ঢাকা     বুধবার   ২৪ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ১১ ১৪৩১

ময়মনসিংহ-৪ 

ট্রাকের দাপটে ঝুঁকিতে নৌকা

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:২৯, ৩ জানুয়ারি ২০২৪  
ট্রাকের দাপটে ঝুঁকিতে নৌকা

আমিনুল হক শামীম ও মোহিত উর রহমান শান্ত

ময়মনসিংহ-৪ (সদর) আসনে নেতাকর্মীদের প্রচার প্রচারণায় উৎসবমুখর পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে। এই আসনে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছে নৌকা ও ট্রাক। এখানে আওয়ামী লীগ মনোনীত ‘নৌকা’ প্রতীক নিয়ে লড়ছেন সাবেক ধর্মমন্ত্রী প্রয়াত অধ্যক্ষ মতিউর রহমানের ছেলে ও মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোহিত উর রহমান শান্ত। অপরদিকে, ট্রাক প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে বেশ সাড়া ফেলেছেন ব্যবসায়ী নেতা থেকে রাজনীতিতে আসা জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আমিনুল হক শামীম। 

ময়মনসিংহের ১১টি আসনের মধ্যে সবচেয়ে জমজমাট ও প্রতিদ্বন্দ্বীতাপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে ময়মনসিংহ -৪ সদর আসনে। নির্বাচনের দিন ঘনিয়ে আসার সঙ্গে সঙ্গে বাড়ছে উত্তেজনা। সাধারণ ভোটার থেকে শুরু করে দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যেও দুই প্রতীকের অবস্থান আরও স্পষ্ট হচ্ছে দিন দিন।

নির্বাচন ‘অংশগ্রহণমূলক’ করার কৌশলে আওয়ামী লীগের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে কাজ করতে দলীয়ভাবে বাধা না থাকায় ভোটকে কেন্দ্র করে বিভক্ত হয়েছেন এই আসনের নেতাকর্মীরা। 

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আওয়ামী লীগ দলীয় নৌকার প্রার্থী মোহিত উর রহমান শান্তর পক্ষে মাঠে নেমেছেন জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী। এছাড়াও শান্তর পক্ষে ভোট চাইছেন জেলা ও মহানগর যুবলীগ, মহানগর ছাত্রলীগ, শ্রমিকলীগ, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ, জেলা ও মহানগর মহিলা আওয়ামী লীগ, যুব মহিলা লীগের একাংশ। তবে, চিত্র বলছে আওয়ামী লীগের দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে প্রচার-প্রচারণায় এগিয়ে আছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী আমিনুল হক শামীম।

জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি এহতেশামুল আলম, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল, উপজেলা চেয়ারম্যান আশরাফ হোসাইন, মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক শাহীনুর রহমান, মহানগর ছাত্রলীগ আহ্বায়ক ও সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক, জেলা ছাত্রলীগে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক, মহিলা আওয়ামী লীগ, যুবমহিলা লীগ, শ্রমিক লীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের বেশিরভাগ নেতাকর্মী স্বতন্ত্র প্রার্থী ট্রাক প্রতীকের আমিনুল হক শামীমের পক্ষে প্রচারে নেমেছেন। এছাড়াও নগরীর ব্যবসায়ী, পরিবহন মালিক ও শ্রমিক সংগঠনের অধিকাংশ নেতাকর্মী মাঠে স্বতন্ত্র প্রার্থী শামীমের পক্ষে ভোট চাইছেন।

শামীমের ছোট ভাই ইকরামুল হক টিটু ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি। নগরীর প্রতিটি ওয়ার্ডে তার শক্ত ভিত্তি রয়েছে। তাছাড়া, দু-একজন বাদে সিটি করপোরেশনের প্রায় সব কাউন্সিলররা মাঠে প্রকাশ্যে স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে কাজ করায় অনেকটা সুবিধাজনক অবস্থায় আছেন শামীম। ফলে বাবা অধ্যক্ষ মতিউর রহমানের রাজনৈতিক আঙিনায় প্রথমবার দলের মনোনয়ন চেয়েই পেয়ে যাওয়া অল্প বয়সের ভাগ্যবান মোহিত উর রহমান শান্ত এখন প্রতিকূলতার মুখোমুখি। বিএনপিবিহীন অনেকটা খালি ময়দানেও ময়মনসিংহ-৪ আসনে নৌকার প্রার্থী হিসেবে জিতে আসার ক্ষেত্রটি এখন অনিশ্চয়তার মুখে।

ময়মনসিংহ-৪ আসনে শান্ত ও শামীম ছাড়াও বিএনপির সাবেক সংসদ সদস্য দেলোয়ার হোসেন খান দুলু প্রার্থী হয়েছেন। রয়েছেন জাপার মনোনীত প্রার্থী আবু মুসা সরকার। ভোটে আরও রয়েছেন তৃণমূল বিএনপির দীপক চন্দ্র গুপ্ত (সোনালী আঁশ), কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের পরেশ চন্দ্র মোদক (গামছা), বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশন-বিটিএফের বিশ্বজিৎ ভাদুড়ী (ফুলের মালা), ন্যাশনাল পিপলস পার্টি-এনপিপির মো. হামিদুল ইসলাম (আম) ও বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টি-বিএসপির সেলিম খান (একতারা)।

সিটি করপোরেশন ও ১৩টি ইউনিয়ন পরিষদ নিয়ে গঠিত ময়মনসিংহ-৪ আসন। এখানে ভোটার ৬ লাখ ৫০ হাজার ২৮৪ জন। এর মধ্যে পুরুষ ৩ লাখ ২২ হাজার ৭৯৭ জন এবং নারী ৩ লাখ ২৭ হাজার ৭৭৭ জন। তৃতীয় লিঙ্গের ভোটার রয়েছেন ১০ জন।

মিলন/মাসুদ

ঘটনাপ্রবাহ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়