ঢাকা     রোববার   ২৬ মে ২০২৪ ||  জ্যৈষ্ঠ ১২ ১৪৩১

ফরিদপুরে সংঘর্ষের ঘটনায় উপজেলা চেয়ারম্যানসহ গ্রেপ্তার ৪২

ফরিদপুর প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২১:১৯, ১৫ এপ্রিল ২০২৪  
ফরিদপুরে সংঘর্ষের ঘটনায় উপজেলা চেয়ারম্যানসহ গ্রেপ্তার ৪২

সালথা উপজেলা চেয়ারম্যান মো. ওয়াদুদ মাতুব্বর।

ফরিদপুরের সালথায় আধিপত্য বিস্তার ও তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পৃথক দু'টি সংঘর্ষের ঘটনায় যৌথ অভিযান চালিয়েছে পুলিশ। এসময় সালথা উপজেলা চেয়ারম্যান মো. ওয়াদুদ মাতুব্বরসহ ৪২ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

সোমবার (১৫ এপ্রিল) বিকেলে ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোহাম্মদ ইমদাদ হুসাইন তাদের গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এর আগে রোববার (১৪ এপ্রিল) দিবাগত রাতে সালথা উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

জেলা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, রোববার (১৪ এপ্রিল) সালথার গট্টি ইউনিয়নের কাঁঠালবাড়িয়া গ্রামে ঘোষণা দিয়ে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে প্রতিপক্ষের বাড়িতে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর, লুটতরাজের পর বাড়িঘরে অগ্নিসংযোগ করে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় জড়িত অভিযোগে রোববার দিবাগত রাতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে সালথা উপজেলা চেয়ারম্যান মো. ওয়াদুদ মাতুব্বরসহ ৩০ জনকে গ্রেপ্তার করে।

অন্যদিকে, শনিবার (১৩ এপ্রিল) বিকেলে উপজেলার মাঝারদিয়া ইউনিয়নের মাঝারদিয়া গ্রামে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে আ'লীগের দুই গ্রুপের দফায় দফায় সংঘর্ষ ও বাড়িঘর ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। এতে এক বীর মুক্তিযোদ্ধাসহ অন্তত ২৫ জন আহত হন। আহতদের মধ্যে অন্তত ২০ জনকে ফরিদপুরের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় জড়িত অভিযোগে একই রাতে অভিযান চালিয়ে পুলিশ অপর ১২ জনকে গ্রেপ্তার করে।

এ ব্যাপারে সালথা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ ফায়েজুর রহমান বলেন, 'জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ ও থানা পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে রোববার দিবাগত রাতে মোট ৪২ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর মধ্যে সালথার গট্টি ইউনিয়নের কাঁঠালবাড়িয়ার ঘটনায় ৩০ জন ও মাঝারদিয়া গ্রামের ঘটনায় অপর ১২ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এ ব্যাপারে ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোহাম্মদ ইমদাদ হুসাইন বলেন, সালথায় পৃথক দু'টি সংঘর্ষের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ওই দু'টি ঘটনায় পৃথক দু’টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এই দুই মামলায় জড়িত বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারে পুলিশী অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

তামিম/ফয়সাল

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়