ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ২৪ মে ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

‘ইসরায়েল একটি সন্ত্রাসী রাষ্ট্র’

সাইফুল আহমেদ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৮-০৫-১৫ ১১:২১:০৮ এএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৫-১৫ ২:৩৪:৩৫ পিএম

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ইসরায়েলকে একটি সন্ত্রাসী রাষ্ট্র হিসেবে অভিহিত করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান।

সোমবার জেরুজালেমে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস উদ্বোধনকে কেন্দ্র করে ইসরায়েলি বাহিনীর গুলিতে ৫৫ ফিলিস্তিনি নিহত হওয়ার ঘটনায় এরদোয়ান এ কথা বলেন।

এরদোয়ান বলেন, ‘ইসরায়েল একটি সন্ত্রাসী রাষ্ট্র। তারা যেভাবে নিরস্ত্র নিরীহ ফিলিস্তিনিদের হত্যা করছে তা কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না।’

ইসরায়েল ও যুক্তরাষ্ট্র থেকে রাষ্ট্রদূত ডেকে পাঠিয়েছে তুরস্ক
এ ঘটনার প্রতিবাদে ইসরায়েল ও যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত নিজেদের রাষ্ট্রদূতকে ডেকে পাঠিয়েছে তুরস্ক।

তুরস্কের উপপ্রধানমন্ত্রী বেকির বোজদাগ জানান, ওয়াশিংটন ডিসি ও তেল আবিবে থাকা কূটনীতিকদের পরামর্শের জন্য তুরস্কে ডেকে পাঠানো হয়েছে।

তিনি আরো জানান, ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে ভ্রাতৃত্ব দেখানোর জন্য তুরস্কে তিন দিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করা হয়েছে।

ওআইসি ও জাতিসংঘের বৈঠক আহ্বান
ইসরায়েলি বাহিনীর হাতে নিরীহ ফিলিস্তিনি নিহতের ঘটনায় বিশ্বের মুসলিম দেশগুলোর সংগঠন অরগানাইজেশন অব ইসলামিক কো-অপারেশনের (ওআইসি) জরুরি বৈঠক আহ্বান করেছে তুরস্ক। আগামী শুক্রবার এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হতে পারে। একইসঙ্গে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের বৈঠকও আহ্বান করেছে দেশটি।

সোমবার ফিলিস্তিনিদের প্রতিবাদের সময় তাদের ওপর গুলি, টিয়ার গ্যাস শেল ও আগুনের বোমা নিক্ষেপ করে ইসরায়েলি বাহিনী। এ ঘটনায় এ পর্যন্ত ৫৫ জন নিহতের পাশাপাশি ২৭০০ লোক আহতও হয়েছে।

ফিলিস্তিনি কর্মকর্তাদের মতে, ২০১৪ সালের যুদ্ধের পর এ হতাহতের ঘটনা সবচেয়ে বড়।

দক্ষিণ আফ্রিকার রাষ্ট্রদূত প্রত্যাহার
এ ঘটনার নিন্দা জানিয়ে ইসরায়েল থেকে নিজেদের রাষ্ট্রদূত অনির্দিষ্টকালের জন্য প্রত্যাহার করে নিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকাও। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘ইসরায়েলের সর্বশেষ নির্বিচার ও উদ্বেগ সৃষ্টিকারী আক্রমণে দক্ষিণ আফ্রিকা সরকার তাদের রাষ্ট্রদূত সিসা নগমবানেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত প্রত্যাহার করে নিচ্ছে। এই সিদ্ধান্ত তাৎক্ষণিক কার্যকর হবে।’

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, ‘ইসরায়েলি হামলার শিকাররা জেরুজালেমে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস স্থানান্তরের উস্কানিমূলক ঘটনায় শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদে অংশ নিচ্ছিল। তার বিপরীতে তাদের ওপর ইসরায়েলি বাহিনী সহিংস আগ্রাসন চালিয়েছে।’

ফিলিস্তিনিদের নতুন করে প্রতিবাদ
এদিকে, সোমবার ৫৫ জন নিহত হওয়ার পরও দমে যাচ্ছে না ফিলিস্তিনিরা। মঙ্গলবার সকাল থেকে তারা নতুন করে প্রতিবাদ জানানো শুরু করেছে।

আজ ১৫ মে ইসরায়েল রাষ্ট্র সৃষ্টির ৭০তম বার্ষিকী। ১৯৪৮ সালের এই দিনে ফিলিস্তিনিদের উৎখাত করে প্রতিষ্ঠা করা হয়েছিল ইসরায়েল রাষ্ট্র। এ দিনটিকে ‘নাকবা’ বা ‘মহাবিপর্যয়’ দিবস হিসেবে পালন করে থাকে ফিলিস্তিনিরা।

তা ছাড়া, সোমবার নিহত ৫৫ জনের জানাজা আজ অনুষ্ঠিত হবে। এ জানাজার পর নতুন করে বড় ধরনের সংঘর্ষের আশঙ্কা করা হচ্ছে।

তথ্য : বিবিসি ও আল জাজিরা

 

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৫ মে ২০১৫/সাইফুল

Walton Laptop