ঢাকা     বুধবার   ১৭ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ৪ ১৪৩১

প্রতিপক্ষের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে প্রাণ গেলো ব্যবসায়ীর

শরীয়তপুর প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২৩:০৬, ১ মার্চ ২০২৪  
প্রতিপক্ষের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে প্রাণ গেলো ব্যবসায়ীর

শরীয়তপুরের জাজিরাতে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মন্টু বেপারী (৬০) নামের এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষের লোকজনের বিরুদ্ধে।

শুক্রবার (১ মার্চ) সন্ধ্যা ৭টার দিকে উপজেলার সেনেরচর ইউনিয়নের সাকিমালী মাদবর কান্দি এলাকায় তার উপর হামলা করা হয়। নিহত মন্টু বেপারী সেনেরচর ইউনিয়নের ভোলাই মুন্সী কান্দি এলাকার আরশেদ আলী বেপারীর ছেলে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, সেনেরচর ইউনিয়নের ভোলাই মুন্সী কান্দি এলাকার মন্টু বেপারীর সাথে সাকিমালী মাদবর কান্দি এলাকার এমদাদ মাদবরের আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দীর্ঘদিনের বিরোধ। তিন বছর আগেও দু'পক্ষের লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় একটি বিয়ের অনুষ্ঠান থেকে মন্টু বেপারী ও তার ভাইপো বাবু বেপারী মোটরসাইকেলে করে বাড়ি ফিরছিলেন। এসময় তারা সাকিমালী মাদবর কান্দি এলাকায় আসলে প্রতিপক্ষ এমদাদ মাদবর ও তার লোকজন তাদেরকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে জাজিরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে মন্টু বেপারীকে মৃত ঘোষণা করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। এদিকে বাবু বেপারীর অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়।

নিহতের ভাগিনা ফারুক সরদার অভিযোগ করে বলেন, বাড়ি ফেরার পথে মোটরসাইকেলের গতিরোধ করে এমদাদ মাদবর ও তার লোকজন আমার মামাকে নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যা করেছে। যারা আমার মামাকে হত্যা করেছে আমি তাদের সকলের ফাঁসি চাই। 

মন্টু বেপারীর চাচাতো ভাই মামুন বেপারী বলেন, এমদাদ মাদবর ও দেলোয়ার মাদবরের লোকজন আমার ভাইকে হত্যা করেছে। তারা আগে থেকেই হত্যার পরিকল্পনা করে রেখেছিলো। আমার ভাই বাসায় ফেরার সময় তার উপর হামলা চালানো হয়। আমার এক ভাতিজার হাতের কয়েকটি আঙুল পড়ে গেছে, তাকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। 

জাজিরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান বলেন, পূর্ব শত্রুতার জেরে মন্টু বেপারী নামের একজনকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসেছি। এ বিষয়ে আইনি ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

আকাশ/ফয়সাল

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়