিয়েছেন, আঘাত করেও থামানো যায় না মেসিকে।

সদ্য শেষ হওয়া মৌসুম শেষে প্রিমিয়ার লিগে মেসির যোগদানের গুঞ্জন চলছিল। সেই পথে ম্যানচেস্টার সিটি বেশ দূর এগিয়েছিল। তবে বার্সেলোনার সঙ্গে বিশাল রিলিজ ক্লজের ফাঁদে পড়ে কাতালান ক্লাবটিতে থাকতে হচ্ছে মেসিকে। হয়ত সামনের মৌসুমে ম্যানসিটি আবার চেষ্টা করবে মেসির জন্য। কারণ, তখন ফ্রি ট্রান্সফারে দলবদলের সুযোগ থাকবে মেসির সামনে।

তবে আপাতত মেসি ম্যান সিটিতে না আসায় তৃপ্তির নিশ্বাস ফেলছেন লিভারপুলের লেফট ব্যাক রবার্টসন। কারণ, এই মৌসুমে মেসিকে আটকানোর দায়িত্ব আর তার উপর পড়ছে না। স্কটিশ এই ফুটবলার মনে করেন, মেসির বিপক্ষে খেলা মানসিকভাবে খুবই চ্যালেঞ্জিং। আর তাই মেসির প্রিমিয়ার লিগে আসার খবরে খুব একটা খুশি হতে পারেননি তিনি।

দ্য টাইমসকে এ স্কটিশ ডিফেন্ডার বলেছেন, ‘আমি মোটেও খুশি ছিলাম না। কেননা ম্যান সিটিকে অনন্য পর্যায়ে নিয়ে যেতেন মেসি। তারা এখনই বিশ্বমানের দল। এর সঙ্গে আবার বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়কে দলে পেলে, তারা অনন্য দল হতো।’

এরপরই মেসির বিপক্ষে খেলার কথা টেনে এনে রবার্টসন আরও যোগ করেন, ‘আপনি যখন মেসির বিপক্ষে খেলেন, তখন দুইবার ভাবতে বাধ্য। কেননা সে কখন ডানে, কখন বামে যাবে কেউ জানে না। মানসিকভাবে এটা বেশ কঠিন।’

স্কটিশ এই ডিফেন্ডার আরও যোগ করেন। বিশ্বের অন্যতম সেরা এই ফুটবলারকে আঘাত করেও আটকানো সম্ভব হয় না। পরমুহূর্তে মেসি উঠে দাঁড়িয়ে আবার বল পায়ে ত্রাস ছড়ান প্রতিপক্ষ শিবিরে।

রবার্টসনের ভাষ্যে, ‘মানুষ প্রায়ই মনে করে, মেসিকে থামানোর একমাত্র উপায় হলো লাথি মারা। কিন্তু সে সঙ্গে সঙ্গে উঠে দাঁড়ায় এবং বুঝিয়ে দেয়, বলটা আমাকে দাও। সত্যিই অসাধারণ খেলোয়াড়। সে যখন বুটজোড়া তুলে রাখবে তখন সর্বকালের সেরা খেলোয়াড় হিসেবে ডিয়েগো ম্যারাডোনা এবং পেলের কাতারেই থাকবে।’

ঢাকা/কামরুল

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়