ঢাকা     শনিবার   ১৩ এপ্রিল ২০২৪ ||  চৈত্র ৩০ ১৪৩০

পটুয়াখালী-৪ আসন

ফুফাতো ভাইয়ের সঙ্গে লড়ছেন মামাতো ভাই, জমজমাট প্রচারণা

পটুয়াখালী (উপকূল) প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৯:৫০, ২৯ ডিসেম্বর ২০২৩   আপডেট: ১৬:২৭, ৩০ ডিসেম্বর ২০২৩
ফুফাতো ভাইয়ের সঙ্গে লড়ছেন মামাতো ভাই, জমজমাট প্রচারণা

পটুয়াখালী-৪ আসনে আলোচনার শীর্ষে রয়েছেন নৌকার মনোনীত প্রার্থী মহিব্বুর রহমান এবং তারই মামাতো ভাই ঈগল প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী মাহবুবুর রহমান। তাদের দুই ভাইয়ের মধ্যে ভোট নিয়ে বড় যুদ্ধ হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এদিকে জমে উঠেছে পটুয়াখালী-৪ আসনের নির্বাচনি প্রচারণা। আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টি, জাসদ, বাংলাদেশ কংগ্রেস ও স্বতন্ত্র দুই প্রার্থীসহ এ আসনে লড়ছেন মোট ৬ জন প্রার্থী।

কলাপাড়া-রাঙ্গাবালী উপজেলা নিয়ে গঠিত ৮৩৫.৬৯ বর্গকিলোমিটারের এই আসনের ভোটার সংখ্যা ২ লক্ষ ৯০ হাজার ৬৮৮ জন। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এ আসনে নৌকা প্রতীক নিয়ে বর্তমান সংসদ সদস্য মহিব্বুর রহমান, ঈগল নিয়ে সাবেক পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী বর্তমান উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহবুবুর রহমান, ট্রাক নিয়ে আব্দুল্লাহ আল ইসলাম লিটন, লাঙ্গল নিয়ে মান্নান হাওলাদার, মশাল নিয়ে বিশ্বাস শিহাব পারভেজ মিঠু ও ডাব নিয়ে জাহাঙ্গীর হোসেন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

বর্তমানে পোস্টার, ব্যানার ও ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে পুরো এলাকা। মাইকিং থেকে শুরু করে উন্নয়নের নানা প্রতিশ্রুতি নিয়ে সকাল থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত চলছে প্রার্থীদের নির্বাচনি প্রচারণা। চলছে উঠান বৈঠক এবং সভা সমাবেশ। মাহবুবুর রহমান ঈগল প্রতীক নিয়ে লড়ছেন তারই ফুফাতো ভাই নৌকা প্রতীকের মহিব্বুর রহমানের সঙ্গে। এই দুই ভাই প্রার্থী হওয়ায় উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে পড়েছেন। নিজেদের মধ্যেই সৃষ্টি হচ্ছে কোন্দল। ঘটেছে বেশ কিছু অপ্রীতিকর ঘটনা।

এদিকে প্রার্থীদের নিয়ে চায়ের কাপে চুলচেড়া বিশ্লেষন চলছে ভোটারদের মাঝে। যোগাযোগ ব্যবস্থাসহ বিদ্যমান নানা সমস্যার সমাধানে যোগ্য প্রার্থীকে নির্বাচিত করতে চান ভোটাররা। 

কলাপাড়া পৌর শহরের ষাটোর্ধ্ব ভ্যান চালক রহিম উদ্দিন বলেন, আমাদের এলাকায় সবচেয়ে বেশি উন্নয়ন হয়েছে। তারপরও যাতায়াত ব্যবস্থাসহ কিছু সমস্যা আছে। যে আমাদের সকল সমস্যা সমাধানের প্রতিশ্রুতি দিতে পারবে আমরা তাকেই ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবো।

একই এলাকার সত্তরোর্ধ্ব অপর ভোটার কিরন হোসেন বলেন, আমাদের এলাকায় পায়রা বন্দরসহ বেশকিছু মেগা প্রকল্পের কাজ চলমান। এখন কলাপাড়াকে জেলায় রূপান্তরিত করা দরকার। এছাড়া গ্রামাঞ্চলের বেশকিছু রাস্তা এখনও কাঁচা রয়েছে। যে প্রার্থী এসব উন্নয়ন করতে পারবে আমরা আপামর জনতা তাকেই বেছে নিবো।

সাবেক পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী ঈগল মার্কার স্বতন্ত্র প্রার্থী মাহবুবুর রহমান বলেন, বিগত ৫ বছরে এলাকার উন্নয়ন থেমে গেছে। এছাড়া সাধারণ মানুষ বর্তমান সংসদ সদস্যকে আর চায় না। তাদের অনুরোধে আমি প্রার্থী হয়েছি। আশা করছি ব্যাপক ভোট পেয়ে আমি নির্বাচিত হবো।

আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বর্তমান এমপি মহিব্বুর রহমান বলেন, আওয়ামী লীগের আমলে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। এছাড়া বিগত ৫ বছরে কোন সন্ত্রাস কিংবা চাঁদাবাজি ছিল না। আমরা ভোটারদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোট চাচ্ছি। ভোটাররা আমাদের আশ্বস্ত করেছে তারা নৌকায় ভোট দিবে। আশা করছি বরিশাল বিভাগের মধ্যে এই আসনে সবচেয়ে বেশি ভোট দিয়ে নৌকাকে জয়যুক্ত করবে।

কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী রির্টানিং কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, আজ থেকে মাঠে বিজিবি মোতায়েন করেছে সরকার। এছাড়া যেকোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে বিপুল সংখ্যক আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মাঠে কাজ করছে।

ইমরান/ফয়সাল

ঘটনাপ্রবাহ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়