ঢাকা     শুক্রবার   ১৯ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ৬ ১৪৩১

কারচুপির ভোটে পরাজিত হয়েছি : ইনু

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৯:৩৭, ৯ জানুয়ারি ২০২৪  
কারচুপির ভোটে পরাজিত হয়েছি : ইনু

হাসানুল হক ইনু

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ‘কারচুপির’ ভোটে তাকে হারানো হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) সভাপতি হাসানুল হক ইনু। তিনি কুষ্টিয়া-২ আসন থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

ইনু বলেন, ‘আমি মনে করি, আমি জনগণের ভোটে নয়, কারচুপির ভোটে পরাজিত হয়েছি। আশা করি, এটা সবাই তদন্ত করে দেখবেন এবং এর প্রতিকার ও বিহীত করবেন।’

মঙ্গলবার (০৯ জানুয়ারি) দুপুরে কুষ্টিয়ার মিরপুরে উপজেলা জাসদের কার্যালয়ে ভোট পরবর্তী দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবারে তিনি এ অভিযোগ করেন। গত রোববার (৭ জানুয়ারি) সারা দেশে সংসদ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ করা হয়।

হাসানুল হক ইনু বলেন, ‘সারা দেশের ভোট অবাধ ও সুষ্ঠু হয়েছে। কিন্তু দূর্ভাগ্যজনক হলো, আমার এলাকা কুষ্টিয়া-২ (মিরপুর ও ভেড়ামারা) আসনে আমার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর মস্তান বাহিনী ভোটের সাত দিন আগে থেকে যে আতঙ্ক ছড়িয়েছে, সেটা বন্ধ করা সম্ভব হয়নি এবং ভোটের দিন ১৬১টি কেন্দ্রের মধ্যে ১৮টি কেন্দ্রে অস্বাভাবিক ভোট প্রদান লক্ষ্য করা গেছে, যা কারচুপির মাধ্যমে করা হয়েছে।’  

প্রতিবাদ করার পরও এবং উপর্যুপরি এ ব্যাপারে কর্তৃপক্ষের নজরে আনার পরও কর্তৃপক্ষ ও প্রশাসনের কর্মকর্তারা পদক্ষেপ নিতে ব্যর্থ হয়েছে বলে অভিযোগ করেন ইনু।

কুষ্টিয়া-২ আসনে ট্রাক প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা কামারুল আরেফিন ১ লাখ ১৫ হাজার ৭৯৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী নৌকা প্রতীকের প্রার্থী হাসানুল হক ইনু পেয়েছেন ৯২ হাজার ৪৪৫ ভোট। ইনু ২৩ হাজারের বেশি ভোটের ব্যবধানে পরাজিত হয়েছেন। ইনু ১৪ দলীয় জোটের প্রার্থী হিসেবে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করেন।

আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ১৪ দলীয় জোট প্রসঙ্গে জোটের অন্যতম নেতা হাসানুল হক ইনু বলেন, ‘নির্বাচনি ঘটনা নিয়ে জোটে কোনো রাজনৈতিক প্রভাব পড়বে না। তবে নির্বাচন নিয়ে জোটের শরিকদের মধ্যে যে বিভ্রান্তি ও বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে, সেটা অবশ্যই নিষ্পত্তি করতে হবে। একই সঙ্গে জোটের প্রার্থীর এলাকায় প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের স্বতন্ত্র প্রার্থীর গুণ্ডাবাহিনীর যে আক্রমণ, হুমকি-ধামকি অত্যাচার শুরু হয়েছে, এটা অবশ্যই বন্ধ করতে হবে। তা না হলে জোটের অভ্যন্তরে সুষ্ঠু পরিবেশ থাকবে না।’

এ সময় কুষ্টিয়া জেলা জাসদের সভাপতি গোলাম মহসিন, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আলিম স্বপন, মিরপুর উপজেলা জাসদের সাধারণ সম্পাদক আহম্মদ আলীসহ দলীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।
 

কাঞ্চন/বকুল 

সম্পর্কিত বিষয়:

ঘটনাপ্রবাহ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়